ঢাকা, শনিবার, ৭ শ্রাবণ ১৪২৪, ২২ জুলাই ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

আপনার নেত্রীকে পদত্যাগের পরামর্শ দিন, রিজভীকে হাছান মাহমুদ

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
প্রকাশ: ২০১৭-০৬-২৮ ৬:৫৬:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৬-২৮ ৭:০০:৩২ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : অযোগ্য নেতৃত্ব ও দল পরিচালনায় ব্যর্থতার জন্য বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে দল থেকে পদত্যাগের পরামর্শ দিতে রুহুল কবির রিজভীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ অনুরোধ জানান হাছান মাহমুদ।

গতকাল ২৭ শে জুন গণমাধ্যমে পাঠানো বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর এক বিবৃতির জবাবে এ বিবৃতি দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

বিবৃতিতে হাসান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন কেবল বাংলাদেশের নেত্রী নন, তিনি বিশ্বস্বীকৃত বিশ্বনেতা। তার গতিশীল নেতৃত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে নিম্ন মধ্যবিত্ত দেশে পরিণত হয়েছে। বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোর মধ্যে যে পাঁচটি দেশ উচ্চ প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পেরেছে বাংলাদেশ তার মধ্যে পঞ্চম।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা তার দক্ষ নেতৃত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশের দারিদ্র্যের হার ৪০ শতাংশ থেকে ২০ শতাংশের নিচে নামিয়ে এনেছেন। অপরদিকে খালেদা জিয়ার অযোগ্য নেতৃত্বের কারণে বিএনপি এখন মুমূর্ষু রোগীর মতো মুখ থুবড়ে আছে। খালেদা জিয়ার নির্বাচনে না আসার ভুল সিদ্ধান্ত, পেট্রোল বোমার রাজনীতির কারণে বিএনপি এখন একটি জনবিচ্ছিন্ন দল। তাই রিজভী আহমেদকে বলব, অযথা সরকারের সমালোচনা না করে বিএনপিকে নিয়ে চিন্তা করুন। আপনাদের নেত্রীর কারণেই আপনাদের দলের এ অবস্থা। তাই বিএনপিকে বাঁচাতে খালেদা জিয়াকে বিএনপি থেকে সরে যাওয়ার পরামর্শ দিন।

বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, গত এক দশকের মধ্যে এবারই কোনোরূপ যানজট ও রাস্তাঘাটে ভোগান্তি ছাড়া দেশের জনগণ পরিবারের সাথে ঈদ করতে বাড়ি যেতে পেরেছে। সরকার এবং যোগাযোগমন্ত্রী রমজান মাসের শুরু থেকেই ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন। সাধারণ মানুষের যাতে আসা-যাওয়ার পথে কোনো অসুবিধায় না হয়, সেজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কর্মকতাদের ঈদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক অভিযোগ করেন, বিএনপি কখনোই মানুষের দুঃখ-দুর্দশায় পাশে দাঁড়ায় না। উল্টো তা নিয়ে রাজনীতি করার অপচেষ্টা করে। হাওর অঞ্চলে প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে সৃষ্ট বন্যার্ত এলাকায় আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুবার গেছেন এবং ত্রাণ বিতরণ করেছেন। রিকশায় চড়ে মানুষের দুর্দশার কথা শুনেছেন, অথচ বিএনপি নেত্রীকে একবারের জন্যও সেখানে দেখা যায়নি। উপরন্তু তিনি এবং তার দলের নেতৃবৃন্দ ঢাকায় বসে সংবাদ সম্মেলনে সরকারের সমালোচনা করেছেন, ত্রাণ নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছেন।

চট্টগ্রামে অতিবৃষ্টিতে সৃষ্ট পাহাড় ধসের প্রথম দিন থেকেই সরকার আক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। পাহাড় ধসের পরদিন সকালেই ত্রাণমন্ত্রী আক্রান্ত এলাকায় ছুটে গেছেন ত্রাণ বিতরণ করেছেন। সরকারের পাশাপাশি আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা প্রথম থেকেই দিন-রাত মানুষের পাশে থেকেছেন।

আমাদের দলের সাধারণ সম্পাদক পরের দিন সকালেই ঢাকা থেকে ছুটে গেছেন। স্থানীয় নেতা-কর্মীদের আক্রান্ত মানুষের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু বিএনপির কেন্দ্রীয় তো দূরের কথা, চট্টগ্রামের স্থানীয় কোনো নেতা-কর্মীকে আক্রান্ত এলাকায় যেতে দেখা যায়নি। প্রকৃতপক্ষে বিএনপি মানুষের পাশে তো দাঁড়ায় না উল্টো তারা মানুষের দুর্দশার কারণ। বিএনপি মানুষকে জিম্মি করে, অবরুদ্ধ করে ক্ষমতায় যেতে চায়।

আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বিবৃতিতে বলেন, বিশ্বের অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশ- ভারত,ব্রিটেন,জাপানের মতো বাংলাদেশেও নির্বাচন হবে ক্ষমতাসীন সরকারের অধীনে। সুতরাং সংবিধান অনুযায়ী আগামী নির্বাচন হবে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে এবং নির্বাচনকালীন সে সরকারের প্রধান থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৮ জুন ২০১৭/হাসিবুল/রফিক

Walton Laptop