ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪২৬, ২২ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ঐক্যফ্রন্টের কালো ব্যাজ কর্মসূচিতে নেই উচ্চপর্যায়ের নেতারা

রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-০৬ ৮:৩৯:৪৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-০৬ ৯:০৭:০৫ পিএম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : নতুন নির্বাচনের দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত কালো ব্যাজ ধারণ করে মানববন্ধন কর্মসূচিতে ছিলেন না জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের  উচ্চ পর্যায়ের নেতারা।

কর্মসূচিতে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সভাপতি আ স ম আবদুর ও গণস্বাস্থ্যের ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী উপস্থিত থাকলেও ছিলেন না গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি আবদুল কাদের সিদ্দিকী, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, সুলতান মুহাম্মদ মনসুর।

বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত এক ঘণ্টার এই কর্মসূচিতে ফ্রন্টের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী অংশ নেন। কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, ‘মির্জা ফখরুল, মন্টু ও মান্না তিনজনই চিকিৎসার জন্য বিদেশে রয়েছেন। আর পারিবারিক একটি অনুষ্ঠানের জন্য যোগ দিতে পারেননি কাদের সিদ্দিকী। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আছে, থাকবে।’

কামাল হোসেনের অসুস্থতার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘উনার ডান পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে, বাম পায়ে অস্ত্রোপচারের জন্য কমপক্ষে ৩/৪ সপ্তাহ দেশের বাইরে থাকা দরকার। দেশের রাজনীতির কারণে উনি ৫/৭ দিনের বেশি দেশের বাইরে থাকেন না।’

‘আজকে উনার পায়ের ব্যথা অত্যাধিক বেড়েছে। সেজন্য মানববন্ধনের এই কর্মসূচিতে ফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন উপস্থিত হতে পারেননি। আমরা দৃঢ়তার সঙ্গে বলছি, ঐক্যফ্রন্ট ছিল, ঐক্যফ্রন্ট আছে, ঐক্যফ্রন্ট থাকবে।’

আবদুর রব বলেন, ‘আজকে কালো ব্যাজ ধারণ করে প্রতিবাদ করছি। আমরা অপেক্ষা করে আছি, আগামীতে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ করতে হবে। শুধু ঘরের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে চলবে না, আন্দোলন করতে প্রস্তুতি নিতে হবে।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেন, ‘দেশের জনগণ ও আন্তর্জাতিক মিডিয়া জানে, দেশে কীভাবে প্রহসনের নির্বাচন হয়েছে। এবারের নির্বাচনে প্রমাণ হয়েছে দলীয় সরকারের অধীনে কোনো সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হতে পারে না।’

গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী বলেন, ‘২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকে লাইফ সাপোর্টে পাঠিয়েছে। আর ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর ডেড (মৃত) করে দিয়েছে।’

মানববন্ধনে বিএনপি নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সেলিমা রহমান, আবদুস সালাম, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, আবদুস সালাম আজাদ, কাজী আবুল বাশার। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গণফোরামের জগলুল হায়দার আফ্রিক, মোশতাক আহমেদ, রফিকুল ইসলাম পথিক, জেএসডির আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের শহীদুল্লাহ কায়সার, মমিনুল ইসলাম, জনদলের এটিএম গোলাম মওলা চৌধুরী।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/রেজা/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge