ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৪ মে ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

একজন শিক্ষকের পরিবেশ বদলে দেয়ার স্বপ্ন

শোভন আশরাফ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-০৩ ২:০৫:৩২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৩-০২ ১২:০৪:৪৩ পিএম

শোভন আশরাফ : পুরো নাম মাহফুজুর রহমান সাগর। সবাই ‘সাগর স্যার’ নামেই চেনে। শিক্ষকতা করছেন ফেনী শহরের অদূরে দাগনভূঁইয়া একাডেমি উচ্চ বিদ্যালয়ে।

মাহফুজুর রহমানের বেড়ে ওঠা চট্টগ্রাম শহরের পাঁচলাইশ এলাকায়। ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন দেখতেন ব্যতিক্রমধর্মী কিছু করার। ফলে ছাত্রাবস্থায় থাকাকালীন যুক্ত হন বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক সংগঠনগুলোর সঙ্গে। ২০০৪ সালে মাস্টার্স পরীক্ষা দিয়ে ভাবলেন- গ্রাম, গ্রামের মানুষ দেখবেন অবসরের এই সময়টাতে। গ্রামে গ্রামে ঘুরে বেড়াতে লাগলেন। কিছুদিনের মধ্যেই তিনি গ্রামের সহজ সরল মানুষগুলোর মায়ায় পড়ে গেলেন। সময়ের প্রভাবে মানুষ যখন শহরমুখী হতে ব্যস্ত, ঠিক এমন সময় তার এই আবেগ  বা সিদ্ধান্ত ব্যতিক্রমই বটে। গ্রামের ছেলেমেয়েদের পড়াবেন, তাদের কাছে তুলে ধরবেন দেশের কথা, দেশ ও দশের জন্য কাজ করতে তাদের উৎসাহিত করবেন- এমন ভাবনা থেকেই যুক্ত হলেন শিক্ষকতায়।

স্কুলে যোগদানের পর কাজটি কীভাবে শুরু করা যায় বুঝে উঠতে পারছিলেন না। অবশেষে ২০১৫ সালের নভেম্বর মাসে ছাত্রছাত্রী ও উদ্যোগী তরুণদের নিয়ে প্রতিষ্ঠা করলেন ‘নবদিগন্ত’ নামে একটি আর্থ-সামাজিক সংগঠন। শুরু হলো তার স্বপ্নের পথচলা। শুরুর দিকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। আশপাশের আরো স্কুল কলেজ এবং স্থানীয় বাজার, রাস্তাঘাট পরিষ্কার করতে দলবেঁধে নেমে যেতেন। কিন্ত তিনি বুঝতে পারলেন এভাবে সাময়িকভাবে কিছু করা গেলেও স্থায়ীভাবে করা সম্ভব নয়। কারণ, সব শ্রেণী-পেশার মানুষের মধ্যে সচেতনতা প্রয়োজন। এজন্য অবশ্য আশপাশের অনেক কটূ কথাও তাকে শুনতে হয়েছে। তিনি দমে যাননি। অবশেষে স্থানীয় পৌরসভা এবং উপজেলা প্রশাসন তার এই ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগের কথা জানতে পেরে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়।

বর্তমানে তার সংগঠনের মাধ্যমে প্রতিমাসে দুইবার স্থানীয় স্কুলগুলোতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে মোটিভেশনাল প্রোগ্রাম পরিচালনা করা হয় এবং উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সভাতেও তিনি এ বিষয়ে কথা বলে সবাইকে উৎসাহ দেন। অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া যাতে অভাবের কারণে থেমে না যায়, এজন্য তিনি বাড়িয়ে দিয়েছেন সহযোগিতার হাত। এজন্য বেতনের সিংহভাগ খরচ করতেও তার দ্বিধা নেই।

মাহফুজুর রহমান বিশ্বাস করেন, একদিন বাংলাদেশের মানুষ সচেতন হয়ে উঠবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে। এজন্য প্রয়োজন এ বিষয়ে দেশব্যাপী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে মোটিভেশনাল প্রোগ্রাম পরিচালনা করা। তবেই আগামী প্রজন্মের হাত ধরে গড়ে উঠবে একটি পরিচ্ছন্ন সোনার বাংলাদেশ।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/ফিরোজ/তারা

Walton Laptop
 
   
Walton AC