ঢাকা, শনিবার, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

থাইরয়েড ক্যানসারের ৬ উপসর্গ

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-৩০ ১১:০৪:৫৪ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-৩০ ১:৪৩:১৫ পিএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : বেশিরভাগ থাইরয়েড ক্যানসার হঠাৎ করে ধরা পড়ে। বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীরা আল্ট্রাসাউন্ড, সিটি স্ক্যান বা এমআরআই করলে ডাক্তাররা থাইরয়েড ক্যানসারের সন্ধান পান।

নিউ ইয়র্কের মেমোরিয়াল স্লোয়ান কেটারিং ক্যানসার সেন্টারের এমডি এবং এনডোক্রিনোলজিস্ট মাইকেল টাটল বলেন, রোগীদের মধ্যে গুটি বা ক্ষুদ্র স্ফীতি খুব কম দেখা যায়। রোগীরা সাধারণত এই ক্যানসারের ওপর খুব একটা লক্ষ্য রাখে না এবং নিশ্চিত থাকে যে সরাসরি চিকিৎসা না করলেও এর অবস্থা খারাপ হবে না।

মাইকেল টাটল বলেন, আমি অ্যাসিম্পটমেটিক(রোগ বা ইনফেকশনের উপসর্গবিহীন) মিলিমিটার আকারের পিণ্ড বা গুটি বা স্ফীতিকে উপেক্ষা করব যা আপনি খোঁজার কারণে খুঁজে পেয়েছেন। কিন্তু আপনার গলার ওপর কোনো উপসর্গ বা কোনো কিছু অনুভূত হয়ে থাকলে তাহলে আপনার এসব উপেক্ষা করা উচিত হবে না। আপনার মধ্যে যদি সম্ভাব্য থাইরয়েড ক্যানসারের নিচের উপসর্গগুলো দেখা দেয় তাহলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। এমনকি সামান্য শ্বাসাঘাত হলেও এড়িয়ে যাবেন না, ক্যানসার হয়েছে কিনা পরীক্ষা করে দেখুন।

গলায় গুটি বা স্ফীতি

ফ্লোরিডার জ্যাকসনভিলেতে অবস্থিত মায়ো ক্লিনিকের মেডিসিন বিভাগের এমডি ও অধ্যাপক এবং মায়ো ক্লিনিক ক্যানসার সেন্টারের উপ-পরিচালক রবার্ট স্মলরিজ বলেন, ‘পুরুষেরা প্রায়সময় শেভিংয়ের সময় গুটি বা স্ফীতি দেখবে এবং মেয়েরা দেখবে মেকাপ দেবার সময়।’ প্রায় ৯০ শতাংশ থাইরয়েড গুটি বিনাইন প্রকৃতির হয়ে থাকে, কিন্তু আপনার গলার সম্মুখে অ্যাডাম’স অ্যাপলের নিচে বড় গুটি দেখা দিলে এটি কী প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে তাতে মনোযোগ দিন। ড. টাটল বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ বড় গুটি চেনার উপায় হল গলাধঃকরণের সময় এটি উপরে-নিচে উঠানামা করবে, কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অন্যান্য গুটি তা করে না।

কর্কশ কণ্ঠস্বর

রিকারেন্ট ল্যারিনজিয়্যাল নার্ভ বা পুনরাবৃত্ত বাকযন্ত্র স্নায়ু যা ভোকাল কর্ড বা স্বরতন্ত্রী খোলা ও বন্ধ করার পেশিকে নিয়ন্ত্রণ করে তা ডানে থাইরয়েডের পেছনে অবস্থিত থাকে। ড. স্মলরিজ বলেন, ‘খুব কম ক্ষেত্রে কোনো গুটি (বিশেষ করে ক্যানসারযুক্ত) থাইরয়েডের বাইরে প্রসারিত হতে পারে এবং রিকারেন্ট ল্যারিনজিয়্যাল নার্ভকে ক্ষতিগ্রস্ত করে আপনার ভয়েস বক্স বা ল্যারিনক্স বা স্বরযন্ত্রকে প্রভাবিত করতে পারে। অধিকাংশ রোগীরা ভয়েস বক্সের ওপর এ প্রভাবকে কর্কশতা হিসেবে বিবরণ দেয়। আপনার ল্যারিনজাইটিস(কণ্ঠনালীর প্রদাহ) যদি ঠান্ডা থেকে হয়ে থাকে তাহলে তাড়াতাড়ি স্বাভাবিক কণ্ঠস্বর ফিরে পেতে সমাধান খুঁজুন।

দীর্ঘস্থায়ী কাশি

থাইরয়েড ক্যানসারে আক্রান্ত অল্প সংখ্যক লোকের মধ্যে রহস্যময় কাশির বৃদ্ধি হয়ে থাকে যা সাধারণত কনজেশনের সঙ্গে সম্পর্কিত অন্য কোনো উপসর্গের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়। ড. টাটল বলেন, ‘থাইরয়েড ক্যানসারের কাশি সংক্রামক নয়, তাই লোকেরা হতভম্ব ও বিস্মিত হয় যে তারা কেন জ্বর ও কফ বা শ্লেষ্মা ছাড়াই কাশছে।’ কিন্তু চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর আগে কাশি না সারার অন্যান্য কারণ অনুসন্ধান বা পরীক্ষা করুন।

গিলতে বা গ্রাসে অসুবিধা

গুটি বা স্ফীতি যথেষ্ট বড় হয়ে গেলে কোনো কিছু গিলতে বা গ্রাসে কষ্ট বা সমস্যা হবে এবং এ অবস্থা নির্দেশ করবে যে ক্যানসার মারাত্মক রূপ নিয়েছে এবং খুব ক্ষতিকর পর্যায়ে চলে এসেছে। এ প্রসঙ্গে ড. টাটল বলেন, ‘এটি বিরল, কিন্তু দুশ্চিন্তার।’ তিনি আরো বলেন, ‘গিলতে বা গ্রাসে সমস্যা হলে বুঝা যায় যে গুটি বা স্ফীতি বড় হয়েছে এবং ক্রমবর্ধমান হচ্ছে।’ গ্রাসে সমস্যা গলার ক্যানসারের উপসর্গও হতে পারে। তাই আপনি যদি এ ব্যাপারে উদ্বিগ্ন হয়ে থাকেন তাহলে ডাক্তারের কাছে গিয়ে নিশ্চিত হয়ে নিন।

গলা ব্যথা

আপনি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে থাইরয়েড ক্যানসারের পিণ্ড বা গুটি বা ফোলার ব্যথায় ভুগবেন না। কিন্তু গলা ব্যথার কতগুলো কারণে বেদনায় ভুগতে পারেন। ড. টাটল বলেন, ‘থাইরয়েড ক্যানসারজনিত কোনো পিণ্ড বা গুটি বা ফোলা খুব কমই বেদনাদায়ক বা অস্বস্তিদায়ক হয়ে থাকে। কিন্তু বিরল ক্ষেত্রে গুটি বা স্ফীতি বা ফোলা ব্যথা বা বেদনার উদ্রেক করতে পারে।’ আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটির মতে, গলার সম্মুখ থেকে ব্যথা শুরু হয় এবং মাঝেমাঝে দুই কান পর্যন্ত সমস্ত অংশ জুড়ে ব্যথা পৌঁছতে পারে।

শ্বাসে সমস্যা

আপনি কোনো কিছু না গিললে বা না খেলে বা কথা না বললেও থাইরয়েড ক্যানসারের কারণে আপনার শ্বাসকষ্ট হতে পারে। বিরল প্রকৃতির অ্যানাপ্লাস্টিক থাইরয়েড ক্যানসারের কারণে এক শতাংশ থাইরয়েড ক্যানসারের ক্ষেত্রে গুটি বা স্ফীতি খুব দ্রুত বৃদ্ধি পায়। ড. স্মলরিজ বলেন, ক্রমবর্ধমান গুটি বা স্ফীতি উইন্ড পাইপ বা ট্র্যাকিয়া বা শ্বাসনালী এবং নার্ভ বা স্নায়ুর বিরুদ্ধে ধাক্কা দেয়। কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি মেডিকেল সেন্টারের মতে, ‘নিষ্ক্রিয় থাকা অবস্থায় আপনি শ্বাস স্বল্পতায় ভুগতে পারেন, বিশেষ করে আপনি যখন ফ্ল্যাট স্লিপিং বা চিৎ হয়ে শুবেন।’ তবে মনে রাখতে হবে যে শ্বাসজনিত সমস্যা ফুসফুস রোগের উপসর্গও হতে পারে।
 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩০ আগস্ট ২০১৭/ফিরোজ

Walton
 
   
Marcel