ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ মাঘ ১৪২৪, ১৬ জানুয়ারি ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

ডায়াবেটিস চিকিৎসায় আলোচিত যত অগ্রগতি

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১২-২৩ ৯:৪৫:১৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-২৪ ১০:০৪:৪১ পিএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : ডায়াবেটিস রোগীদেরকে সাহায্য করার জন্য ২০১৭ সালে অনেক সরঞ্জাম, প্রযুক্তি ও জ্ঞান বেরিয়ে এসেছে। এ প্রতিবেদনে ২০১৭ সালের সবচেয়ে যুগান্তকারী ডায়াবেটিস গবেষণাসমূহ নিয়ে আলোচনা করা হলো।

* আপনার জিনও ডায়াবেটিস ঝুঁকির কারণ

জীবনধারার বিষয়সমূহ, যেমন- নিম্নমানের খাদ্য কিংবা এক্সারসাইজের অভাব, আপনাকে নিশ্চিতভাবে টাইপ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকিতে ফেলতে পারে। কিন্তু আপনার জিনও ডায়াবেটিস ঝুঁকির কারণ হতে পারে এবং এ জ্ঞান আরো কার্যকর চিকিৎসা আবিষ্কারের দিকে ধাবিত করতে পারে। ইউনিভার্সিটি অব শিকাগোর কোভলার ডায়াবেটিস সেন্টারের পরিচালক লুইস ফিলিপস বলেন, ‘ক্রমবর্ধমান উপলব্ধি হচ্ছে, ডায়াবেটিস মানেই সব দোষ আপনার নয়। জেনেটিক লিংকও শক্তিশালী।’ আপনার শরীর কিভাবে রক্ত শর্করা ব্যবহার করবে, কিভাবে ওজন নিয়ন্ত্রণ করবে এবং কিভাবে বিপাক ও ক্ষুধায় প্রভাব ফেলবে তা আপনার জেনেটিক দ্বারা প্রভাবিত হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, ২০০৭ সালে এক গবেষণায় ২৫০,০০০ এর অধিক মানুষের জিনোমিক সিকোয়েন্স পর্যবেক্ষণ করা হয়। গবেষকরা ১৬টি নতুন জেনেটিক ভেরিয়েশন শণাক্ত করেছেন যা টাইপ২ ডায়াবেটিসের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত, এসবের কিছু জেনেটিক ভেরিয়েশন কার্ডিওভাস্কুলার রোগের সঙ্গেও সম্পর্কযুক্ত ছিল। গবেষণা সহ-লেখক এবং বায়োস্ট্যাটিস্টিকস অ্যান্ড এপিডেমিওলজির সহকারী অধ্যাপক ড্যানিশ সালেহীন বলেন, ‘টাইপ২ ডায়াবেটিস ও করোনারি হৃদরোগের ঝুঁকি উভয়ের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত এসব জিন ভ্যারিয়্যান্ট শণাক্তকরণ একক ওষুধের মাধ্যমে উভয় রোগের ঝুঁকি হ্রাসের সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছে।’

* টাইপ২ ডায়াবেটিস রিভার্স করা যেতে পারে

কিভাবে ডায়াবেটিস রিভার্স করা যায় তা কি জানতে চান? আপনার ওজন দেখুন। ডায়াবেটিস স্থায়ী ও জীবনব্যাপী অবস্থা হিসেবে পরিচিত। কিন্তু বিএমজে’র নতুন গবেষণা ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, টাইপ২ ডায়াবেটিস উপশম করার সম্ভাবনা আছে। রিডার্স ডাইজেস্টের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যে, টাইপ২ ডায়াবেটিস থাকা যেসব লোকেরা ক্যালরি-নিয়ন্ত্রিত খাবার খেয়েছেন এবং কমপক্ষে ৩৬ পাউন্ড ওজন হারিয়েছেন, ক্লিনিক্যাল সংজ্ঞানুযায়ী তাদের আর ডায়াবেটিস ছিল না। সাম্প্রতিক পাবলিসিটি সত্ত্বেও রোগী ও ডাক্তাররা টাইপ২ ডায়াবেটিস সম্পর্কে অসচেতন হতে পারে।

* ইনসুলিন পাম্পের উন্নয়ন

পূর্বে ইনসুলিন পাম্প টাইপ১ ডায়াবেটিস (যেখানে শরীর ইনসুলিন উৎপাদন করে না) রোগীদের শরীরে অল্পহারে ইনসুলিন বিতরণ করত। কিন্তু আপনার রক্ত শর্করা মাত্রার উপর ভিত্তি করে ডোজ সমন্বয় করতে নতুন পাম্পে একটি ইলেক্ট্রিক মনিটর সমন্বয় করা হয়েছে। একটি উদাহরণ হচ্ছে, মেডট্রনিক মিনিমেড ৬৭০ ইনসুলিন পাম্প। নর্থশোর ইউনিভার্সিটি হেলথসিস্টেমের ডায়াবেটিস কনসালটেশন ক্লিনিকের পার্সোনালাইজড মেডিসিনের পরিচালক লিয়ানা বিলিংগস বলে, ‘২০১৭ সাল থেকে রোগীদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়ে ২০১৬ সালের শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) এই হাইব্রিড ক্লোজড লুপ ইনসুলিন পাম্পটি অনুমোদন করে।’

* ডায়াবেটিসের সঙ্গে ক্যানসারের সংযোগ আছে

দ্য ল্যানসেট ডায়াবেটিস অ্যান্ড এন্ডোক্রিনলজির এ বছরের গবেষণা (এ গবেষণায় ২০১২ সাল থেকে ক্যানসার পর্যবেক্ষণ করা হয়) অনুসারে, একটি ভীতিকর পরিসংখ্যান হচ্ছে- প্রায় ৮০০,০০০ নতুন ক্যানসার রোগীদের ক্ষেত্রে টাইপ২ ডায়াবেটিস এবং উচ্চ বিএমআইয়ের অবদান/সংযোগ আছে। ক্যানসার হওয়ার অন্যান্য সাধারণ কারণ থাকলেও গবেষকরা বলছেন যে, এক-চতুর্থাংশ লিভার ক্যানসার এবং ১০টি এন্ডোমেট্রিয়াল ক্যানসারের ঘটনার মধ্যে প্রায় ৪টির জন্য ডায়াবেটিস দায়ী। উচ্চ ইনসুলিন ও রক্ত শর্করা মাত্রা এবং সেই সঙ্গে দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহ এসব অবস্থার একটি সাধারণ কারণ হতে পারে।

* শর্করা মনিটরিংয়ের উন্নয়ন হচ্ছে

রক্ত শর্করা মাপতে ফিঙ্গার প্রিকের কথা চিন্তা করুন। ডেক্সকমের কন্টিনিউয়াস গ্লুকোজ মনিটরিং (সিজিএম) ধন্যবাদ পাওয়ার যোগ্য। অ্যান্ড্রয়েডের জন্য তাদের জি৫ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনটি ২০১৭ সালের জুলাইয়ে ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) কর্তৃক অনুমোদিত হয়, যা আপনাকে ধারবাহিকভাবে রক্ত শর্করার আপডেট দেবে। আপনার রক্ত শর্করার পরিমাণ জানতে সিজিএম প্রতি পাঁচ মিনিটে একবার রিডিং করে। ডা. বিলিংগস বলেন, ‘যন্ত্রকে কেলিব্রেট করতে আপনার একদিনে শুধুমাত্র দুই বার রক্ত শর্করা চেক করা প্রয়োজন। এটি উল্লেখযোগ্যভাবে ফিঙ্গার স্টিকের সংখ্যা কমিয়ে দেয়, যা অনেক সমস্যা দূর করে।’ তিনি যোগ করেন, ‘একটি পরীক্ষায় আবিষ্কার হয় যে সিজিএম রক্ত শর্করা নিয়ন্ত্রণ উন্নয়নে সাহায্য করতে পারে। টাইপ১ ও টাইপ২ ডায়াবেটিস রোগীদের চিকিৎসা স্বাস্থ্যবিধিতে সিজিএম যুক্ত করে দেখা যায় যে, তাদের হিমোগ্লোবিন এ১সি (কোনো ব্যক্তির তিন মাসের গড় রক্ত শর্করা পরিমাপ) উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেয়েছে।’

* খাদ্য বৃহত্তর ভূমিকা পালন করে

আপনি জানেন যে, পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেট এবং সাধারণ শর্করা ভোজন পর্যবেক্ষণ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের চাবিকাঠি। আপনার হয়তো জানা আছে যে, আপনার খাদ্যের প্রভাব কার্বোহাইড্রেট অতিক্রম করে। ডায়াবেটোলজির নতুন গবেষণায় পাওয়া যায় যে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাদ্যও ডায়াবেটিস হ্রাসে ভূমিকা রাখে। যেসব নারীরা উচ্চমাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ভোজন করেছেন তাদের টাইপ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ২৭ শতাংশ কমে যায়।

* আপনি গ্লুকোজ সেন্সরও বেছে নিতে পারেন

আপনি ফিঙ্গার প্রিক পছন্দ নাও করতে পারেন। ২০১৭ এর সেপ্টেম্বরে ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) ফ্রিস্টাইল লিব্রে ফ্ল্যাশ গ্লুকোজ মনিটরিং সিস্টেম নামে একটি সেন্সর অনুমোদন করে যা আপনার বাহুতে পরিধান করতে পারেন। সেই সঙ্গে একটি হাতে ধরা রিডার থাকবে। সেন্সরের সাহায্যে আপনি ব্যথাহীনভাবে রক্ত শর্করা মাত্রা চেক করতে পারবেন। এটি ১০ দিন পর্যন্ত পরিধান করা যেতে পারে (এমনকি শাওয়ারেও) এবং কাপড়ের নিচে কাজ করতে পারে। ডায়াবেটিস থেরাপির ২০১৭ সালের একটি গবেষণায় আবিষ্কার হয় যে, এই ডিভাইসটি নিরাপদ ও কার্যকর, হাইপোগ্লাইসিমিয়ার (নিম্ন রক্ত শর্করা) ঝুঁকি হ্রাস করে এবং রোগীর লাইফ অব কোয়ালিটি উন্নত করে।

* আপনার ভূমিকা অনুধাবন করুন

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ঘরে উত্তম ডায়াবেটিস সেবা ম্যানেজমেন্টে সাহায্য করতে গ্লুকোজ সেন্সর, মনিটর ও অ্যাপস ডিজাইন করা হয়েছে। রিংকার বলেন, ‘ডায়াবেটিস থাকা একজন লোক বিহ্বল হতে পারে, কারণ তাদের নিজেদেরকে এ রোগ ব্যবস্থাপনা বা নিয়ন্ত্রণ করতে হয়।’ এ কারণে আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব ডায়াবেটিস এডুকেটরস(এএডিই) এবং আমেরিকান ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় যে নতুন ‘ডায়াবেটিস আত্ম-ব্যবস্থাপনা, শিক্ষা ও সহায়তার জন্য জাতীয় মানদণ্ড’  উত্থাপিত হয়েছে তা খুব গুরুত্বপূর্ণ। প্রতি পাঁচ বছরে এটি আপডেট করা হয় এবং সম্প্রতি আপডেট হয় ২০১৭ সালে। যেহেতু অধিকাংশ রোগী প্রতিবছর শুধুমাত্র চারবার ডাক্তারদের কাছে ভিজিট করে, সেহেতু ডায়াবেটিসের আত্ম-ব্যবস্থাপনা বা আত্ম-নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে জ্ঞান রোগীদেরকে উত্তম সরঞ্জামাদির মাধ্যমে ডায়াবেটিস পর্যবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে সহায়তা করবে এবং এভাবে তারা দীর্ঘপথ পাড়ি দিতে পারবে।

* হৃদপিণ্ডকে গুরুত্ব দিয়ে ওষুধ তৈরি হচ্ছে

কিভাবে ডায়াবেটিস এবং কার্ডিওভাস্কুলার রোগ দৃঢ়ভাবে সংযুক্ত তাতে ক্রমবর্ধমান ফোকাস আছে। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন অনুসারে, ‘প্রকৃতপক্ষে, প্রাপ্তবয়স্ক ডায়াবেটিস রোগীদের হৃদরোগে মারা যাওয়ার সম্ভাবনা সুস্থ প্রাপ্তবয়স্কদের তুলনায় ৪ গুণের বেশি।’ ডায়াবেটিস ওষুধ যাতে কার্ডিও ঝুঁকি না বাড়ায় এবং ফলাফল যেন চমৎকার হয় তা লক্ষ্য করে নতুন ট্রায়ালসমূহ ডিজাইন করা হয়েছে। এমনকি কিছু ওষুধ আপনার হৃদপিণ্ডের জন্য ভালো। ২০১৭ সালে ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) ভিক্টোজা নামে একটি ওষুধ অনুমোদন করে যা টাইপ২ ডায়াবেটিস রোগীদের বড় ধরনের কার্ডিওভাস্কুলার সমস্যা বা রোগ, হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি হ্রাস করবে। ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে জারডিয়্যান্স নামে অন্য একটি ওষুধ অনুমোদিত হয় যা টাইপ২ ডায়াবেটিস ভুক্তভোগীদের কার্ডিওভাস্কুলার মৃত্যুর ঝুঁকি কমাবে।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ ডিসেম্বর ২০১৭/ফিরোজ

Walton
 
   
Marcel