ঢাকা, শনিবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৫, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

চিকিৎসা সেবায় বছরের যুগান্তকারী আবিষ্কার

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৭-১২-২৪ ৮:০০:৩২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-২৪ ১০:৫০:৩১ এএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল: আমাদের বিভিন্ন রোগব্যাধির হাত থেকে রক্ষার জন্য, অকাল মৃত্যুর কবল থেকে বাঁচানোর জন্য, সুস্থ জীবনের উপায় উপহার দেয়ার জন্য কিংবা রোগমুক্ত সুন্দর জীবনযাপনের কলাকৌশল উদ্ভাবনের জন্য চিকিৎসাবিজ্ঞানী বা গবেষকদের গবেষণার অন্ত নেই। তাদের গবেষণার ধারাবাহিকতায় ২০১৭ সালে চিকিৎসাক্ষেত্রে কিছু অভিনব ও গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার সাধিত হয়েছে। বছরের যুগান্তকারী সেই আবিষ্কার নিয়ে এই প্রতিবেদন।

* হেপাটাইটিস-সি’র চিকিৎসা : এ বছর এক যুগান্তকারী গবেষণায় মানবদেহে একটি একক রিসেপ্টর কোষ উদঘাটিত হয়। এটি হেপাটাইটিস-সি শণাক্ত করতে সক্ষম। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের মতে, একটি ভ্যাকসিন ডেভেলপ করা কিংবা হেপাটাইটিস-সি চিকিৎসার জন্য এই কোষ প্রধান ধাপ হতে পারে। কিন্তু এটি বড় সংবাদ নয়। বড় সংবাদটি আসে আগস্টের শেষ দিকে। যুক্তরাষ্ট্রে ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) হেপাটাইটিস-সি চিকিৎসার জন্য একটি নতুন ওষুধ অনুমোদন করেছে। নাম মেভিরেট এবং এর জেনেরিক নাম গ্লেকেপ্রিভাইয়ার অ্যান্ড পিব্রেনট্যাসভাইয়ার। এটি হেপাটাইটিস-সি রোগীদের জন্য আট-সপ্তাহ মেয়াদী চিকিৎসা। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক এডওয়ার্ড কক্স বলেন, ‘অনেক রোগীর জন্য স্বল্পমেয়াদী চিকিৎসা এবং কিছু রোগীর জন্য বিকল্প চিকিৎসা হিসেবে এই অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।’

* স্তন ক্যানসারের চিকিৎসা : গত বছর যুক্তরাজ্যের গবেষকরা দুটি বিদ্যমান ক্যানসার চিকিৎসার ওষুধ- হারসেপটিন এবং টাইভারব-এর অভিনব সমন্বয় করেন। ওষুধগুলো স্তন ক্যানসারের আক্রমণাত্মক রূপের টিউমারের আকার হ্রাস করে। এ বছর এফডিএ স্তন ক্যানসারের একই রূপের জন্য একটি নতুন ওষুধ অনুমোদন করে। ওষুধের নাম নারলিঙ্কস (জেনেরিক নাম: নেরাটিনিব)। এটি প্রথম পর্যায়ের রোগীদের জন্য অনুমোদন করা হয়েছে। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে, ক্যানসার পুনরাবৃত্তির ঝুঁকি কমিয়ে আনা। এফডিএ’র অনকোলজি সেন্টার অব এক্সিলেন্সের পরিচালক রিচার্ড পাজডুর বলেন, ‘এইচইআর২-পজিটিভ স্তন ক্যানসার হচ্ছে, আক্রমণাত্মক টিউমার যা শরীরের অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়তে পারে এবং এর চিকিৎসা পরিকল্পনায় এই সংযোজিত থেরাপির (নারলিঙ্কস) গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকবে।’ তিনি যোগ করেন, ‘এখন স্তন ক্যানসার রোগীদের জন্য প্রাথমিক স্বাস্থ্যবিধি বা চিকিৎসার পর একটি অপশন থাকছে যা ক্যানসার ফিরে আসা ঠেকাতে সাহায্য করতে পারে।’

* পারকিনসন’স রোগের জন্য অ্যাড-অন থেরাপি : যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অব হেলথের তথ্যানুসারে, পারকিনসন’স হচ্ছে মুভমেন্ট ডিসঅর্ডার, যা মস্তিষ্কে ডোপামাইন কেমিক্যাল উৎপাদনকারী কোষ ক্ষতিগ্রস্ত হলে বা মরে গেলে হয়ে থাকে। ডোপামাইন মস্তিষ্কের সমতাপূর্ণ ও উদ্দেশ্যপূর্ণ মুভমেন্ট উৎপাদনকারী এলাকাসমূহের মধ্যে সংকেত প্রেরণ করতে সহায়তা করে। বর্তমানে এ রোগের ট্রিটমেন্ট প্রোটোকল বা চিকিৎসা পদ্ধতি ধারাবাহিকভাবে কার্যকর নয় এবং এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। কিন্তু এই রোগের নতুন ওষুধ জেডাগো আশার আলো দেখাচ্ছে। যা রোগীদের পূর্বের চিকিৎসার কার্যকারিতা বাড়ানোর চিকিৎসা হিসেবে কাজ করতে পারে।

* উচ্চ রক্তচাপের নতুন সংজ্ঞা : উচ্চ রক্তচাপ অনেক সময় উপসর্গ নাও দেখাতে পারে। কিন্তু এটি কার্ডিওভাসকুলার রোগের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। প্রকৃতপক্ষে উচ্চ রক্তচাপ স্ট্রোকজনিত মৃত্যু, হৃদরোগ কিংবা অন্যান্য ভাসকুলার রোগের ঝুঁকি দ্বিগুণ করে। আপনার রক্তচাপ রিডিং দুটি সংখ্যা বা দুইরকম রক্তচাপ নির্দেশ করে: ১. সিস্টোলিক রক্তচাপ ২. ডায়াস্টোলিক চাপ। সায়েন্স নিউজ অনুসারে, পূর্বে ১৪০ এর ওপর স্কোরকে সিস্টোলিক রক্তচাপ এবং ৯০ এর ওপর স্কোরকে ডায়াস্টোলিক রক্তচাপ বিবেচনা করা হতো। টাস্ক ফোর্সের নতুন গাইডলাইন অনুযায়ী, স্কোর ১৩০ হচ্ছে সিস্টোলিক চাপ এবং স্কোর ৮০ হচ্ছে ডায়াস্টোলিক চাপ। টাস্ক ফোর্সের এই নতুন গাইডলাইন বিবেচনা করলে প্রায় অর্ধেক আমেরিকান উচ্চ রক্তচাপের নতুন সংজ্ঞায় পড়বে। হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ হ্রাস করতে প্রথমে জীবনধারার দিকে দৃষ্টি দেওয়ার জন্য আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন পরামর্শ দিচ্ছে।

* শিশুর ক্যানসার চিকিৎসায় অগ্রগতি : যুক্তরাষ্ট্রে লিউকেমিয়া প্রতিবছর প্রায় ৩,১০০ শিশুকে আক্রমণ করে। বর্তমানে তাদের জন্য এ রোগের প্রতিকার আছে, যাদের কাছে পূর্বে কোনো অপশন ছিল না। নিউ ইয়র্ক সিটির মেমোরিয়াল স্লোয়ান কেটারিং ক্যানসার সেন্টারের মেডিক্যাল ডাক্তার কেভিন জে. কারেন এ যুগান্তকারী চিকিৎসা প্রবর্তন করেন। এ চিকিৎসা সিএআর টি-সেল থেরাপি নামে পরিচিত (কিমরিয়াহ নামেও পরিচিত) এবং এটি অ্যাকিউট লিম্ফোব্লাস্টিক লিউকেমিয়ায় (এএলএল) আক্রান্ত শিশু ও তরুণ প্রাপ্তবয়স্কদের চিকিৎসার জন্য সম্প্রতি ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কর্তৃক অনুমোদিত হয়। এটি ক্যানসার কোষকে আক্রমণ করার জন্য শরীরের ইমিউন সিস্টেমকে নির্দেশনাদানের মাধ্যমে কাজ করে। ডা. কারেনের ১৫ বছর বয়স্ক রোগী জ্যাক সোয়ার্টকে সিএআর টি-সেল থেরাপি প্রদান করা হয়, যে ১০ বছর ধরে অ্যাকিউট লিম্ফোব্লাস্টিক লিউকেমিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ করে আসছিল। চিকিৎসা শুরুর এক মাসের মধ্যে সে উপশম লাভ করে। জ্যাক শিগগির একটি বোন ম্যারো বা অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনের জন্য যথেষ্ট স্ট্রং হয়ে ওঠে, যা তার জীবন বাঁচাতে পারে। জ্যাক রিডার্স ডাইজেস্টকে বলে, ‘আমি প্রথমে সিএআর টি-সেল থেরাপির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে ভয় পেয়েছিলাম। কিন্তু আমার কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি। আমি খুব ভাগ্যবান ছিলাম আর এখন অনুভব করতে ভালো লাগে যে, আমি আর অসুস্থ হব না এবং ঘরে থাকব ও আমার বন্ধুদের দেখতে পারব।’

* অগ্ন্যাশয় ক্যানসার শণাক্তকরণ ও চিকিৎসায় আশাপ্রদ অগ্রগতি :  অগ্ন্যাশয় ক্যানসার শণাক্ত করা কঠিন এবং চিকিৎসা করা এতই কঠিন যে, ২০ শতাংশ রোগী এ রোগ নির্ণীত হওয়ার পর এক বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকেন এবং ১০ শতাংশেরও কম রোগী ৫ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকেন। কিন্তু সাম্প্রতিক আবিষ্কারসমূহ অগ্ন্যাশয় ক্যানসারের নতুন ও উন্নত শণাক্তকরণ ও চিকিৎসার প্রস্তাব দিচ্ছে। বিশেষত, এসটিএটি নিউজের প্রতিবেদন অনুসারে, ২০১৭ সালে অগ্ন্যাশয় ক্যানসারের চারটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার চিহ্নিত হয়েছে।

- সায়েন্সে প্রকাশিত প্রতিবেদন মতে, গবেষকরা অগ্ন্যাশয় ক্যানসারে অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া খুঁজে পেয়েছেন, যা প্রকৃতপক্ষে কেমোথেরাপি ওষুধকে অকার্যকর করে। এই বিষয়টি বোধগম্য হওয়াতে বিজ্ঞানীরা শরীরের মাইক্রোবায়োমকে বাধা দেওয়ার জন্য নতুন চিকিৎসা উদ্ভাবন করতে পারে।

- গবেষকরা ডায়াবেটিসের সূত্রপাত ও অগ্ন্যাশয় ক্যানসারের মধ্যে একটি সংযোগ খুঁজে পেয়েছেন, যা তাড়াতাড়ি অগ্ন্যাশয় ক্যানসার শণাক্ত করতে সহায়তা করতে পারে। স্পষ্টত কিছু লোকের অগ্ন্যাশয়ে অগ্ন্যাশয় ক্যানসার বিকাশের দ্বারা ডায়াবেটিস হয়ে থাকে। ডায়াবেটিসের মূল কারণ নির্ধারণ করতে আরো বেশি সেনসিটিভ টেস্ট খুব তাড়াতাড়ি অগ্ন্যাশয় ক্যানসার উদঘাটন করতে পারে।

- ডানা-ফারবার ক্যানসার ইনস্টিটিউটের গ্যাস্ট্রোইন্টেস্টাইনাল ক্যানসার সেন্টারের একদল বিজ্ঞানী আবিষ্কার করেছেন যে, ৯০ শতাংশ অগ্ন্যাশয় ক্যানসার রোগীর মধ্যে শুধুমাত্র জেনেটিক মিউটেশন নয়, নানারকম ফলাফল বা পরিণতি নিয়ে বিভিন্ন জেনেটিক ভেরিয়েশনও থাকে। এটি অগ্ন্যাশয় ক্যানসারের জন্য জিন-ভিত্তিক অভিনব চিকিৎসার দিকে পরিচালিত করতে পারে।

- ইমিউনোথেরাপি চিকিৎসা হিসেবে আশা দেখিয়েছে। একটি ছোট ও প্রথম পর্যায়ের গবেষণায় আবিষ্কার হয় যে, দুটি ইমিউনো থেরাপির সমন্বয় কিছু রোগীকে সাহায্য করতে পারে। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার জিআই অনকোলজি প্রোগ্রামের সহ-পরিচালক ডা. জেভ ওয়েনবার্গ বলেন, ‘এটি ইমিউনো থেরাপি ব্যবহারের জন্য আশার ক্ষীণ আলোক। এর আগে অগ্ন্যাশয় ক্যানসারের ক্ষেত্রে কোনো ইমিউনোথেরাপি কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারেনি।’

* অটিজম জিন শণাক্ত : ইউনিভার্সিটি অব সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার (ইউএসসি) বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি টিআরআইও নামে পরিচিত একটি একক জিনে অটিজম সম্পর্কিত মিউটেশনের জন্য একটি হটস্পট শণাক্ত করেছেন। এ আবিষ্কার জার্নাল নেচার কামিউনিকেশনসে প্রকাশিত হয়। এই গবেষণা সংশ্লিষ্ট লেখক এবং ইউএসসি’স ডানা অ্যান্ড ডেভিড ডর্নসাইফ কলেজ অব লেটারস, আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সের নিউরোবায়োলজিস্ট ব্রুস হেরিং বলেন, ‘আমি এরকম একটি ছোট এলাকায় অটিজম-সংক্রান্ত এত বেশি মিউটেশন আগে কখনো দেখিনি। আমরা খুব নিশ্চিত যে এসব মিউটেশন অটিজম-সংক্রান্ত রোগের বিকাশে অবদান রাখে।’ আশা করা হচ্ছে যে, এই বড় আবিষ্কারটি অটিজম স্পেকট্রাম রোগের চিকিৎসার জন্য অধিকতর কার্যকরী কৌশল ডেভেলপ করার চাবিকাঠি হবে।

* এইচআইভি- কিক অ্যান্ড কিল : বর্তমান এইচআইভি চিকিৎসাসমূহ এই ভাইরাসে আক্রান্ত লোকদের দীর্ঘদিন বাঁচতে ও সুস্থ জীবনযাপন করতে সহায়তা করে, কিন্তু এসব চিকিৎসা এখনও পর্যন্ত শরীরকে ভাইরাসমুক্ত করতে পারে না। সম্প্রতি ডেভিড গেফেন স্কুল অব মেডিসিন দ্বারা সম্পাদিত এক গবেষণায় এইচআইভি ভাইরাসের সুপ্ত রিজার্ভয়ার দূর করতে একটি নতুন চিকিৎসা ডেভেলপ করা হয়। চিকিৎসাটি শরীরে কোনো সুপ্ত ভাইরাসকে জাগিয়ে তোলার সঙ্গে জড়িত, যার ফলে এটি প্রতিলিপি শুরু করে এবং এটিকে ধ্বংস করা যায়। এ পদ্ধতি খারাপ লোকদের লুকানো জায়গা থেকে বের করে আনার মতো, কিন্তু বিজ্ঞানীরা চিকিৎসার এ পদ্ধতিকে ‘কিক অ্যান্ড কিল’ (চাঙ্গা করুন এবং হত্যা করুন) হিসেবে উল্লেখ করেছেন। বিজ্ঞানীরা এখনো পরীক্ষামূলক এ চিকিৎসার টক্সিন কমানোর উপায় অনুসন্ধান করছেন এবং এটির কার্যকারিতা মূল্যায়ন করার জন্য এটি মানব শরীরের আগে বড় প্রাণীদের মধ্যে পরীক্ষা করে দেখা হবে। এ বছরের প্রথমদিকে গবেষকদের ভিন্ন একটি দল একটি বিস্ময়কর আবিষ্কার (গরুর ইমিউন সিস্টেমে এইচআইভি ভ্যাকসিনের ক্লু পাওয়া গেছে) করেছেন, যা এইচআইভি ভ্যাকসিন তৈরিতে সাহায্য করতে পারে।

* অর্গান ঘাটতির সমাধান : একটি যুগান্তকারী নতুন পদ্ধতি হচ্ছে, নিরাপদভাবে হিমায়িত অর্গান বা অঙ্গ পুনরুজ্জীবিত করা, যা সংকটপূর্ণ অর্গান ঘাটতিকে চিহ্নিত করে অর্গান ডোনেশন সহজলভ্য করে লাখ লাখ মানুষকে বাঁচানোর প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটার একটি গবেষক দল খুব নিম্ন তাপমাত্রায় সংরক্ষিত বড় আকারের প্রাণীর হৃদপিণ্ডের ভাল্ব এবং রক্তনালীকে সফলভাবে পুনরায় উষ্ণ বা প্রাণবন্ত করার প্রক্রিয়া আবিষ্কার করেছেন। ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটার তথ্যানুসারে, টিস্যু ও অর্গান ব্যাংক সংস্থাপনের মাধ্যমে প্রতিস্থাপনের জন্য অর্গান ও টিস্যুর সহজলভ্যতা বৃদ্ধি করে লাখ লাখ মানুষের জীবন বাঁচাতে এটি একটি বড় পদক্ষেপ।

* মাথা প্রতিস্থাপন : এটি পাগলাটে মনে হতে পারে, কিন্তু ইতালিয়ান নিউরোসার্জন সার্জিও ক্যানাভারো দাবি করছেন যে, তিনি প্রথমবারের মতো মানব মাথা অন্য মানব শরীরে প্রতিস্থাপনের দ্বারপ্রান্তে আছেন। স্পাইনাল মাস্কিউলার অ্যাট্রপিতে ভোগা ৩১ বছর বয়স্ক একজন রাশিয়ান লোক স্বেচ্ছায় এ সার্জারি গ্রহণ করতে মত প্রকাশ করেছেন। এই ঝুঁকিপূর্ণ প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা পাওয়ার জন্য অন্য সার্জনদের রাজি করানোর আশায় ডা. ক্যানাভারো এ ব্যাপারে আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব নিউরোলজিক্যাল অ্যান্ড অর্থোপেডিক সার্জনকে জানিয়েছেন। সিএনএস নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড থেরাপিউটিকসে প্রকাশিত গবেষণা অনুসারে, ডা. ক্যানাভারো এবং চীনের ডাক্তারদের একটি দল ১৫টি ইঁদুরের স্পাইনাল কর্ড বিচ্ছিন্ন করেন এবং তাদের ৯টির মধ্যে স্পাইনাল কর্ড পুনঃসংযোজনের চেষ্টা করেছেন। এই এক্সপেরিমেন্টের পর একটি ছাড়া বাকি সব ইঁদুর বিস্ময়করভাবে ৩০ দিন বাঁচে। ডা. ক্যানাভারো রাশিয়ান লোকটির সার্জারি সম্পন্ন করতে যথেষ্ট সমর্থন আদায় করতে পেরেছেন কিনা তা এখনো অজানা।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৪ ডিসেম্বর ২০১৭/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton