ঢাকা, রবিবার, ২ পৌষ ১৪২৫, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

শর্ট টাইম মেমোরি লস রোধ করে যেসব খাবার

আহমেদ শরীফ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৪ ৮:০২:৩১ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-০৪ ১১:২২:২২ এএম

আহমেদ শরীফ : বলিউড সুপারস্টার আমির খানের ‘গজনী’ দেখেছেন নিশ্চয়ই। ছবিতে আমির খান আগের স্মৃতি ভুলে যান। এ কারণে তাকে সবকিছু লিখে রাখতে হয়। তার মতো এতোটা না হলেও প্রাত্যহিক জীবনে আমরা প্রায় সবাই হঠাৎ করেই অনেক জরুরি ফোন নম্বর, কারো নাম বা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ভুলে যাই। এটা কারো কারো ক্ষেত্রে খুব পীড়াদায়ক।

এটা ঠিক যে, আমাদের মস্তিষ্ক অগণিত স্মৃতি, তথ্য  ধারণ করতে পারে। প্রতিনিয়ত মস্তিষ্কে ঘটে চলে জটিল সব কাজ। শরীরে হরমোনের ভারসাম্য রক্ষা, শ্বাস প্রশ্বাস, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণসহ সব কাজই করে মস্তিষ্ক। আমরা ঘুমিয়ে থাকলেও মস্তিষ্ক কাজ করে। শরীরের মোট ওজনের ২ শতাংশ এবং প্রতিদিন মোট ক্যালরির ২০ শতাংশ শুষে নেয় মস্তিষ্ক। তবে সব ধরনের কাজ তাকেই করতে হয় বলে মস্তিষ্ক খুব সেনসেটিভ। তাই মাঝে মাঝেই লাইফস্টাইল পাল্টে গেলে মস্তিষ্ক প্রতারণা করে। এই পরিস্থিতিতে মস্তিষ্ক যাতে স্বাভাবিক কাজ করতে পারে, সে জন্য কিছু উপকারী খাবার খেতে হবে।

মাছ: স্যামন, সার্ডিন, টুনাসহ যেসব মাছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড থাকে সেগুলো খাওয়া উচিত। মস্তিষ্কের গঠন ঠিক রাখা ও কোষের বন্ধন সুন্দর করতে এই ফ্যাটি এসিড সহায়তা করে। স্যামন মাছের পুষ্টিগুণ মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়িয়ে দেয় এমন প্রমাণ পাওয়া গেছে। আমাদের রুই, কাতল, ইলিশ মাছেও প্রায় একই ধরনের পুষ্টিগুণ আছে।

খাদ্যশস্য: গম, কর্ন, চাল, ওট এসব খাদ্যশস্য শরীরের জন্য যেমন উপকারী, তেমনি মস্তিষ্কের জন্যও। এগুলোতে প্রচুর কোলাইন থাকে। এই উপাদান আপনার মনোযোগ বাড়িয়ে দিয়ে দ্রুত ভুলে যাওয়ার সমস্যা কমাবে।

ব্রকোলি: ব্রকোলি ডায়াবেটিসসহ অনেক রোগ প্রতিকারে উপকারী। সেই সাথে মস্তিষ্কের জন্যেও এটি কার্যকর। কারণ এতে স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর জন্য সহায়ক ভিটামিন-কে ও ফোলিক এসিড থাকে। যদি সব কিছু ভুলে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দেয় আপনার তাহলে খাদ্য তালিকায় এখনই এই সবজি যুক্ত করুন।

ডার্ক চকোলেট: মুড পাল্টে দেয়ার জন্য কার্যকর কোকোয়া থাকায় ডার্ক চকোলেট আপনার শরীর ও মনের জন্য বেশ উপকারী। এটি মস্তিষ্কে রক্ত সরবরাহ বাড়িয়ে দেয়, এতে স্মৃতিশক্তি অক্ষুন্ন থাকে।

কফি: যারা লং টার্ম বা শর্ট টার্ম মেমোরি লসে ভুগছেন তাদের জন্য কফি ‘উদ্ধারকারী’র ভূমিকা রাখতে পারে। এক গবেষণায় দেখা গেছে দিনে ২ কাপ কফি পান করলে ২৪ ঘণ্টার জন্য ভুলে যাওয়া রোগ থেকে মুক্ত থাকা যায়। কারণ কফিতে থাকা ক্যাফেইনে নরপাইনফ্রিন নামক এক ধরনের হরমোন প্রচুর পরিমাণে থাকে, যা স্মৃতি ধরে রাখতে সাহায্য করে।

ডিম: ডিমের সাদা অংশে কোলাইন নামক উপাদান থাকে প্রচুর। এটি শরীরের সব কোষ সতেজ, কর্মক্ষম রাখে। এতে মস্তিষ্ক সব সময় সতেজ থাকে, ফলে কোনো কিছু সহজে ভুলবেন না আপনি।

টমেটো: প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে টমেটোতে। যা কোষ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া থেকে রক্ষা করে। তাই টমেটো খেলে শুধু হঠাৎ ভুলে যাওয়া রোগ যেমন কমবে, তেমনি সব কিছু ভুলে যাওয়ার রোগ ডিমেনশিয়া থেকেও রেহাই পেতে পারেন আপনি।

এছাড়া স্ট্রবেরি, আমাদের দেশী ফল জাম, তুলসীপাতা ভুলে যাওয়া রোধে খুব কার্যকর।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৪ জানুয়ারি ২০১৮/তারা

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC