ঢাকা, বুধবার, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

পিচার ফিল্টার ক্ষতিকর হতে পারে

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-২০ ১১:৪৭:১২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-২০ ১১:৪৭:১২ এএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : প্রবাদ আছে, স্লো অ্যান্ড স্টিডি উইনস দ্য রেস (ধীরস্থিররাই জিতে)। কিন্তু ওয়াটার ফিল্টার পিচারের ক্ষেত্রে? এক্ষেত্রেও এ প্রবাদটি সঠিক। দ্য ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটির সাম্প্রতিক এক গবেষণা অনুসারে, যেসব ওয়াটার ফিল্টার খুব দ্রুত কাজ করে তা ক্ষতিকর টক্সিন বা বিষাক্ত পদার্থ নির্গত করতে পারে, যা খাবার পানির মাধ্যমে আপনার শরীরে প্রবেশ করতে পারে।

ওয়াটার ফিল্টার পিচার মূলত একটি জার, যার সঙ্গে ফিল্টার রয়েছে। পিচার আকারে ছোট এবং দামে সস্তা। এর একেকটি জারে ৬ থেকে ১২ কাপ পানি ধরে।

‘ওয়াটার সায়েন্স টেকনোলজি: ওয়াটার সাপ্লাই’ জার্নালে প্রকাশিত গবেষণায় বলা হয়েছে, পিচার ওয়াটার ফিল্টার ট্যাপের পানি থেকে ক্ষতিকর মাইক্রোসিস্টিন দূর করতে পারে কিনা তা নির্ণয় করতে বিজ্ঞানীরা তিনটি জনপ্রিয় পিচার ব্র্যান্ড নিয়ে গবেষণা করেন। মাইক্রোসিস্টিন হচ্ছে, শেওলার একটি কমন গ্রুপ যা লেকের পানিতে পাওয়া যায়। মাইক্রোসিস্টিন সমৃদ্ধ দূষিত পানি পান মানুষের অসুস্থতা বা মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

গবেষণায় বলা হয়েছে, খাবার পানি দূষিত করার কারণে টক্সিক সায়ানোব্যাক্টেরিয়াল ব্লুম স্বাস্থ্যের জন্য বৈশ্বিক হুমকি। মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের অবশ্যই পানি থেকে এসব দূর করার ক্ষমতা থাকতে হবে। সম্প্রতি ট্যাপের পানিতে এসব শনাক্ত করার মতো কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। এ কথাটি মনে রেখে বিজ্ঞানীরা ইরি হ্রদ থেকে মাইক্রোসিস্টিন নিয়ে ট্যাপের পানিতে মিশান এবং তারপর বাজারে পাওয়া যাচ্ছে এমন তিনটি ভিন্ন ব্র্যান্ডের পিচার ফিল্টারে এই ট্যাপের পানি নেওয়া হয়। আবিষ্কার হয় যে, যে পিচার (এতে অ্যাক্টিভেটেড কার্বনের ব্লেন্ড আছে) পানি ফিল্টার করতে সবচেয়ে বেশি সময় নিয়েছে তা কার্যকরভাবে মাইক্রোসিস্টিন হ্রাস করেছে, যা শনাক্তকরণ মাত্রার নিচে ছিল। যে পিচার (এতে কোকোনাট-বেইজড অ্যাক্টিভেটেড কার্বন আছে) সবচেয়ে দ্রুত পানি ফিল্টার করেছে তা ৫০ শতাংশ বা এর কম মাইক্রোসিস্টিন দূর করেছে।

এ গবেষণার প্রধান লেখক এবং ওহাইও স্টেট’স স্টোন ল্যাবরেটরির গবেষণা সমন্বয়কারী জাস্টিন চ্যাফিন ধারণা করেন যে, পানির সঙ্গে কার্বনের কন্টাক্ট বা সংস্পর্শের কারণে মূলত এমনটা হচ্ছে। গবেষণায় কন্টাক্ট টাইমের রেঞ্জ ছিল প্রতি লিটার দুই মিনিট (সবচেয়ে বাজে পারফরমিং পিচার), প্রতি লিটার ছয় মিনিট (সবচেয়ে ভালো পারফরমিং পিচার) এবং প্রতি লিটার প্রায় চার মিনিট (মোটামুটি পারফরমিং পিচার)।

কোন কোন ব্র্যান্ডের পিচার ফিল্টার নিয়ে গবেষণা করা হয়েছে, তা গবেষকরা বলেননি। পিচার কেনার সিদ্ধান্ত নিলে ছাঁকার গতি ও ফিল্টারে কোন কার্বন ব্যবহার করা হয়েছে তা বিবেচনা করতে পারেন। এছাড়া ডা. চ্যাফিন ইঙ্গিত দেন যে, ওয়াটার ফিল্টার পিচার যত সস্তা হবে তার মাইক্রোসিস্টিন ফিল্টার করার ক্ষমতা তত কম হবে। যদিও গবেষণায় কিছু ওয়াটার পিচার কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে। গবেষকরা যেকোনো দূষিত পানির উৎস থেকে পানি না নিতে সতর্ক করেন।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট





রাইজিংবিডি/ঢাকা/২০ জুন ২০১৮/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC