ঢাকা, সোমবার, ৩ পৌষ ১৪২৫, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

অন্তিম মুহূর্তের গোলে কপাল পুড়ল মিসরের

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-১৫ ৬:০৩:১৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-২৩ ১:৫৬:০৯ পিএম

ক্রীড়া ডেস্ক: মিসরকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু করল উরুগুয়ে।  জয় পেলেও উরুগুয়েকে গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ৯০ মিনিট পর্যন্ত।  অন্তিম মুহূর্তের গোলে কপাল পুড়ল মিসরের। 

রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা ৬টায় মাঠে নেমেছিল উরুগুয়ে ও মিসর। ম্যাচের আগেই ধাক্কা হজম করে মিসর। দলের সেরা খেলোয়াড় মোহাম্মদ সালাহকে ছাড়াই মাঠে নামে তারা। 

প্রথমার্ধে দারুণ লড়াই করলেও দ্বিতীয়ার্ধে ভালো করতে পারেনি মিসর। একাধিক আক্রমণের পর শেষ মুহূর্তে গোলের স্বাদ পায় দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে। হোসে জিমিনেজের হেডে গোলের দেখা পায় উরুগুয়ে। কার্লোস সানচেজের নেওয়া ফ্রি কিক থেকে লাফিয়ে হেড দিয়ে বল মিসরের জালে পাঠান জিমিনেজ। তাতেই জয় নিশ্চিত হয়ে যায় উরুগুয়ের।

৯০ মিনিটে গোল!  একাধিক সুযোগ তৈরির পর গোলের দেখা পেল উরুগুয়ে। সেটাও বদলি এক মিড ফিল্ডারের অ্যাসিস্টে। নাহিতান নান্দেসের পরিবর্তে ম্যাচের ৫৯ মিনিটে মাঠে নামেন কার্লোস সানচেজ। মাঠে নেমেই উরুগুয়ের চেহারা পাল্টে দেন সানচেস। ম্যাচের ৯০ মিনিটে দারুণ এক ফ্রি কিক নেন তিনি। নিখুঁত কিকে হেড দিয়ে বল জালে পাঠান অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের স্টার হোসে জিমিনেজ। মিসর কি পারবে গোল শোধ দিতে?

প্রথমার্ধে গোল পায়নি কোনো দল: দুই দলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে এখনও গোল পায়নি কোনো দল।  উরুগুয়ে ফেবারিট হলেও বলার মতো কোনো আক্রমণ এখন পর্যন্ত করেনি। অন্যদিকে মিসর সুযোগ সৃ্ষ্টি করলেও সেগুলো কাজে লাগাতে পারেনি। দুই দলের ফরোয়ার্ডরাই গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেছেন। 

২৮ বছর পর বিশ্বকাপে মিসর: মিসর সর্বশেষ বিশ্বকাপ খেলেছিল ১৯৯০ সালে। তাদের প্রথম বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা হয়েছিল ১৯৩৪ সালে।  দুইবারই প্রথম রাউন্ডে বাদ পড়েছিল মিসর।

সালাহকে ছাড়া নামছে মিসর: কাঁধের ইনজুরি থেকে সদ্যই ফেরা সালাহকে মূল একাদশে নামানোর ঝুঁকি নেননি মিসরের কোচ হেক্টর কুপার। প্রথম একাদশে দেখা যাবে না লিভারপুলের এ স্টারকে। সাইড বেঞ্চ থেকে বিশ্বকাপ শুরু হবে সালাহর। হয়তো দ্বিতীয়ার্ধ থেকেই মাঠে নামবেন ২৬ বছর বয়সি এ ফুটবলার।
 


একটেরিনবার্গ অ্যারেনা: ৩৫ হাজার ৬৯৬ জন দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়াম একটেরিনবার্গ অ্যারেনায় দুই দলের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ২০০৬ সালে স্টেডিয়ামটির সংস্কারের কাজ শুরু হয় এবং সংস্কার কাজ শেষ হয় ২০১১ সালে। এরপর বিশ্বকাপ উপলেক্ষে ২০১৪ সালে পুনরায় স্টেডিয়ামটির সংস্কার কাজ শুরু হয় এবং তা শেষ হয় ২০১৭ সালে।

প্রতিশোধ নিতে পারবে মিসর:  র‌্যাঙ্কিংয়ে উরুগুয়ে ১৪ নম্বরে, মিসর ৪৫ নম্বরে। দুই দল একটি ম্যাচে এর আগে মুখোমুখি হয়েছিল যেখানে ২-০ গোলে জিতেছিল উরুগুয়ে। আজ প্রতিশোধ নিতে পারবে কি মিসর?

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ জুন ২০১৮/ইয়াসিন

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC