ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

শীর্ষ ১০ মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৩-১৮ ৩:১৫:৫৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৩-১৮ ৪:০৮:২৭ পিএম
মডেল: সামুদ্রি (ছবি: অপূর্ব খন্দকার)

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর কোম্পানি একটি সেলুলার কোম্পানি, ওয়্যারলেস সার্ভিস প্রভাইডার, মোবাইল নেটওয়ার্ক কেরিয়ার এবং ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন সার্ভিস প্রভাইডার হিসেবেও পরিচিত।

৫ কোটির বেশি গ্রাহক নিয়ে আমাদের দেশে সবচেয়ে বড় মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর কোম্পানি নরওয়ের টেলিনরের মালিকানধীন গ্রামীণফোন, এটা আমরা সকলেই জানি। কিন্তু বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল নেটওয়ার্ক কোম্পানি কোনটি, তা হয়তো অনেকেরই অজানা। এ প্রতিবেদনে জেনে নিন, সবচেয়ে বেশি গ্রাহক রয়েছে বিশ্বের এমন শীর্ষ ১০ কোম্পানি।

চায়না মোবাইল
৮৫১.২ মিলিয়ন গ্রাহক শক্তি নিয়ে চায়না মোবাইল বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর। ১৯৯৭ সালে চায়না টেলিকমের অন্তুভূর্ক্ত হয়ে এটি যাত্রা শুরু করলেও, ১৯৯৯ সালে একক কোম্পানি হিসেবে চায়না মোবাইল প্রতিষ্ঠিত হয়। চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে এর প্রধান কার্যালয় অবস্থিত এবং চীনের মোবাইল খাতে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য বিস্তার করেছে।

চায়না মোবাইল সরাসরি সরকারি তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এবং রাষ্ট্র মালিকানাধীন একটি উদ্যোগ। এটি হংকং স্টক এক্সচেঞ্জ এবং একটি পাবলিক কোম্পানি হিসেবে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ তালিকাভুক্ত।

চীনের মোবাইল সেবা বাজারে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন চায়না মোবাইল ৭০ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে সংখ্যগরিষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে। অবশিষ্ট ৩০ শতাংশ মার্কেট শেয়ার রয়েছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন আরো ২টি মোবাইল অপারেটরের। যার মধ্যে চায়না ইউনিকম-এর দখলে রয়েছে ২০ শতাংশ মার্কেট শেয়ার এবং চায়না টেলিকম-এর দখলে রয়েছে ১০ শতাংশ মার্কেট শেয়ার।

২০০৭ সালে চায়না মোবাইল পাকিস্তানের মোবাইল অপারেটর পাকটেল লিমিটেড কিনে নেয় এবং পাকিস্তানে জোং ব্র্যান্ড (চায়না মোবাইল পাকিস্তান) নামে মোবাইল অপারেটর হিসেবে যাত্রা শুরু করেছে।

ভোডাফোন
ব্রিটিশ মাল্টিন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি ভোডাফনের প্রধান কার্যালয়ে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অবস্থিত। এটি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তর মোবাইল অপারেটর কোম্পনি, যার গ্রাহক সংখ্যা ৪৬৯.৭ মিলিয়ন। ১৯৯১ সালে ভোডাফোন প্রতিষ্ঠিত হয় প্রধাণত ওশেনিয়া, আফ্রিকা, ইউরোপ এবং এশিয়া অঞ্চলে মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবা প্রদানের জন্য। বর্তমানে বিশ্বের ২৬টি দেশে ভোডাফোনের মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবহৃত হচ্ছে এবং আরো ৫০টির বেশি দেশে ভোডাফোনের অংশীদার কোম্পানি রয়েছে।

ভোডাফোন তাদের গ্লোবাল এন্টারপ্রাইজ ডিভিশনের মাধ্যমে বিশ্বের ১৫০টি দেশে কর্পোরেট গ্রাহকদের আইটি এবং টেলিকম সেবা প্রদান করে থাকে। ‘ফিন্যান্সিয়াল টাইমস স্টক এক্সচেঞ্জ ১০০ ইনডেস্ক’ অনুযায়ী ভোডাফোন লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাভুক্ত। এছাড়া আমেরিকান নাসডাক স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত। রাজস্ব আয়ের দিক দিয়ে মোবাইল অপারেটর হিসেবে বিশ্বের পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে ভোডাফোন।

এয়ারটেল
৩৪৮.১ মিলিয়ন সংখ্যক গ্রাহক নিয়ে ভারতীয় টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি এয়ারটেল, বিশ্বে তৃতীয় বৃহত্তম মোবাইল অপারেটর এবং ভারতে শীর্ষ অপারেটর। সুনীল ভারতী মিত্তাল দ্বারা ভারতী এয়ারলেট লিমিটেড ১৯৯৫ সালের ৫ জুলাই প্রতিষ্ঠিত হয় এবং এর সদরদপ্তর নতুন দিল্লিতে অবস্থিত।

এয়ারটেল বিভিন্ন দেশের ওপর ভিত্তি করে বিভিন্ন মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবা দিয়ে থাকে যেমন ফোরজি এলটিই, জিএসএম, ফিক্সড লাইন ব্রডব্যান্ড এবং থ্রিজি। আফ্রিকা এবং দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ১৮টি দেশে এয়ারটেলের নেটওয়ার্ক পরিচালিত হচ্ছে। এয়ারটেলকে আইটি এবং ইক্যুইপমেন্ট রক্ষণাবেক্ষণ সেবা প্রদান করছে আইবিএম, সলিউ্যশন সেবা দিচ্ছে নকিয়া এবং এয়ারটেলের নেটওয়ার্ক সেবায় যৌথ অবদান রাখছে এরিকসন।

গ্রাহক সংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০ মোবাইল অপারেটর কোম্পানি

১. চায়না মোবাইল (গ্রাহক সংখ্যা ৮৫১.২ মিলিয়ন)
২. ভোডাফোন (গ্রাহক সংখ্যা ৪৬৯.৭ মিলিয়ন)
৩. এয়ারটেল (গ্রাহক সংখ্যা ৩৪৮.১ মিলিয়ন)
৪. আমেরিকা মোবিল (গ্রাহক সংখ্যা ২৮০.৬ মিলিয়ন)
৫. টেলিফোনিকা (গ্রাহক সংখ্যা ২৭৬.৫ মিলিয়ন)
৬. চায়না ইউনিকম (গ্রাহক সংখ্যা ২৬৫.১ মিলিয়ন)
৭. এমটিএন গ্রুপ (গ্রাহক সংখ্যা ২৩৪.৭ মিলিয়ন)
৮. চায়না টেলিকম (গ্রাহক সংখ্যা ২১৬.৮ মিলিয়ন)
৯. টেলিনর (গ্রাহক সংখ্যা ২১৪.০ মিলিয়ন)
১০. ভিম্পেলকম (গ্রাহক সংখ্যা ২০৫.৫ মিলিয়ন)

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৮ মার্চ ২০১৭/ফিরোজ

Walton
 
   
Marcel