ঢাকা, শনিবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

বিশ্বের শত শত বৈদ্যুতিক গ্রিড হ্যাকারদের দখলে!

মোখলেছুর রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৯-০৭ ২:১১:০৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৯-০৭ ৪:৫৪:৩০ পিএম

মোখলেছুর রহমান : সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, গত ছয় বছরে একটি সাইবার আক্রমণকারী দল অনেকটা চুপিসারেই বিশ্বের শত শত বৈদ্যুতিক গ্রিড কন্ট্রোল সিস্টেমে ছড়িয়ে পড়েছে। অর্থাৎ গত ছয় বছরে  সারা বিশ্বের শত শত বৈদ্যুতিক গ্রিড হ্যাকারদের আক্রমণের শিকার হয়েছে।

সিমেনটেক নামের একটি সিকিউরিটি কোম্পানি সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখতে পেয়েছেন যে, আমেরিকা, তুরস্ক এবং সুইজারল্যান্ডের শত শত বিদ্যুৎ গ্রিড সাইটগুলো ব্যাপকভাবে ড্রাগনফ্লাই ২.০ নামের এক হ্যাকিং এর শিকার হয়েছে।

সিমানটেকের গবেষকরা বলেন যে, এই হ্যাকিংয়ের সূত্রপাত ঘটে ২০১১ সালের শুরুর দিকে যখন হ্যাকাররা জ্বালানি শিল্পে কাজ করে এমন লোকদের লক্ষ্য করে ভাইরাস সম্বলিত ইমেইল পাঠায়। মাঝখানে ২০১৪ সালে একটি বিরতি দিয়ে হ্যাকাররা ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে নতুন বছরের পার্টির আমন্ত্রণ পত্র দেয়ার নাম করে হ্যাকিংয়ের উদ্দেশ্যে আবার এ ধরনের ভাইরাস সম্বলিত ইমেইল পাঠায়।

গবেষকরা সতর্ক করে দিয়ে বলেন, হ্যাকারদের কাছে বর্তমানে বিশ্বের শত শত পাওয়ার গ্রিড সাইটে প্রবেশ করার যাবতীয় তথ্য এবং প্রবেশাধীকার রয়েছে। যার ফলে তারা যেকোনো সময় এসমস্ত পাওয়ার গ্রিড ব্ল্যাকআউট করে দেয়ার ক্ষমতা রাখেন।

স্পর্শকাতর এসব অবকাঠামোর ওপর হামলার ফলে হ্যাকারদের এসব অবকাঠামোতে যেকোনো সময় যেকোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার ক্ষমতা রয়েছে যা দেশগুলোকে একটি বড় হুমকির মুখে দাঁড় করিয়েছে। হ্যাকাররা যেকোনো সময় পুরো পাওয়ার গ্রিড ব্ল্যাকআউট করে দিতে পারে বা ট্রাফিক সংকেতগুলোকে অচল করে দিতে পারে। এই সিস্টেমগুলো বর্তমানে অনেক ঝুঁকিতে রয়েছে কারণ এতে অনেক প্রাচীন সফটওয়্যার রয়েছে এবং এর অবকাঠামো আপগ্রেড করার খরচও নেহাত কম নয়।

বিশ্বের মানুষ অবশ্য ইতিমধ্যেই এ ধরনের পাওয়ার গ্রিডে হ্যাকারদের আক্রমণের সাক্ষী হয়েছেন এবং দেখেছেন পাওয়ার গ্রিডে সাইবার আক্রমণ কতটা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। কারণ গত ডিসেম্বরে ইউক্রেনের পাওয়ার গ্রিডে রাশিয়ান একদল হ্যাকারের আক্রমণের পর মারাত্বক বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটে এবং এর ফলে দেশটির রাজধানী কিয়েভে এক ঘণ্টারও বেশি সময় বিদ্যুৎ ছিল না। ২০১৬ সালে অবশ্য মার্কিন কংগ্রেস পাওয়ার গ্রিড এর সিকিউরিটির মান উন্নীত করে সাইবার হামলা থেকে গুরুত্বপূর্ণ মার্কিন অবকাঠামো রক্ষা করার জন্য একটি বিল চালু করে।

সিমানটেকের একজন কারিগরি পরিচালক এরিচ চিয়েন বলেন, ‘আমরা বলছি না যে, আগামীকালই এ সমস্ত দেশ হ্যাকারদের আক্রমণের কারণে অন্ধকারে নিমজ্জিত হবে। কিন্তু  ড্রাগফ্লাই ২.০ হ্যাকিং দ্বারা টেকনিক্যালি এটি সম্ভব। আমরা প্রমাণ পেয়েছি যে, হ্যাকাররা বৈদ্যুতিক মেশিনগুলোর বিবরণ এবং অবস্থানসহ একাধিক বৈদ্যুতিক সংস্থার নথিগুলোর স্ক্রিনশট নিয়ে রেখেছে যাতে স্পষ্টত লক্ষনীয় যে অনেক মেশিনে তাদের দূরবর্তী অবস্থান থেকেও প্রবেশাধীকার রয়েছে। সুতরাং ওই সমস্ত দেশগুলোর এখনই প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

তথ্যসূত্র: সিনেট

 

 

 


রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭/ফিরোজ

Walton Laptop