ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

পরীক্ষামূলকভাবে চালু হল উবার লাইট

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-১২ ৪:৫২:২৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-১২ ৪:৫২:২৭ পিএম
প্রতীকী ছবি

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : উবার, বিশ্বের সর্ববৃহৎ রাইডশেয়ারিং কোম্পানি আজ থেকে ‘উবার লাইট’ অ্যাপ চালু করেছে। অ্যাপটি প্রচলিত উবার অ্যাপের তুলনায় অনেক হালকা।

নয়া দিল্লিতে উবারের রাইডার এক্সপেরিয়েন্স বিভাগের হেড পিটার ডেং এবং প্রোডাক্ট, ম্যাপস ও মার্কেটপ্লেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট মানিক গুপ্তা-এর উপস্থিতিতে উবার টেক ডে ২.০ তে অ্যাপটির উদ্বোধন করা হয়।

অ্যাপটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যেন তা ধীর গতির ইন্টারনেটে ব্যবহার করা সহ যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ব্যবহার করা যায়। অ্যাপটি খুবই কম ডাটা ব্যবহার করে ফলে ধীর গতির ইন্টারনেটেও নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে অ্যাপটি চালানো সম্ভব। বর্তমানে অ্যাপটি পরীক্ষামূলক ভাবে শুধুমাত্র ভারতে চালু হয়েছে এবং শিগগির অন্যান্য দেশেও চালু হবে।

মানিক গুপ্তা, ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রোডাক্ট, ম্যাপস এবং মার্কেটপ্লেস, উবার, বলেন, ‘প্রতি মাসে সাড়ে সাত কোটি গ্রাহক আমাদের সার্ভিস গ্রহণ করে। এটি পৃথিবীর সর্বমোট জনসংখ্যার খুবই সামান্য একটি অংশ। আমেরিকার বাইরে অবস্থান করা এই বিশাল গ্রাহকদের জন্য আমরা কিছু করতে চেয়েছি কারণ সংখ্যাটি প্রতিনিয়ত বাড়ছে। ভারতে আমরা এর জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। উবার লাইট চালু করতে পাড়া এক্ষেত্রে আমাদের একটি বড় সাফল্য।’

পিটার ডেং, উবারের হেড অব রাইডার এক্সপেরিয়েন্স বলেন, ‘বর্তমানে বিশ্বের ৭৭টি দেশের ৬০০ শহরে বিভিন্ন ধরনের নেটওয়ার্ক, ডিভাইস এবং রাইডারদের চাহিদা অনুযায়ী অ্যাপসটি কাজ করতে সক্ষম নয়। ইতোপূর্বে উবার রাইডারদের ওপর পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, আমরা উবার অ্যাপটির হালকা ভার্সন তৈরি করতে পারিনি। ভারত এবং বিশ্বের প্রধান বাজারগুলোর জন্য আমাদের উবার অভিজ্ঞতা পুর্ননির্ধারণ করা দরকার ছিল। এগুলোর ফলই হলো ‘উবার লাইট’। অ্যাপটি এমনভাবে নকশা করা হয়েছে যাতে যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড ফোনে কম ডাটা ব্যবহার করে সহজে এবং দ্রুত রাইড বুক করা যায়।

অ্যাপটির মূল বৈশিষ্ট্যসমূহ
* ফোনের জন্য খুবই হালকা : নতুন উবার লাইটের সাইজ ৫এমবি’র চেয়েও কম। অ্যাপটিকে এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যেন এটি খুব দ্রুত পরিচালনা করা যায়। এটির রেসপন্স টাইম মাত্র ৩০০ মিলি সেকেন্ড।

* গাইডেড পিক-আপ : উবার লাইট অ্যাপটি নিজ থেকেই ব্যবহারকারীর অবস্থান শনাক্ত করতে পারবে। আর যদি অ্যাপটি সঠিক স্থান নির্ধারণ করতে না পারে, তাহলে কাছাকাছি কোনো পরিচিত পিক-আপ পয়েন্টের ব্যাপারে ব্যবহারকারীকে জানিয়ে দেবে।

* ট্যাপ ওভার টাইপ : উবার লাইট ব্যবহারকারীর গন্তব্য বাছাইকরণকে শুধু একটি বাটন ট্যাপের মতোই সহজ করে দিতে পারে। শহরের জনপ্রিয় জায়গাগুলো সংরক্ষণ থাকায়, ইন্টারনেটের সঙ্গে সংযুক্ত না থাকলেও সেগুলো দেখা যাবে। যত বেশি ব্যবহার করা হবে, উবার লাইট অ্যাপটি ততই বুদ্ধিমান হয়ে উঠবে। ফলে ব্যবহারকারীর সর্বাধিক ভ্রমণের জায়গাগুলো সবার আগে স্ক্রিনে ভেসে উঠবে।

* প্রয়োজন অনুযায়ী ম্যাপ ব্যবহার : অ্যাপটি যাতে হালকা থাকার সঙ্গে সঙ্গে উচ্চ কার্যক্ষমতা বজায় রাখতে পারে, সেজন্য ব্যবহারকারী তার প্রয়োজন অনুসারে ম্যাপসের ব্যবহার করতে পারবেন।

উবার লাইটে মূল অ্যাপের সকল কার্যক্ষমতা বিদ্যমান। অ্যাপটিতে আছে সাপোর্ট ব্যবস্থা জরুরি নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা ফিচার। নিরাপত্তা ফিচার হিসেবে আছে ইমারজেন্সি বাটন এবং পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে ট্রিপ শেয়ারিংয়ের সুযোগ।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জুন ২০১৮/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton