ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ আষাঢ় ১৪২৫, ২১ জুন ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘শ্রমিকের কল্যাণ ও নিরাপত্তার পদক্ষেপে সন্তুষ্ট ইইউ’

আসাদ আল মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৩-২৮ ৬:৫৮:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৪-০১ ৮:৩৩:১০ এএম

সচিবালয় প্রতিবেদক : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ জানিয়েছেন, তৈরি পোশাক কারখানায় নিয়োজিত শ্রমিকদের কল্যাণে গৃহীত পদক্ষেপ এবং নিরাপত্তায় সন্তোষ প্রকাশ করেছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) পার্লামেন্টের প্রতিনিধিদল।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে ইইউ পার্লামেন্টের চার সদস্যসহ আট জনের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ইইউর সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। এভরিথিংস বাট আর্মস (ইবিএ)-এর আওতায় বাংলাদেশ ইইউয়ের কাছ থেকে জিএসপি সুবিধা পাচ্ছে। বাণিজ্য সুবিধা প্রদানের জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতি বাংলাদেশ কৃতজ্ঞ। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক কারখানায় নিয়োজিত শ্রমিকদের কল্যাণে গৃহীত পদক্ষেপ এবং নিরাপত্তায় সন্তোষ প্রকাশ করেছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের পার্লামেন্টের মেম্বারগণ।

মন্ত্রী বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর বাংলাদেশ সরকার এবং তৈরি পোশাক শিল্পের মালিকদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় গৃহীত পদক্ষেপের কারণে বাংলাদেশে আর কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। শ্রমিকদের সাথে মালিকদের সম্পর্ক খুবই ভালো। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের দেওয়া পরামর্শ মোতাবেক বাংলাদেশ সরকার প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ফলে পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। বাংলাদেশে এখন কর্মবান্ধব ও নিরাপদ গ্রিন ফ্যাক্টরি গড়ে উঠছে। কারখানা কমপ্লায়েন্স করতে মালিকদের বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করতে হচ্ছে। তবে ক্রেতারা পোশাকের দাম বাড়াচ্ছে না। পোশাকের দাম বাড়ানো একান্ত প্রয়োজন।

তিনি আরো বলেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশের বড় ব্যবসায়িক অংশীদার। বাংলাদেশ গত বছর ৩৪ দশমিক ২৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানি করেছে। এর ৫৪ ভাগ অর্থাৎ ১৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে রপ্তানি করেছে। ইউরোর অবমূল্যায়ন না হলে এ রপ্তারি পরিমান দাঁড়াতো ২০ বিলিয়িন মার্কিন ডলার। বাংলাদেশে দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়নে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

সফররত ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতিনিধিদলের প্রধান আর্নে লিয়েজ বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাত দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ইবিএ-এর আওতায় বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। ইইউ চায় শ্রম আইন মোতাবেক বাংলাদেশের শ্রমিকরা অধিকার ভোগ করুক। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সন্তোষজনকভাবে কাজ করেছে। শ্রমিকদের অদিকার রক্ষায় কাজ অব্যাহত রাখতে হবে, আরো বেশি কাজ করার সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন সন্তোষজনক।

এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব শুভাশীষ বসু, প্রতিনিধিদলের সদস্য ইইউ পার্লামেন্টের ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারপারসন লিনডা ম্যাক ভান, এস অ্যান্ড ডি ডেভেলপমেন্ট কো-অডিনেটর নরবার্ট নিউসার, এস অ্যান্ড ডি এনআইটিএ এগনেস জনজিরিয়াস এবং ঢাকাস্থ ইইউ অ্যাম্বাসেডর পিয়েরে মায়াদুন উপস্থিত ছিলেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৮ মার্চ ২০১৭/আসাদ/হাসান/রফিক

Walton Laptop
 
   
Walton AC