ঢাকা, শনিবার, ১ পৌষ ১৪২৫, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

৩৩১ করে ব্যাটিং প্রস্তুতি সারলেন হোপ-চেজরা

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-০৬ ২:২৯:৩১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-০৬ ৪:২৬:২৪ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিকেএসপি থেকে : টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের স্পিনে মুখ থুবড়ে পড়েছে তাদের ব্যাটিং। হোয়াইটওয়াশ হওয়ার ক্ষত এখনো দগদগে। তবে ওয়ানডে সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়ে রাখল ক্যারিবীয়রা। বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে। বিকেএসপিতে আজ ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ৩৩১ রানের বড় স্কোর গড়েছে সফরকারীরা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ফিফটি পেয়েছেন দুজন। পঞ্চাশের কাছাকাছি রান করেছেন আরো দুইজন। ইনিংসটাকে তিন ভাগে ভাগ করা যেতে পারে। প্রথম ১৫ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে একশ রান তুলে ফেলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পরের ২৫ ওভারে দাপট দেখিয়েছেন বোলাররা। এই সময়ে তারা তুলে নিয়েছেন ৬ উইকেট। শেষ দশ ওভার ছিল আবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের। এই দশ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৯৯ রান তুলেছে সফরকারীরা। 
  


কাগজে-কলমে ম্যাচের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা হলেও সকালে টস করতে নেমেছিলেন রুবেল হোসেন। টস ভাগ্য অবশ্য পাশে পাননি তিনি। বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে টস জিতে ব্যাটিং নেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েল।টেস্টের ব্যর্থতা পেছনে ফেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ভালো সূচনা এনে দেন কাইরন পাওয়েল ও শাই হোপ।

শুরুতে দুজন দেখেশুনে খেলেছেন রুবেল ও মাশরাফিকে। ধীরে ধীরে হয়ে উঠেছেন আক্রমণাত্মক। প্রথম সাত ওভারে ২৫ রান দেওয়া বোলাররা পরের চার ওভারে দেন ৪০ রান। মাশরাফি প্রথম স্পেলে চার ওভার বোলিং করে দেন ২০ রান।

১৬তম ওভারে প্রথমবার আক্রমণে এসেই ব্রেক থ্রু এনে দেন নাজমুল ইসলাম অপু। বাঁহাতি স্পিনারকে উড়াতে গিয়ে ইমরুল কায়েসকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন পাওয়েল। ভাঙে ১০১ রানের উদ্বোধনী জুটি। টেস্ট সিরিজে চার ইনিংসে ১৪ পার করতে না পারা পাওয়েলের ব্যাট থেকে আসে ৪৩ রান।
 


টেস্ট সিরিজে রান পাননি হোপও। ওয়ানডের আগে প্রস্তুতিতে ফিফটি তুলে নিয়ে রানে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। দুই বছর পর ওয়ানডে দলে ফেরা ড্যারেন ব্রাভোর ব্যাটিংয়েও ছিল আত্মবিশ্বাসের প্রতিচ্ছবি। এই দুজনের ব্যাটে ২৬ ওভারেই দেড়শ পার করে ফেলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

এরপরই দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় বিসিবি একাদশ। তরুণ বাঁহাতি পেসার মেহেদী হাসান রানার বলে উইকেটকিপারকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ব্রাভো (২৭)। অপুকে ডাউন দ্য উইকেটে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পড হোপ। ৮৪ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৮১ রান করেন তিনি। মারলন স্যামুয়েলসকে ডানা মেলতে দেননি মাশরাফি। দ্বিতীয় স্পেলে ফিরে প্রথম ওভারেই স্যামুয়েলসকে (৫) রানার ক্যাচ বানান ডানহাতি পেসার।

জেসন হোল্ডারের অনুপস্থিতিতে অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া রোভম্যান পাঁচ বল খেলেও রানের খাতা খুলতে পারেননি। ভারত সফরে ওয়ানডে সিরিজে রান পাননি তিনি। বাংলাদেশে এসে কাঁধে উঠেছে অধিনায়কের বাড়তি দায়িত্ব। ওয়ানডের আগে প্রস্তুতিতে রান না পাওয়া রোভম্যানের ওপর নিশ্চিতভাবেই চাপ বাড়বে।

একটা সময় ১ উইকেটে ১৫৯ থেকে দ্রতই ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর হয়ে যায় ৫ উইকেটে ১৭৬! টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের বোলারদের ভোগানো শিমরন হেটমায়ার এরপর টেনেছেন দলকে। তাকে সঙ্গ দিয়েছেন রোস্টন চেজ। দুজনের ব্যাটে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেরিয়েছে দলীয় দুইশ।

হেটমায়ার যখন ঝড় তোলার অপেক্ষায়, তখনই তাকে ফিরিয়েছেন রুবেল। ডানহাতি পেসারের শর্ট বল পুল করতে গিয়ে ডিপ স্কয়ার লেগে সৌম্য সরকারের হাতে ধরা পড়েন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ২৭ বলে ২টি করে চার ও ছক্কায় হেটমায়ারের রান ৩৩।
 


২১৫ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর যে তিনশ ছাড়িয়েছে তার কৃতিত্ব চেজের। তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন ফ্যাবিয়ান অ্যালেন। সপ্তম উইকেট জুটিতে মাত্র ৪২ বলে ৭৮ রান যোগ করেন এই দুজন।

টেস্ট সিরিজটা ভালো কাটেনি চেজেরও। তবুও ওয়ানডে দলে ফিরেছেন এক বছর পর। ওয়ানডের আগে প্রস্তুতিতে ফিফটি করে ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। অ্যালেন ফিফটি পাননি ২ রানের জন্য। রুবেলের বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে ৩২ বলে ৮ চার ও এক ছক্কায় ৪৮ রান করেন তিনি। চেজ শেষ পর্যন্ত ৫১ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় ৬৫ রানে অপরাজিত ছিলেন।

২টি করে উইকেট নিয়েছেন রুবেল, রানা ও অপু। রুবেল ১০ ওভারে ৫৫, রানা ১০ ওভারে ৬৫ ও অপু ১০ ওভারে দিয়েছেন ৬১ রান। মাশরাফি ৮ ওভারে ৩৭ রানে ও শামীম ২ ওভারে ১৬ রানে নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

 

 

রাইজিংবিডি/সাভার/৬ ডিসেম্বর ২০১৮/পরাগ

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC