ঢাকা, সোমবার, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৮ জুন ২০১৮
Risingbd
ঈদ মোরারক
সর্বশেষ:

ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনে আতিকুরের মোটরসাইকেলের স্বপ্ন পূরণ

জাকির হুসাইন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৬ ৪:৫৯:০১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-০৬ ৭:২৩:৫৫ পিএম
ওয়ালটনের লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারে কেনা মোটরসাইকেল বসে হাস্যেজ্জ্বল আতিকুর রহমান। দীর্ঘদিনের স্বপ্নপূরণের আনন্দ তার চোখে-মুখে

নিজস্ব প্রতিবেদক : পোশাককর্মী মো. আতিকুর রহমান। কাজ করেন আশুলিয়ার একটি সোয়েটার কারখানায়। যানজটের কারণে বাসে চড়ে কর্মস্থলে যেতে প্রায়ই দেরি হয়। রাস্তায় বাসের মধ্যে আটকে থেকে প্রায়ই ভাবেন, ইস, যদি একটি মোটরসাইকেল হতো, তাহলে এত ভোগান্তি পোহাতে হতো না। কিন্তু ঘরে যার অতি প্রয়োজনীয় একটা ফ্রিজ পর্যন্ত নেই। তিনি কীভাবে কিনবেন মোটরসাইকেলের মতো দামি পণ্য?

আতিকুর রহমানের স্ত্রীও চাকরি করেন। দুজন কর্মজীবী হওয়ায় প্রতিদিন তিনবেলা রান্না করা কষ্টকর। অন্তত একটা ফ্রিজ না হলে চলছিলই না। তার স্ত্রী প্রায়ই ফ্রিজ কেনার তাগাদা দেন। তাই নিজের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন মোটরসাইকেলের চিন্তা বাদ দিয়ে ফ্রিজ কেনার জন্য টাকা জমাতে থাকেন আতিকুর রহমান। কিছু টাকা জমলে একদিন দুজনে গিয়ে কিনেও ফেলেন অতি প্রয়োজনীয় ফ্রিজটি। এতেই সন্তুষ্ট ছিলেন তারা। কিন্তু তাদের জন্য অপেক্ষা করছিল আরো বড় চমক। ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে তারা পেয়ে যান লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। সেই টাকায় পূরণ হয়েছে আতিকুর রহমানের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন। কিনেছেন ওয়ালটনের সুদৃশ্য একটি মোটরসাইকেল। যা তাদের অফিসে যাতায়াতের ভোগান্তি থেকে পরিত্রাণ দিয়েছে।

আতিকুর রহমানের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে। তবে কর্মসূত্রে দীর্ঘদিন ধরে ঢাকায় থাকেন। বিয়ে করেছেন কয়েক বছর আগে। বাবা-মা, ভাই-বোন সবাই গ্রামের বাড়িতে থাকেন। তিনি স্ত্রী ও একমাত্র সন্তানকে নিয়ে আশুলিয়ার বাগানবাড়ি এলাকায় ভাড়া থাকেন।

আতিকুর রহমান বলেন, ‘দুজনেই চাকরি করি, কিন্তু বেতন কম। তবে এখন একটু বেড়েছে। তাই তো প্রয়োজনীয় কিছু পণ্য কেনা শুরু করেছি। প্রয়োজনের তালিকায় সবার ওপরে ছিল ফ্রিজ। একে তো ছোট সংসার। তার ওপর দুজনেই কাজে ব্যস্ত থাকি। তাই ফ্রিজ না হলে একেবারে চলছিল না। এ কারণে প্রয়োজনীয় পণ্যের তালিকায় প্রথমে ছিল ফ্রিজ।’

তিনি আরো বলেন, ‘ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনব, তা আগে থেকেই ঠিক করা ছিল। কারণ, ওয়ালটন শুধু আমাদের দেশীয় ব্র্যান্ডই নয়, এটা আমার নিজ জেলার কৃতি সন্তানদের কষ্টে গড়ে তোলা কোম্পানি। যা এখন দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও সুনাম কুড়াচ্ছে। সর্বত্রই ওয়ালটনের জয়গান। এমনকি বর্তমানে ফ্রিজ বলতে ওয়ালটনকেই বোঝায়।’


আতিকুর রহমানের হাতে ওয়ালটনের লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার ও মোটরসাইকেল তুলে দেওয়া হয়


তিনি বলেন, ‘টাকার জোগাড় হয়ে গেছে। সবকিছু চূড়ান্ত। এখন শুধু কেনার পালা। কিন্তু দুজনে একসাথে ছুটি পাচ্ছিলাম না। অবশেষে ফ্রিজ কেনার জন্য বিজয় দিবসকে বেছে নিলাম। ছুটির দিন হওয়ায় ১৬ ডিসেম্বর স্ত্রীকে নিয়ে আশুলিয়ার বাইপাইল ওয়ালটনের শোরুম মিতালি ইলেক্টনিক্সে যাই। অনেক যাচাই-বাছাই করে ২১ হাজার ৯০০ টাকা দিয়ে সাড়ে ১৩ সিএফটির একটি ফ্রিজ কিনি।’

আতিকুর জানান, ওয়ালটন পণ্য কিনলে উপহার পাওয়া যাবে, এমন অফারের কথা আগে থেকে তার জানা ছিল না। নিজেদের প্রয়োজনেই ফ্রিজ কিনতে যান। কেনার সময় শোরুমের কর্মকর্তারাই অফারের কথা জানান। এর পর নিয়ম অনুযায়ী মোবাইল নাম্বার দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করেন। কয়েক মিনিটের মধ্যে তার মোবাইলে একটি এসএমএস যায়। যাতে লেখা ছিল তিনি ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেয়েছেন।

আতিকুর রহমান বলেন, ‘আমার কী ভাগ্য দেখেন! উপহারের আশায় নয়, শুধু প্রয়োজনে ফ্রিজ কিনেছি। এমনকি এই অফার সম্পর্কে জানাও ছিল না। তার পরেও ১ লাখ টাকার পুরস্কার পেয়েছি। এর চেয়ে আনন্দের সংবাদ আর হতে পারে না। ওয়ালটনের এই পুরস্কার আমার জীবনের সব চেয়ে বড় উপহার। আমার সকল আত্মীয়-স্বজন দারুণ খুশি। তবে বেশি খুশি আমার স্ত্রী। কারণ, তার অনুরোধে ফ্রিজটি কেনা হয়েছে।’

ক্যাশ ভাউচারের টাকা দিয়ে কী কী কিনেছেন তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘লাখ টাকার এ পুরস্কার দিয়ে আমার অনেক দিনের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আমি ওয়ালটনের একটি মোটরসাইকেল কিনেছি। আমরা দুজনেই যানজটের হাত থেকে মুক্তি পেয়েছি। এখন আর বসের বকা খেতে হয় না। অফিসেও লেট হয় না। ধন্যবাদ ওয়ালটন কোম্পানিকে।’

উল্লেখ্য, ক্রেতাদের দোরগোড়ায় অনলাইনে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম চালু করেছে ওয়ালটন। এই কার্যক্রমে ক্রেতাদের অংশগ্রহণকে উদ্বুদ্ধ করতে প্রতিদিন দেওয়া হচ্ছে নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। ওয়ালটন প্লাজা এবং পরিবেশক শোরুম থেকে ১০ হাজার টাকা বা তার বেশি মূল্যের পণ্য কিনে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন করে সর্বনিম্ন ২০০ থেকে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পাচ্ছেন ক্রেতারা। ক্যাশ ভাউচার পাওয়ার এই সুযোগ থাকবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ জানুয়ারি ২০১৮/অগাস্টিন সুজন/রফিক

Walton Laptop
 
   
Walton AC