ঢাকা, বুধবার, ৫ পৌষ ১৪২৫, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

ওয়ালটন ফ্যান কিনে নতুন গাড়ি পেলেন ব্যবসায়ী মশিউর

অগাস্টিন সুজন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৩ ৪:৩৭:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-১১ ৭:৫৭:০৫ পিএম
ওয়ালটন করপোরেট অফিসে মশিউর রহমানের কাছে নতুন গাড়ির চাবি তুলে দিচ্ছেন প্রতিষ্ঠানের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এবং সেলস বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রিজওয়ানা

অগাস্টিন সুজন :  ফ্যান কিনে নতুন গাড়ি! ব্যাপারটা অবিশ্বাস্য মনে হতে পারে। কিন্তু ঘটনাটি সত্য প্রমাণ করলেন ঢাকার ব্যবসায়ী মশিউর রহমান। ওয়ালটনের সিলিং ফ্যান কিনে তিনি পেয়েছেন নতুন গাড়ি। ওয়ালটন ফ্যানের ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে গাড়ি পেয়ে খুবই খুশি মশিউর।

ভাগ্যবান এই ক্রেতা জানান, গত ৩১ আগস্ট রাজধানীর কাজিপাড়া ওয়ালটন প্লাজা থেকে ৪টি সিলিং ফ্যান কেনেন তিনি। যার প্রতিটির দাম ২৬৫০ টাকা। এরপর নিজের মোবাইল নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করলে ৪টি ফ্যানের একটিতে মিলে যায় নতুন গাড়ি। বাকি তিনটি ফ্যানেও পেয়েছেন নগদ মূল্যফেরত।

উল্লেখ্য, ‘লাগলো এবার কাড়াকাড়ি, ফ্যান কিনলে নতুন গাড়ি’ স্লোগানে গত ১ জুলাই শুরু হয় ওয়ালটন ফ্যানের ডিজিটাল ক্যাম্পেইন। এর আওতায় ওয়ালটনের যেকোনো ফ্যান কিনে রেজিস্ট্রেশন করে ক্রেতারা পাচ্ছেন নতুন গাড়ি। রয়েছে মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভিসহ অসংখ্য পণ্য পাওয়ার সুযোগ। এসব না পেলেও আছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাকের সুযোগ। বিক্রয়োত্তর সেবা কার্যক্রম অনলাইনের আওতায় আনতে ওয়ালটনের এই উদ্যোগ।



সোমবার (৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮) ওয়ালটন করপোরেট অফিসে এক অনুষ্ঠানে মশিউর রহমানের কাছে নতুন গাড়ি হস্তান্তর করা হয়। তার হাতে গাড়ির চাবি তুলে দেন ওয়ালটনের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এবং সেলস বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রিজওয়ানা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এমদাদুল হক সরকার, হুমায়ূন কবির, মো. রায়হান এবং অপারেটিভ ডিরেক্টর সাখাওয়াৎ হোসেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ফার্স্ট সিনিয়র অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর ফিরোজ আলম।

গাড়ি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে মশিউর রহমান জানান, ঢাকার কাজিপাড়ার স্থায়ী বাসিন্দা তিনি। বাবা-মা, ৩ ভাই, ১ বোন, স্ত্রী এবং ৬ বছর বয়সী এক মেয়ে নিয়ে তার পরিবার। কম্পিউটার পার্টস রিসাইক্লিংয়ের ব্যবসা আছে তার। দীর্ঘদিন ধরে টিভি, ফ্রিজ, এসিসহ দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্য ব্যবহার করছেন। এসব পণ্যের দারুণ সার্ভিসে সন্তুষ্ট বলে পরিবারের জন্য একসাথে ৪টি ফ্যান কেনেন তিনি। আর সেই ফ্যানেই পেয়েছেন নতুন গাড়ি।

মশিউর রহমান বলেন, ফ্যানের মতো স্বল্পমূল্যের পণ্যে নতুন গাড়ি দেয়ার কথা কখনো শুনি নাই। তাছাড়া এ রকম অনেকেই গাড়ির অফার দিলেও শেষ পর্যন্ত তা প্রকৃত ক্রেতা পায় না বলেই জানতাম। কিন্তু ওয়ালটন এখানে ব্যতিক্রম। তারা স্বচ্ছভাবেই ক্যাম্পেইন পরিচালনা করছেন। তিনি আরো বলেন, সাশ্রয়ী মূল্যে নজরকাড়া ডিজাইনের ওয়ালটন ফ্যান কিনেই খুশি ছিলাম। কিন্তু যখন ওয়ালটন থেকে গাড়ি পাওয়ার মেসেজ পাই, তখন আমাদের এ খুশি হাজারগুণ বেড়ে যায়। যে কোনো পুরস্কারই আনন্দের। আর ফ্যান কিনে গাড়ি পাওয়ার আনন্দের কোনো তুলনা হতে পারে না। আমরা মহাখুশি।



কর্তৃপক্ষ জানায়, ওয়ালটনের রয়েছে বিভিন্ন মডেল, কালার ও ডিজাইনের ফ্যান। দেশে তৈরি উন্নতমানের এসব ফ্যান দামে সাশ্রয়ী। যার ফলে ক্রেতাদের কাছে ওয়ালটন ফ্যানের কদর বাড়ছে। ওয়ালটনের সিলিং, ওয়াল, টেবিল কিংবা প্যাডেস্টাল মিলিয়ে ৫৪ মডেলের ফ্যান বা ইলেকট্রিক পাখা রয়েছে বাজারে।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, ফ্যান কিনে নতুন গাড়ি ও অন্যান্য পণ্যসহ ক্যাশব্যাক পাওয়ার এই সুযোগ থাকবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮/মিলটন আহমেদ/সাইফ

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC