ঢাকা, শনিবার, ২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইতালির ওপর ক্ষেপেছে ফ্রান্স, রাষ্ট্রদূতকে তলব

সাইফুল আহমেদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-২২ ১২:৩০:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-২২ ১:১৮:১০ পিএম
ইতালির ওপর ক্ষেপেছে ফ্রান্স, রাষ্ট্রদূতকে তলব
Walton E-plaza

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইতালির রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠিয়েছে ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আফ্রিকা মহাদেশে ফ্রান্স শোষণ চালাচ্ছে এবং এর মধ্য দিয়ে অভিবাসন উস্কে দিচ্ছে, ইতালি উপপ্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে তাদের রাষ্ট্রদূতকে এই তলব।

রোববার ইতালির উপপ্রধানমন্ত্রী লুইজি ডি মাইও ফ্রান্সের ‘আফ্রিকা নীতি’র জন্য দেশটির ওপর অবরোধ আরোপ করতে বলেন ইউরোপীয় ইউনিয়নকে (ইইউ)।

তিনি বলেন, ‘ফ্রান্স কখনো আফ্রিকার দেশগুলোকে উপনিবেশ বানানো বন্ধ করেনি।’

এর আগেও অভিবাসন নিয়ে ফ্রান্স ও ইতালির মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা গেছে। আফ্রিকা থেকে ইউরোপে অবৈধভাবে প্রবেশ করতে শত শত আফ্রিকান অভিবাসীপ্রত্যাশী ইতালিকে ব্যবহার করছে।

গত বছর আফ্রিকার অভিবাসীপ্রত্যাশীদের জাহাজ ভিড়তে না দেওয়ায় ইতালির সমালোচনা করে ফ্রান্স। অন্যদিকে, ফ্রান্সের বিরুদ্ধে অভিবাসীপ্রত্যাশী গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানানোর অভিযোগ আগে ইতালি।

সম্প্রতি জাতিসংঘ জানায়, তাদের আশঙ্কা ১৭০ জন অভিবাসীপ্রত্যাশী নিয়ে দুটি জাহাজ ভূমধ্যসাগরে ডুবে গেছে। রোববার ইতালির কেন্দ্রে সফরের সময় উপপ্রধানমন্ত্রী লুইজি ডি মাইও এ বিষয়ে ফ্রান্সকে দায়ী করে বলেন, ‘ইইউর উচিত ফ্রান্স ও ফ্রান্সের মতো অন্যান্য দেশ যারা আফ্রিকাকে নিঃস্ব করে সেখানকার লোকজনকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করছে তাদের ওপর অবরোধ আরোপ করা। কারণ আফ্রিকানদের আফ্রিকায় থাকা উচিত, ভূমধ্যসাগরের তলায় নয়।’

তিনি বলেন, ‘আজ লোকজন যদি আফ্রিকা ছাড়ছে। এর জন্য ইউরোপীয় দেশগুলো দায়ী, সবার উপরে ফ্রান্স। তারা ডজন ডজন আফ্রিকার দেশকে উপনিবেশে পরিণত করা কখনো বন্ধ করেনি।’

লুইজি ডি মাইও জানান, আফ্রিকা না থাকলে ফ্রান্স বিশ্ব অর্থনীতিতে ছয়ে নয়, সেরা পনেরতেও জায়গা পেত না।

ইতালির উপপ্রধানমন্ত্রীর এমন তীক্ষ্ণ বক্তব্যের পর বেশ খেপেছে ফ্রান্স। তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সোমবার সে দেশে নিযুক্ত ইতালির রাষ্ট্রদূত তেরেসা কাসতালদোকে ডেকে পাঠিয়েছে।

ফ্রান্সের কূটনীতিক সূত্র ইতালির সংবাদ সংস্থা আনসাকে জানিয়েছে, ইউরোপীয় ইউনিয়নে ফ্রান্স ও ইতালির যে সম্পর্ক রয়েছে তার প্রেক্ষিতে ডি মাইওর বক্তব্য ‘শত্রুভাবাপন্ন’ ও ‘অযৌক্তিক’।

তথ্য : বিবিসি

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২২ জানুয়ারি ২০১৯/সাইফুল

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge