ঢাকা, শনিবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

লাখ টাকার স্বপ্ন পূরণ হলো রাজমিস্ত্রীর

জনি সোম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১৮ ৮:২৭:৩২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-০৪ ৬:৩৫:১৮ পিএম
মাহাবুব আলমের হাতে এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার তুলে দিচ্ছেন ওয়ালটনের ফার্স্ট সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর তারেকুল হক, সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মো. মিরাজুল হক, লাবিব মার্কেটিং কোম্পানির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ

জনি সোম : ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ফোর-এ ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেয়েছেন চট্টগ্রামের মাহাবুব আলম।

মাহাবুব আলমের বাড়ি পটিয়ার চরকানাই গ্রামে। পেশায় রাজমিস্ত্রী। তিন বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে সবার বড় তিনি। বড় হওয়াতে দায়িত্বটাও বেশি। ছোট দুই বোনের বিয়েতে কিছু দিতে না পারার কষ্ট দীর্ঘদিন তার মনে ছিল। সব সময়ই এই কষ্ট লাঘব করার চেষ্টা করতেন তিনি।

আর তাই কষ্টের টাকায় সাশ্রয়ী দামে বাজারের সেরা ফ্রিজ কিনতে মাহাবুব আলম চলে যান ওয়ালটন শোরুমে। সেই ফ্রিজ কিনেই পেয়েছেন এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। ওই টাকায় দুই বোনকে দুটি ফ্রিজ দিয়েছেন। পূরণ হয়েছে তার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন।

চট্টগ্রামের কালুরঘাটে ওয়ালটনের এক্সক্লুসিভ শোরুম লাবিব মার্কেটিং কোম্পানির স্বত্ত্বাধিকারী আলহাজ্ব শাখাওয়াত হোসেন জানান, তার অধীনস্থ সাব-ডিলার পাচুরিয়ার মা ইলেকট্রনিক্স থেকে গত ১১ মার্চ একটি ফ্রিজ কেনেন মাহাবুব আলম। মাত্র সাড়ে ২২ হাজার টাকায় কেনা ওই ফ্রিজেই ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ফোর-এ এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পান তিনি।  গত রোববার (১৭ মার্চ) লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারে কেনা পণ্য তার হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের ফার্স্ট সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর তারেকুল হক, সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মো. মিরাজুল হক, লাবিব মার্কেটিং কোম্পানির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাখাওয়াত হোসেন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ অসংখ্য ক্রেতা-দর্শনার্থী।

ভাগ্যবান ক্রেতা মাহাবুব আলম বলেন, ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে এক লাখ টাকা পাওয়াটা স্বপ্নের মতো লাগছে। এই প্রথম জীবনে এত বড় পুরস্কার পেলাম। খুবই ভালো লাগছে। আমার পুরো পরিবারই মহাখুশি।

এক লাখ টাকা দিয়ে মাহাবুব আরো ২টি ফ্রিজ, ১টি ওয়াশিং মেশিন, রাইস কুকারসহ বেশকিছু গৃহস্থালি পণ্য নিয়েছেন। এর মধ্যে দুই বোনকে ১টি করে ফ্রিজ উপহার দিয়েছেন।

মাহাবুব আলমকে নিয়ে পিক-আপে করে ব্যান্ড পার্টিযোগে আনন্দ মিছিল

মাহাবুব আলম আরো বলেন, দুই বোনের বিয়ের সময় কিছু দিতে পারি নাই। এজন্য মনে কষ্ট ছিল। ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে বোনদেরও ফ্রিজ দিতে পেরে মনের আশা পূরণ হয়েছে।

তার মতে, ওয়ালটনের পণ্য বিশ্বসেরা। নিজে ওয়ালটন পণ্য ব্যবহারের পাশাপাশি পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশীদেরও উৎসাহিত করেন তিনি। গুণগত মানসম্পন্ন পণ্য দেওয়ার পাশাপাশি ত্রেতাদের জন্য এমন অফার রাখায় ওয়ালটন কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

ওয়ালটন সূত্রে জানা গেছে, নতুন বছর এবং ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা উপলক্ষে গত ৯ জানুয়ারি থেকে সারা দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এবার চলছে এই আয়োজনের ৪র্থ পর্ব বা সিজন ফোর। এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। আছে মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ওভেনসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এসব না মিললেও রয়েছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাক। এ সুবিধা থাকবে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত।

বিক্রয়োত্তর সেবা আরো সহজতর করতে গ্রাহকদের অনলাইন ডাটাবেজ তৈরির জন্য ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে ওয়ালটন। গত বছর ১ এপ্রিল থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত চালানো ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১ এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে আমেরিকা ও রাশিয়া ভ্রমণের ফ্রি বিমান টিকিট পেয়েছিলেন বেশ কয়েকজন ক্রেতা। সিজন-২ ও ৩ এ হাজার হাজার ক্রেতা ফ্রি পেয়েছেন নতুন গাড়ি, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ বিভিন্ন ওয়ালটন পণ্য।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৮ মার্চ ২০১৯/অগাস্টিন সুজন/সাইফ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন