ঢাকা, রবিবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

কথা বলে আজির উদ্দিনের লাঠি

আব্দুল্লাহ আল নোমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-০১ ১০:৫৩:৩৭ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-০১ ৩:২৬:২৫ পিএম
কথা বলে আজির উদ্দিনের লাঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট: এখনো লাঠি খেলে বেড়ান সিলেটের দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজারের মো. আজির উদ্দিন। ঐতিহ্যের লাঠি খেলা দেখিয়ে মানুষকে মুগ্ধ করেন।

ষাটোর্ধ্ব বয়সেও নিজেকে তরুণ মনে করেন আজির উদ্দিন। লাঠি খেলাই তার সাধনা। কথা বলে আজির উদ্দিনের লাঠি। যেখানেই ডাক পড়ে সেখানেই তার দল নিয়ে ছুটে যান। দলে নতুন সদস্য জোটান, তাদেরও খেলার কলাকৌশল শেখান।

হযরত শাহজালাল (রহ.)-এর ওরস উপলক্ষে ‘লাকড়ী তোড়া’উৎসব চলছিল রোববার। এ আয়োজনে দেখা হয় আজির উদ্দিন ও তার লাঠিয়াল দলের সাথে। মাজারের প্রধান ফটকের এক পাশে দলবল নিয়ে লাঠি খেলা দেখাচ্ছিলেন তিনি। নানা বয়সী মানুষ তাদের লাঠিখেলা দেখতে সেখানে ভিড় জমান। বাদ্যের তালেতালে নাচ দিয়ে শুরু; এরপর লাঠি নিয়ে একে অপরকে আক্রমণসহ নানা কসরত দেখিয়ে দর্শকদের বাহবাও আদায় করে নেন তারা।

 

খেলার ফাঁকে কথা হয় আজির উদ্দিনের সাথে। জানালেন, তার বয়স যখন বিশ বছর তখন থেকেই তিনি লাঠিখেলা চালিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমানে তার বয়স ষাটের উপরে। তবে লাঠিখেলার কারণে এখনও তিনি নিজেকে তরুণ বলে মনে করেন।

তিনি বললেন, তাদের লাঠিখেলার দলের বর্তমান সদস্য ৩২। এদের মধ্যে বেশিরভাগই কমবয়সী বর্তমান প্রজন্মের ছেলে। দরগাহে তাদের দলের ২০জন সদস্য এসেছেন। তারা সকলেই খুব ভালো লাঠি খেলা দেখাতে পারেন।

আজির উদ্দিনের সাথে লাঠিয়াল দলের আর তিনজন প্রধান রয়েছেন। এ তিনজন হচ্ছেন- ফজলু মিয়া ফলন, সিরাজুল ইসলাম এবং নুর উদ্দিন। মূলত তারা চারজনই এ লাঠিয়াল দলটি এখনও ধরে রেখেছেন। পাশাপাশি বিভিন্নস্থানে উৎসব-পার্বণেও ছুটে যান লাঠি খেলা দেখাতে।

 

তাদের ভাষ্য, লাঠিখেলা বাংলার ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির ধারক। গ্রামীণ এ খেলাটি যাতে কালের বিবর্তনে হারিয়ে না যায় সেজন্য তারা এ দল নিয়ে বিভিন্নস্থানে ঘুরে বেড়ান এবং খেলা দেখান। এতে বিনোদনের পাশাপাশি শারীরিক স্বাস্থ্যও ভালো থাকে বলে জানান। একই সাথে এ খেলাকে টিকিয়ে রাখতে প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতার দাবিও জানান তারা।

উৎসব-পার্বণ ছাড়া লাঠিখেলা খুব কমই দেখা যায় সিলেটে। তবে, আজির উদ্দিনদের এমন উদ্যোগ ঐতিহ্যের এই খেলাটিতে বিলুপ্ত হওয়ার হাত থেকে অনেকাংশে রক্ষা করবে বলে মনে করেন দর্শকরা। তাদের দাবি, এসব ঐতিহ্যের খেলা রক্ষায় সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরকেও উদ্যোগী হতে হবে।

 

রাইজিংবিডি/সিলেট/ ১ জুলাই ২০১৯/ আব্দুল্লাহ আল নোমান/টিপু

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন