ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কোটি টাকার মালিক হাসপাতালের ল্যাব সহকারী

বেলাল রিজভী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৭ ৩:৩৬:৪৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৭ ৯:২১:৪৯ পিএম

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের ল্যাব সহকারী মিন্টু সরদার। অবৈধভাবে তিনি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

ইতিমধ‌্যে এ অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে দুদক। সম্প্রতি দুদক থেকে পরবর্তী কার্যক্রমের অংশ হিসেবে মিন্টু সরদারকে তার সম্পদ বিবরণী দাখিলের জন্য বলা হয়েছে।

ফরিদপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয় এ বিষয়ে তদন্ত করে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পায়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর সদর হাসপাতালের ল্যাব সহকারী হিসেবে মিন্টু সরদার প্রায় ২২ বছর ধরে চাকরি করছেন। তৃতীয় শ্রেণির চাকরি করেও দুর্নীতি করে কোটি টাকা আয় করেছেন।

জানা গেছে, চাকরির সুবাদে তিনি মালিক হয়েছেন তিনটি মাইক্রোবাস, দুইটি অ‌্যাম্বুলেন্স, একটি প্রাইভেট কারের। আছে মোটরসাইকেলের একটি শোরুম। জেলার কালকিনিতে ৪০ শতাংশ জমির ওপর দোতালা একটি বাড়ি করেছেন। একটি প্লট কিনেছেন ৫০ লাখ টাকায়। এ ছাড়া মাদারীপুর শহরের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকেও তার শেয়ার রয়েছে।

মিন্টু সরদারের বিরুদ্ধে আদালতে দুর্নীতির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। এরপর আদালত মামলাটি দুর্নীতি দমন কমিশনে পাঠান। মামলা দায়েরের পর মিন্টু সরদারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্ত করা হলেও  প্রভাব খাটিয়ে মিন্টু হাসপাতালে কাজ করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যপারে মাদারীপুরের সিভিল সার্জন ডা. সফিকুল ইসলাম জানান, অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে ল্যাব সহকারী মিন্টু সরদারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। কাজে নয় হাজিরা দিতে সে হাসপাতালে আসে, হাসপাতালে তার কাজ করার কোনো সুযোগ নাই।

অভিযোগের ব্যাপারে মিন্টু সরদার বলেন, ‘আমার প্রতিপক্ষ উদ্দ‌্যেশ‌্যমূলকভাবে আমাকে হয়রানি করার জন্য অভিযোগ দিয়েছে।’


মাদারীপুর/বেলাল/ইভা

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : মাদারীপুর, ঢাকা বিভাগ