ঢাকা, শুক্রবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

কোষ্ঠকাঠিন্যের বিস্ময়কর কিছু কারণ

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-১৯ ১১:৪১:২৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-২৯ ৯:২৩:০৫ পিএম
কোষ্ঠকাঠিন্যের বিস্ময়কর কিছু কারণ
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : হঠাৎ কোষ্ঠকাঠিন্যে সমস্যায় ভুগছেন? এর পেছনে কিছু বিস্ময়কর কারণ থাকতে পারে, যেমন- লাইফস্টাইল ফ্যাক্টর, ওষুধ ও অসুস্থতা। কোষ্ঠকাঠিন্যের ১১টি বিস্ময়কর কারণ নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের আজ প্রথম পর্বে ৬টি কারণ আলোচনা করা হলো।

* অত্যধিক বসে থাকা
আমাদের আধুনিক নিষ্ক্রিয় জীবনযাপন শুধু কোমর নয়, অন্যান্য অনেক কিছুর জন্য খারাপ, বলেন অরেঞ্জ কোস্ট মেমোরিয়াল মেডিক্যাল সেন্টারের অন্তর্ভুক্ত ডাইজেস্টিভ কেয়ার সেন্টারের মেডিক্যাল ডিরেক্টর ও গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজিস্ট আতিফ ইকবাল। দীর্ঘক্ষণ বসে থাকা আপনার কোলনে জট পাকিয়ে ফেলে, মলত্যাগ অনুৎসাহিত করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য সৃষ্টি করে। দাঁড়ানোর জন্য নিয়মিত বিরতি নিন এবং আশপাশে হাঁটুন। বিশেষ করে হাঁটা ও ডিপ স্কোয়াট ব্যায়াম বেশ কার্যকর মলত্যাগের জন্য। যদি আপনার কোষ্ঠকাঠিন্য ক্রনিক সমস্যা হয় এবং টয়লেটের ওপর স্কোয়াটিংয়ের মতো বসেও স্বাচ্ছন্দ্য অনুভব না করেন, তাহলে ‘স্কোয়াটি পটি’ ব্যবহার করতে পারেন, যা পা-কে আরো স্বাভাবিক পজিশনের জন্য উঁচু করবে।

* অতি দুগ্ধজাত ডায়েট
ডা. ইকবাল বলেন, ‘প্রচুর পরিমাণে মেল্টি ও সুস্বাদু পনির ভোজন কোষ্ঠকাঠিন্যের অন্যতম প্রধান কারণ।’ অন্যান্য দুগ্ধজাত প্রোডাক্টের তুলনায় পনির পরিপাকতন্ত্রে সবচেয়ে বড় সমস্যা সৃষ্টিকারী। এটি সহজাতভাবে কোষ্ঠকাঠিন্য সৃষ্টি করে না, কিন্তু কোষ্ঠকাঠিন্য হওয়ার কারণ হচ্ছে অনেক লোক হোল গ্রেন ও কৃষিজাত খাবারের মতো স্বাস্থ্যকর আঁশযুক্ত খাবারের পরিবর্তে এটি ভোজন করে। আঁশযুক্ত খাবার খাওয়ার জন্য পেটে জায়গা রাখুন এবং প্রথমে আঁশযুক্ত খাবারই খান। ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের একটি গবেষণা অনুসারে, আঁশে ‘অ্যান্টি-অ্যাপিটাইট মলিকিউল’ থাকে, তাই আপনার খাওয়ার প্রবণতা কমে যাবে।

* বিষণ্নতা
ডা. ইকবাল বলেন, ‘যদি আপনি বিষণ্নতায় ভুগেন, তাহলে আপনার ওজন বেড়ে যেতে পারে এবং আপনার কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে, এর পেছনে কারণ রয়েছে- বিষণ্নতা আপনার সার্বিক মেটাবলিজম ধীর করে।’ এছাড়া বিষণ্নতার জন্য যেসব ওষুধ প্রেসক্রাইব করা হয় তাও কোষ্ঠকাঠিন্য সৃষ্টি করে। বিষণ্নতার অনেক নন-ফার্মাসিউটিক্যাল থেরাপি রয়েছে যা ওষুধের মতো কার্যকর, যেমন- কগনিটিভ বিহেভিয়ারালল থেরাপি ও এক্সারসাইজ।

* নিম্ন কার্বোহাইড্রেটের ডায়েট
নিম্ন কার্বোহাইড্রেট/উচ্চ প্রোটিনের খাবার খাওয়ার পর কোষ্ঠকাঠিন্য হয় এবং এটি কোষ্ঠকাঠিন্যের অন্যতম বড় কারণ। ডা. ইকবাল বলেন, ‘ভালো উদ্দেশ্যে আপনি মাংস, ডিম ও ফ্যাট খাচ্ছেন, এমনভাবে খাচ্ছেন যে উদ্ভিজ্জ আঁশের জন্য পেটে জায়গা থাকছে না।’ এছাড়া অনেকে জেনেও হোল গ্রেন, ফল ও শাকসবজির মতো আঁশ সমৃদ্ধ খাবার এড়িয়ে চলেন, কারণ এসবে উচ্চ কার্বোহাইড্রেট রয়েছে। মনে রাখবেন, সকল কার্বোহাইড্রেট একই নয়। শুধু সাধারণ কার্বোহাইড্রেটের খাবার (যেমন- চিনিযুক্ত মিষ্টান্ন খাবার ও সাদা পাউরুটি) না খাওয়ার চেষ্টা করুন। আপনার অন্ত্রকে সুস্থ রাখতে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করতে প্রতিদিন অন্তত পাঁচ সার্ভিং ফল ও শাকসবজি খান। একটি ব্যতিক্রম: কলা নিজেই কোষ্ঠকাঠিন্য সৃষ্টি করতে পারে।

* অত্যধিক আঁশ
ইতোমধ্যে জেনেছেন যে কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধের জন্য আঁশযুক্ত খাবার খাওয়া গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু অতিরিক্ত আঁশ আপনার পাকস্থলীর স্তরকে ডিসেন্টিটাইজ করতে পারে, যার ফলে এটি খালি হওয়ার জন্য সাড়া বা ইঙ্গিত কম দেবে। এটি বিশেষ করে তাদের জন্য সত্য, যারা হোল গ্রেন উৎসের বদলে সাপ্লিমেন্ট থেকে আঁশের মেগা ডোজ গ্রহণ করে। ফাইবার পিল পরিহার করুন, কারণ এটি আপনার বিরুদ্ধে কাজ করতে পারে, অন্তত পুপ ডিপার্টমেন্টে। অন্ত্রকে রিসেট করতে আপনার চিকিৎসক আপনাকে সাময়িকভাবে আঁশযুক্ত খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে পরামর্শ দিতে পারেন।

* চকলেট
এটি চকলেটপ্রেমীদের জন্য ভালো খবর নয়: চকলেট কোষ্ঠকাঠিন্যের কারণ হতে পারে, যদিও এর প্রতিক্রিয়া ব্যক্তি থেকে ব্যক্তি ভিন্ন হতে পারে। রোম কমিটি অন ফাংশনাল বাওয়েল ডিসঅর্ডারের একটি সাম্প্রতিক জরিপ অনুসারে, পুনরাবৃত্তিমূলক কোষ্ঠকাঠিন্য আছে এমন ৭০ শতাংশ লোকের কোষ্ঠকাঠিন্যের জন্য প্রধান অপরাধী ছিল চকলেট। চকলেট আপনার কোষ্ঠকাঠিন্যে অবদান রাখছে কিনা তা বুঝতে পারবেন না, যদি আপনি ডায়েট থেকে চকলেট সম্পূর্ণরূপে দূর না করেন। চকলেট খাওয়া বন্ধ করে দেখুন কোষ্ঠকাঠিন্য ভালো হয় কিনা, যদি ভালো হয়, তাহলে চকলেট খাওয়া সীমিত করুন।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

পড়ুন : * কোষ্ঠকাঠিন্যের বিস্ময়কর কিছু কারণ (শেষ পর্ব)

* কোষ্ঠকাঠিন্যের ১০ ঘরোয়া চিকিৎসা

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮/ফিরোজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন