ঢাকা, সোমবার, ৪ কার্তিক ১৪২৬, ২১ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

চালকদের ডোপ টেস্টের নির্দেশনা হাইকোর্টের

মেহেদী হাসান ডালিম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-২০ ৭:৩২:১০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-২১ ৩:৩৭:১৮ পিএম
ফাইল ফটো

নিজস্ব প্রতিবেদক : গণপরিবহনের চালকরা মাদক সেবন করেন কি না- তা জানতে তাদেরকে নিয়মিতভাবে ডোপ টেস্ট করার নির্দেশনা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে যত্রতত্র গাড়ি থামিয়ে কোনো গণপরিবহনে যাত্রী না উঠে এবং স্টপেজ ছাড়া রাস্তায় গণপরিবহনের দরজা বন্ধ রাখতে বলেছেন আদালত। এছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, আবাসিক এলাকা ও সংরক্ষিত এলাকায় ফায়ার সার্ভিস গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া অন্য কোনো পরিবহন হর্ন বাজাতে পারবে না বলেও আদালতের নির্দেশনায় বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বাস দুর্ঘটনায় নিহত তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীবের ক্ষতিপূরণের রায়ে বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব নির্দেশনা দিয়েছেন।

রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেন, ক্ষতিপূরণের আদেশ দেওয়ার পাশাপাশি সড়কে যাত্রীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আদালত বেশকিছু নির্দেশনা দিয়েছেন।

রায়ে আদালত আরো বলেছেন, লাইসেন্স দেওয়ার সময় চালকদের চোখের দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষা (ভিশন টেস্ট) ও ডোপ টেস্ট করাতে হবে।

চালকরা বেপরোয়া গাড়ি চালায় কিনা তা নিয়ন্ত্রণ ও নির্ণয় করতে বাস স্টপ ছাড়াও রাস্তার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ক্লোজড সার্কিড ক্যামেরা (সিসি ক্যামেরা) স্থাপন করতে হবে।

ঢাকা শহরে চলাচলকারী গণপরিবহনের রুট পারমিটের ক্ষেত্রে ‘ফ্রাঞ্চাইজি’ ব্যবস্থা চালু করতে হবে। চলাচলকারী গণপরিবহনগুলোকে একটি কোম্পানির অধীনে এনে ফ্রাঞ্চাইজি রুট পারমিট দিতে হবে। প্রত্যেকটি রুটের গাড়িতে কালার কোড দিতে হবে।

২০১৮ সালে সংসদে পাস হওয়া সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর করতে ব্যবস্থা নিতে হবে। ছয় মাসের মধ্যে এসব বাস্তবায়ন করতে বলেছেন আদালত।

এদিকে হাইকোর্ট তার রায়ে তিতুমীর কলেজছাত্র রাজীবের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এর মধ্যে ২৫ লাখ টাকা দিবে স্বজন পরিবহনের মালিকপক্ষকে ও বাকি ২৫ লাখ টাকা রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহন সংস্থা বিআরটিসিকে দিতে বলা হয়েছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে রাজীবের পরিবারকে এই টাকা দিতে হবে।

তবে এই রায়ের বিরুদ্ধে বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহন কর্তৃপক্ষ আপিল করবেন বলে জানিয়েছে সংস্থাগুলোর আইনজীবীরা।

রায়ের পর রাজীবের ছোটো ভাই মেহেদী হাসান হৃদয় বলেন, আদালতের এ রায়ে আমরা সন্তুষ্ট। তবে আমাদের মতো যেন আর কাউকে ভাই হারাতে না হয়।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২০ জুন ২০১৯/মেহেদী/সাইফ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন