ঢাকা, সোমবার, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

জমাট ব্যাটিংয়ে রহমতের সেঞ্চুরি

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৫ ৪:২১:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-০৫ ৫:৫৬:৩৮ পিএম

চট্টগ্রাম থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক : কী দারুণ ধৈর্য। কী দারুণ দৃঢ়তা।  ধ্রুপদী জমাট ব্যাটিং।

সাদা পোশাকে ২২ গজে যেভাবে ব্যাটিং করা দরকার, ঠিক সেভাবেই যেন নিজেকে মেলে ধরলেন। কপি বুক স্টাইলের সব শট। ডিফেন্সে পুরোদস্তুর অভিজ্ঞতার ছাপ।

দেরাদুনে নিজের তৃতীয় টেস্ট ইনিংসেই সেঞ্চুরি পেয়ে যেতেন। মাত্র দুই রানের জন্য হয়নি। এবার চট্টগ্রামে ভুল করলেন না আর। তিন অঙ্ক ছুঁলেন। প্রথম আফগান ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিকেটের অভিজাত ফরম্যাটে তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। তিনি আর কেউ নন, রহমত শাহ।

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে রহমতের সম্পর্ক বেশ পুরনো। ঢাকা লিগে মোহামেডানের নিয়মিত খেলোয়াড়। এখানকার কন্ডিশন তার খুব চেনা। তবুও টেস্ট ক্রিকেটের রয়েছে আলাদা মান, আলাদা ভার। কিন্তু চট্টগ্রামের ২২ গজে রহমত যেভাবে দ্যুতি ছড়ালেন, তাতে মনে হলো মকমলের চাদরের ওপর আরাম-আয়াশে আছেন।

সেঞ্চুরির আগ পর্যন্ত বাংলাদেশকে আউট করার কোনো সুযোগই দেননি।  যে বল যেভাবে খেলা দরকার, সেভাবেই খেললেন। কালেভাদ্রে মেরেছেন বাউন্ডারি। শট খেলতে কোনো জড়তা রাখেননি। সিঙ্গেল-ডাবল তুলে নিয়েছেন অনায়াসে। ৮৫ বলে ফিফটি, ১৮৬ বলে পেয়েছেন সেঞ্চুরি। ফিফটিতে পৌঁছতে মেরেছিলেন তিনটি চার, দুটি ছক্কা। আর সেঞ্চুরির ইনিংসে ছিল সব মিলে ১০টি চার, দুই ছক্কা।

২১০ মিনিট ক্রিজে থেকে রহমত যেভাবে আলো ছড়ালেন, তাতে মুগ্ধতা ছড়িয়েছে। নাঈম হাসানের অফ স্টাম্পের বাইরের বল জায়গায় দাঁড়িয়ে খেলতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ১০২ রানে শেষ হয় তার দৃঢ়চেতা ইনিংস। সফরকারী খেলোয়াড় বড় স্কোর করে দেখিয়েছেন। মুমিনুল, মুশফিকদের তো চট্টগ্রামের উইকেটের নাড়ি-নক্ষত্র চেনা।


রাইজিংবিডি/চট্টগ্রাম/৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইয়াসিন/পরাগ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন