ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

তাপমাত্রা ৬ দশমিক ৬ : রংপুরে শীতে কাহিল মানুষ

নজরুল মৃধা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১৪ ৬:২৩:৩৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১৪ ৯:০০:৩০ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর : রংপুর অঞ্চলে এলাকায় শীত জেঁকে বসেছে। হিমেল হাওয়ায় কাবু করছে শীতার্ত মানুষকে। হতদরিদ্র মানুষ কষ্টে দিন যাপন করছে।

শনিবার রংপুরে  সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চলতি মৌসুমে এটাই  সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আবহাওয়া অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিতরণের জন্য ত্রাণ ভাণ্ডারের গোডাউনে কোনো কম্বল নেই। জরুরি ভিত্তিতে ২০ হাজার কম্বল চেয়ে ঢাকায় ফ্যাক্সবার্তা পাঠানো হয়েছে ।

শীতজনিত কারণে শিশু ও বৃদ্ধদের ঠাণ্ডাজনিত রোগ-বালাই বাড়ছে আশঙ্কাজনক হারে। প্রতিদিন সহস্রাধিক রোগী এই অঞ্চলের মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ উপজেলার সরকারি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। অনেকেই হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন।

পরিবেশবিদদের ধারণা, জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলে এ অঞ্চলে শীতের সময় প্রচণ্ড শীত এবং গরমের সময় প্রচণ্ড গরম অনুভব হয়। গত  কদিন থেকে এ অঞ্চলে শীত তার আপন রুপে ফিরে আসায় শীতার্ত মানুষের দুর্ভোগ বাড়তে শুরু করেছে। শীতের তীব্রতায় অনেকে গরম পোশাক গায়ে চড়ালেও হতদরিদ্ররা পড়েছেন বেকায়দায়। বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলসহ  চর এলাকার লোকজনের অবস্থা বেশি খারাপ। শীতে কাবু অনেক  দিনমজুরসহ খেটে খাওয়া মানুষ কাজে আসতে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না।

শীতের এই পরিস্থিতিতে মানুষের পাশাপাশি গরু-ছাগলসহ গবাদিপশুর অবস্থা আরো কাহিল হয়ে পড়েছে। রংপুর সদরের পশুচিকিৎসক মোশারফ হোসেন জানান, ঠান্ডার কারণে পশুপাখিদের রোগ-বালাই দেখা দিয়েছে।

এদিকে আলুসহ অন্যান্য ফসলও রয়েছে হুমকির মুখে। খারাপ আবহাওয়ার কারণে অনেক স্থানে আলুখেতে লেট ব্রাইট রোগ দেখা দিয়েছে।

জেলা প্রশাসন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রংপুর বিভাগে হতদরিদ্র মানুষের সংখ্যা প্রায় ২০ লাখ। ৮ জেলায় সরকারি কম্বল বিতরণ করা হয়েছে ৫০ হাজার পিস।

রংপুর জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা ফরিদুল হক জানান, এ পর্যন্ত প্রায় ৫০ হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। আরো ২০ হাজার কম্বল চেয়ে ঢাকায় আবেদন করা হয়েছে । তা এখনও পাওয়া যায়নি। বর্তমানে বিতরণের জন্য কোনো কম্বল নেই গোডাউনে।

রংপুর আবহাওয়া অফিসের ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী জানান, এ ধরনের আবহাওয়া আরো বেশ কদিন থাকবে। তাপমাত্রা আরো কমে যেতে পারে। এরপর আর শীতের অতটা প্রকোপ থাকবে না।



রাইজিংবিডি/রংপুর/১৪ জানুয়ারি ২০১৭/নজরুল মৃধা/রিশিত

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : রংপুর, রংপুর বিভাগ