ঢাকা, শনিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘তারেকসহ সকল আসামিকে খালাস করতে সক্ষম হবো’

মেহেদী হাসান ডালিম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১০-১০ ৩:৩০:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-১০ ৩:৩১:১৭ পিএম
‘তারেকসহ সকল আসামিকে খালাস করতে সক্ষম হবো’

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে তারেক রহমানসহ বিএনপি নেতাদের একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে। আমরা আশা করি উচ্চ আদালতে আপিল করে তারেক রহমানসহ সকল আসামিকে খালাস করতে সক্ষম হবো।

বুধবার রায়ের পর সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল শেষে এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘মুফতি হান্নানও তারেক রহমানের নাম প্রাথমিকভাবে বলেননি। ৪১০ দিন তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। মুফতি হান্নানকে ৪১০ দিন রিমান্ডে রেখে অমানুষিক নির্যাতন করে তারেক রহমানের নাম বলানো হয়েছে। যদিও তারেক রহমানের কোন সম্পৃক্ততা এখানে ছিলো না।

এই মামলায় সাক্ষী ছিলেন আজকের প্রধানমন্ত্রী। একদিকে তিনি তারেক রহমানের নাম বলেননি অন্যদিকে তিনি সাক্ষী দিতে যাননি। এই মামলায় তারেক রহমানকে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়ার কোন উপাদান নেই। আরেকটি বিষয় হচ্ছে মুফতি হান্নানের ১৬৪ ধারায় যে জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে তার উপর ভিত্তি করে বিএনপির অনেককে সাজা দেওয়া হয়েছে; লুৎফুজ্জামান বাবর, পিন্টুকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে। সেই ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি আদালতে না দেওয়া পর্যন্ত তাদের সাজা হতে পারে না।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলেন, ‘এই সাজা হয়েছে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে। এই সরকার একদিকে আদালতকে ব্যবহার করেছে অন্যদিকে তারা নির্বাচনকে প্রভাবিত করার জন্য সারা বাংলাদেশে একটি নৈরাজ্যকর অবস্থার সৃষ্টির চেষ্টা করেছে। আমরা আশা করি তারেক রহমান এবং যাদেরকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে এই মামলায় সকল আসামিকে খালাস করতে সক্ষম হবো।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ অক্টোবর ২০১৮/মেহেদী/শাহনেওয়াজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন