ঢাকা, সোমবার, ৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:
স্বাগত ২০১৯

নতুন উদ্যম ও প্রত্যয়ে এগিয়ে যাক বাংলাদেশ

আলী নওশের : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-০১ ১:১৩:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৪-০৯ ৪:৩২:৪১ পিএম

স্বাগত নতুন বর্ষ ২০১৯। কালের গর্ভে হারিয়ে গেল আরো একটি বছর। আজ খ্রিষ্টীয় বা ইংরেজি নতুন বছরের প্রথম দিন। নতুন আশা, স্বপ্ন ও উদ্দীপনা নিয়ে বিশ্ববাসী নতুন বছরকে বরণ করছে। নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে মানুষ আগত দিনগুলোকে সুন্দরভাবে সাজানোর পরিকল্পনা করে। বিগত বছরের ভুলত্রুটি শুধরে নতুন উদ্যমে এগিয়ে যাওয়ার শপথ নেয়। জাতীয়ভাবেও নতুন বছর সবার জন্য ইতিবাচক হবে এ প্রত্যাশা আমাদের।

এবার নতুন বছর শুরু হচ্ছে এমন সময়, যখন নতুন করে এবং টানা তৃতীয় মেয়াদে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার। আর টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছেন শেখ হাসিনা। বিদায়ী বছরের শেষ ভাগে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রেকর্ডসংখ্যক আসন নিয়ে জয়ী হয়েছে জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মহাজোট। আমাদের প্রত্যাশা তৃতীয় মেয়াদেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আগের দুই মেয়াদের উন্নয়ন পরিকল্পনা ও কর্মসূচির ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে।

আওয়ামী লীগ নেতৃতত্বাধীন সরকার গত কয়েক বছর ধরে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে অনেক এগিয়ে নিয়ে গেছে। প্রায় ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে বিদায়ী বছরে। আর সামাজিক ও মানবসম্পদের বিভিন্ন সূচকে এখন দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। আমরা মনে করি এ বছরে দেশ আরো এগিয়ে যাবে, আরো স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধ হবে। ২০১৯ সালের মধ্যে পদ্মা সেতু প্রকল্প সম্পন্ন হওয়ার কথা। আমাদের প্রত্যাশা যথা সময়ে এ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। পাশাপাশি এ সরকারের নতুন মেয়াদে নতুন কিছু যোগ হবে এবং দেশ আরো উন্নতির শিখরে এগিয়ে যেতে থাকবে।

গেল বছর জুড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন নিয়ে সরকার জোর তৎপরতা চালিয়েছে সরকার। তবে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফেরত নেওয়ার অঙ্গীকার করেও মিয়ানমার ফেরত নেয়নি। ফলে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থীর ভার বহন করতে হচ্ছে  বাংলাদেশকে। অন্যদিকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে। আমরা আশা করি, নতুন বছরে এই সংকটের গ্রহণযোগ্য সমাধান হবে। জটিলতা কেটে গিয়ে দ্রুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন কাজ সম্পন্ন হবে।

আমাদের দেশে রাজনীতিতি সহনশীলতার অভাব রয়েছে। সংসদ নির্বাচনে বিরোধী দল ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ এনে ফল প্রত্যাখ্যান করেছে। তাই নতুন বছরে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। বছর শেষের এই রাজনৈতিক বিরোধ নতুন বছরে যাতে বড় ধরনের সংকট তৈরি না করে, সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। তবে আমাদের প্রত্যাশা সব পক্ষ আলোচনা ও সহাবস্থানের নীতি গ্রহণ করবেন। নতুন বছরে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধাকে কাজে লাগাতে হবে। দারিদ্র্যবিমোচন ও জাতীয় অগ্রগতির প্রশ্নে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এতে অর্থনৈতিক রাজনৈতিক ক্ষেত্রে দেশ আরো সামনের দিকে এগিয়ে যেতে সক্ষম হবে।

নতুন বছর আমাদের জীবনে নিয়ে আসুক সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি। হিংসা, হানাহানি, সহিংসতা ও জঙ্গিবাদের অবসান হোক। বিদায়ী বছরের অপূর্ণতা দূর করে নতুন উদ্যম ও প্রত্যয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে বাংলাদেশ উন্নয়নের পথে আরো একধাপ এগিয়ে যাক এ প্রত্যাশায় নতুন বছরের প্রথম দিনে রাইজিংবিডির অগনিত পাঠক, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের আন্তরিক শুভেচ্ছা। শুভ নববর্ষ।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১ জানুয়ারি ২০১৯/আলী নওশের

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন