ঢাকা, শুক্রবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নোয়াখালীর ৮ পৌরসভার কার্যক্রম বন্ধ, দুর্ভোগ

মাওলা সুজন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-২২ ১১:৪২:৫০ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-২২ ১১:৪২:৫০ এএম
নোয়াখালীর ৮ পৌরসভার কার্যক্রম বন্ধ, দুর্ভোগ

নোয়াখালী প্রতিনিধি: এক সপ্তাহেরও বেশি নোয়াখালীর আটটি পৌরসভার প্রায় সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সেবা নিতে আসা নাগরিকরা দুর্ভোগে পড়েছে।

রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা ও পেনশন সুবিধা পাওয়ার দাবিতে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারিদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট চলায় এ ভোগান্তিতে পড়েতে হচ্ছে নাগরিকদের।

আন্দোলনকারীরা বলছেন, সরকার দাবি মেনে নিলেই কর্মস্থলে যোগ দেবেন তারা।

দেশের প্রথম শ্রেণির পৌরসভার মধ্যে অন্যতম নোয়াখালী পৌরসভা। লক্ষাধিক বাসিন্দার এ পৌরসভায় টানা ৮দিন ধরে বন্ধ রয়েছে নাগরিক সংশ্লিষ্ট সকল কার্যক্রম। জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন, ট্রেড লাইসেন্স, বাড়ি নির্মাণের প্ল্যান, ওয়ারিশ সনদ, নাগরিক সনদসহ গুরুত্বপূর্ণ কাগজাদি গ্রহণ করতেও পারছেন না নাগরিকরা। প্রতিদিনই হতাশ হয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে সেবা প্রার্থীদের। সেবা নিতে না পারায় অনেককে বড় ক্ষতির সম্মুখীনও হতে হচ্ছে।

শুধু নোয়াখালী পৌরসভা নয়, দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন জেলার চৌমুহনী, কবিরহাট, বসুরহাট, হাতিয়া, সোনাইমুড়ি, চাটখিল ও সেনবাগ পৌরসভার নাগরিকরাও।

পৌর নাগরিকরা জানান, শুধু দাপ্তরিক কাজেই নয়, শহরের ময়লা-আবর্জনা না সরানোর কারণে অসহনীয় দুর্গন্ধও ছড়াচ্ছে পৌর শহরজুড়ে।

নোয়াখালী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড থেকে আমেনা বেগম নামে একজন পৌরবাসিন্দা জানান, আদালতে তার পারিবারিক মামলা রয়েছে। ওয়ারিশ সনদ আদালতে জমা দেওয়ার কথা ছিল গত সপ্তাহে। রোববারও তা জমা দিতে পারেননি। এতে তিনি বড় ধরণের সমস্যায় পড়েছেন।

জেলার প্রত্যেকটি পৌরসভায় একই অবস্থা বিরাজ করছে। পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারিদের টানা আন্দোলনের কারণে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে নাগরিকদের। 

পৌর শহরের নাগরিকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দু:খ প্রকাশ করেছেন জেলা পৌর সার্ভিস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহাবুবুর রহমান।

তিনি জানান, এ দাবি তাদের যৌক্তিক। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত সকল সেবা বন্ধ থাকবে।

বাংলাদেশ পৌর সার্ভিস এসোসিয়েশন নোয়াখালী জেলা শাখা সূত্রে জানা যায়, জেলার আটটি পৌরসভায় স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারি রয়েছে অন্তত সাড়ে চার’শ জন।। এছাড়া অস্থায়ী কর্মচারি রয়েছে আরো পাঁচ শতাধিক। আটটি পৌরসভার মধ্যে পাঁচটি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারিরা দীর্ঘদিন পর্যন্ত বেতন-ভাতাসহ প্রায় সকল সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়েছে। তিনটি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারিরা বেতন পেলেও পাচ্ছে না ভাতাসহ অন্যান্য সুবিধাদি।

 

রাইজিংবিডি/নোয়াখালী/২২ জুলাই ২০১৯/ মাওলা সুজন/টিপু

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন