ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বাসের জন্য দীর্ঘ অপেক্ষা

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-০৯ ১২:৩৩:৩২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-০৯ ২:৩৮:৪০ পিএম

হাসিবুল ইসলাম মিথুন : ঈদুল আজহা উপলক্ষে নাড়ির টানে ছুটছে মানুষ। কিন্তু বাড়ি ফিরতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের।  ঘণ্টার পর ঘণ্টা যাত্রীরা বসে আছে কাউন্টারের সামনে কিন্তু বাসের দেখা মিলছে না।

শুক্রবার রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনালে যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

গাবতলীতে গিয়ে দেখা গেছে, যাত্রীরা বসে আছেন কাউন্টারের সামনে, রাস্তার পাশে। অপেক্ষায় আছেন কাঙ্খিত বাসের জন্য।

কথা হয় জে আর পরিবহনের ফরিদপুরের যাত্রী মোহাম্মদ আল-আমিনের সঙ্গে।

তিনি বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৮ টায় বাস ছাড়ার কথা। কিন্তু এখনো বাস কাউন্টারের সামনে আসেনি। কখন আসবে তাও জানি না। অপেক্ষা করা ছাড়া কিছু করার নেই। তা ছাড়া টিকিট আগেই কেটেছি তাই এখন ফেরত দেয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

সাকুরা পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার মো. রাজু বলেন, ‘বৈরি আবহাওয়ার কারণে ফেরি ঠিকমতো চলাচল করতে পারছে না। নদীতে প্রচণ্ড স্রোত থাকায় ফেরি বন্ধ ছিল। তাই আরিচার ওপারে প্রায় ৮ কিলোমিটার যানজট সৃষ্টি হয়েছে।’     

অপর এক যাত্রী নাবিল পরিবহনে যাবেন কুড়িগ্রাম । কিন্তু তার বাস ছাড়ার কথা সকাল ৯টায়। দুপুর ১২টার সময়ও তার বাস আসেনি।

তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘ঈদ আসলেই আমাদের উত্তরবঙ্গের যাত্রীদের এই ভোগান্তিতে পড়তে হয়। অন্য সময়ে কুড়িগ্রাম যেতে সময় লাগে ৯ থেকে ১০ ঘণ্টা। কিন্তু ঈদ আসলেই সেখানে সময় লাগে ১৪ থেকে ১৫ ঘণ্টা। তারপরও বাস আসতে দেরি হচ্ছে। বাড়ি যেতে অনেক ভোগান্তি সহ্য করতে হবে।’

কথা হয় নাবিল পরিবহনের এক বাস চালকের সঙ্গে।

তিনি বলেন, ‘ঢাকা থেকে বের হলেই যানজট। সড়কের ওপর পশুর হাট। যার কারণে চলতে খুব সমস্যা। যানজট মূলত এ কারণেই বেশি।’

এদিকে আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের গাবতলী বাস টার্মিনাল পরিদর্শনে আসেন।

তিনি বলেন, ‘বৈরি আবহাওয়ার কারণে আরিচা ও মাওয়া ফেরি ঘাটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। আবহাওয়া এমন থাকলে দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের কিছুটা ভোগান্তি হতে পারে। তবে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি ঈদযাত্রায় ভোগান্তি দূর করতে।’


রাইজিংবিডি/ঢাকা/৯ আগস্ট ২০১৯/হাসিবুল/ইভা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন