ঢাকা, শুক্রবার, ২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বিমানে ত্রুটি : দুই আসামি কারাগারে, তিনজনের জামিন নামঞ্জুর

মামুন খান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১২ ৬:১৪:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১২ ৭:০৭:৪২ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানে ত্রুটির মামলায় আত্মসমর্পণকারী দুই আসামিকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। এদিকে কারাগারে থাকা তিন আসামির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরীর আদালত এসব আদেশ দেন।

কারাগারে পাঠানো দুই আসামি হলেন- বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তা মোহাম্মদ রোকনুজ্জামান ও টেকনিশিয়ান সিদ্দিকুর রহমান।

এ দুই আসামিকে দুই দফা ১৪ দিনের রিমান্ড শেষে বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের পরিদর্শক মাহবুবুল আলম। শুনানি শেষে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এ দুই আসামির গত ২৮ ডিসেম্বর সাত দিনের এবং গত ৫ জানুয়ারি আবার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এর আগে গত ২২ ডিসেম্বর তারা আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

বৃহস্পতিবার যাদের জামিন নামঞ্জুর করা হয়েছে তারা হলেন- বাংলাদেশ বিমানের প্রকৌশল কর্মকর্তা সামিউল হক, লুৎফর রহমান ও জাকির হোসাইন।

মামলাটিতে বর্তমানে বিমানের ইঞ্জিনিয়ার অফিসার নাজমুল হক এবং জুনিয়র টেকনিশিয়ান শাহ আলম রিমান্ডে আছেন।

অন্যদিকে বিমানের প্রধান প্রকৌশলী (প্রোডাকশন) দেবেশ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী (কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স) এস এ সিদ্দিক ও প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার (মেইনটেন্যান্স অ্যান্ড সিস্টেম কন্ট্রোল) বিল্লাল হোসেন, প্রকৌশল কর্মকর্তা সামিউল হক, লুৎফর রহমান, বিমল চন্দ্র বিশ্বাস ও জাকির হোসাইন কারাগারে আছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ নভেম্বর বোয়িং-৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজটি প্রধানমন্ত্রীর হাঙ্গেরি সফরের জন্য ঠিক করা হয়। আসামিরা বাংলাদেশ বিমানের প্রকৌশল বিভাগের পদস্থ কর্মকতা। তাদের ওপর ওই উড়োজাহাজের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব ছিল। আসামিরা গত ২৬ নভেম্বর ওই উড়োজাহাজ নিজেদের হেফাজতে নিয়ে রক্ষণাবেক্ষণ করেন। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে উড়োজাহাজটি গত ২৭ নভেম্বর সকাল সোয়া ৯টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে। উড়োজাহাজটি অনুমানিক ২ ঘণ্টা ২৮ মিনিট প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ওড়ার পর পাইলট ইঞ্জিনে তেল কমার লক্ষণ দেখতে পান। আর ৩০ মিনিট পর পাইলট ইঞ্জিনের তেলের চাপ আরো কমার লক্ষণ দেখতে পান। এরপর বাংলাদেশ সময় ১টা ৫৮ মিনিটে ইঞ্জিনে তেলের চাপ লিমিটের নিচে নেমে আসায় উড়োজাহাজটি নির্ধারিত গন্তব্যের আগেই তুর্কমেনিস্তানের রাজধানীতে অবতরণ করতে বাধ্য হয়। এরপর বাম পাশের ইঞ্জিনের কাইরলং খোলা হলে ওয়েল প্রেসারের বি-নাট ঢিলা পাওয়া যায়। পরে মেরামতের পর ওই উড়োজাহাজেই হাঙ্গেরি যান প্রধানমন্ত্রী।

বিমানে ত্রুটির ঘটনায় বাংলাদেশ বিমান কর্তৃপক্ষ গত ২৮ নভেম্বর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্তে উল্লিখিত ব্যক্তিদের দায়িত্বে অবহেলা এবং ব্যর্থতার বিষয়টি উঠে আসে। এরপর গত ২০ ডিসেম্বর রাতে দণ্ডবিধির ১০৯/১১৮/১২০(খ)/২৮৭ এবং বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩) ধারায় বাংলাদেশ বিমানের পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট) এম এম আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে বিমানের নয় কর্মকর্তাকে আসামি করে বিমানবন্দর থানায় মামলা করেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জানুয়ারি ২০১৭/এমএ খান/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন