ঢাকা, সোমবার, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ০৬ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘বৈষম্য বাড়ছে, এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-২০ ২:৩৮:৪১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-২০ ২:৩৮:৪১ পিএম

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ‘বৈষম্য বাড়ছে তবে এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। উন্নয়নের এই প্রাথমিক পর্যায়ে প্রবৃদ্ধি ও বৈষম্য সমান্তরালভাবে চলবে বলে আমার ধারণা।’

রোববার আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব গভর্নেন্স অ‌্যান্ড ম্যানেজমেন্টের (বিআইজিএম) পলিসি অ‌্যানালাইসিস কোর্সের ৭ম ব্যাচের সেমিনার ও সনদ বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অনেক আয় করছি, আমাদের প্রবৃদ্ধি বাড়ছে, মাথাপিছু আয় বাড়ছে, তবু আমরা সামগ্রিকভাবে বৈষম্যমূলক একটা ব্যবস্থার দিকে যাচ্ছি। আমরা বোবা, কালা নই। আমরা দেখছি ও এই বিষয়ে অবগত আছি। তবে আমরা মনে করি, আমাদের উন্নয়নের প্রাথমিক পর্যায়ে বোধ হয় এইটাকে পরিহার করা সম্ভব নয়।’ 

তিনি বলেন, ‘ন্যূনতম খাবারের অভাব, কাজের অভাব বোধ হয় গত কয়েক বছরে আমরা দূর করেছি, আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বলছে। এখন আমাদের কাজ হবে বৈষম্য দূর করতে বিভিন্ন বিধি বিধান এবং কৌশল খুঁজে বের করা।

বর্তমানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অচলাবস্থার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার মান নিয়ে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চিন্তিত। সরকার চিন্তিত, আমরাও চিন্তিত। সরকারে আমরা যারা আছি, তারা এই বিষয়ে প্রশিক্ষিত নই। আমাদের যারা আছেন শিক্ষকবৃন্দ, পণ্ডিতবৃন্দ, আমলারা যারা আছেন, আপনাদের কাছে আমরা আইডিয়া চাই। আমরা পথ প্রদর্শক চাই। যাতে করে আমরা শিক্ষায় আরো বেশি কন্ট্রিবিউট করতে পারি।’ 

তিনি আরো বলেন, ‘টাকা আমরা কম দিচ্ছি, বেশি দিচ্ছি সেটা বড় কথা নয়। টাকা সঠিকভাবে খরচ হচ্ছে কি না, তা নিশ্চিত করতে হবে। সরকার এই বিষয় নিয়ে মোটেই অবহেলা করছে না। আমরা এটা নিয়ে চিন্তিত। সকলের সহযোগীতা নিয়ে আমরা নতুন কোনো ধারণা আনার চেষ্টা করব।’

কোর্সে শীর্ষস্থান অধিকারী ৬ জন কর্মকর্তা তাদের প্রণীত ড্রাফট পলিসি পেপার উপস্থাপন করেন।

এতে আরো উপস্থিত ছিলেন অর্থ বিভাগের যুগ্ম সচিব ফারহিনা আহমেদ, বিআইজিএমের চেয়ারপার্সন ও বোর্ড অব ট্রাস্ট্রি এম মতিউল ইসলাম, ডিরেক্টর ডক্টর মোহাম্মদ তারেক।

 

ঢাকা/হাসিবুল/হাকিম মাহি