ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ ভাদ্র ১৪২৬, ২০ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ভোলায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, হাসপাতালে শয্যা সংকট

ফয়সল বিন ইসলাম নয়ন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-১৬ ২:৪৭:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-১৬ ২:৪৭:৩৮ পিএম
ভোলায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, হাসপাতালে শয্যা সংকট
Walton E-plaza

ভোলা সংবাদদাতা: হঠাৎ করে ভোলায় নিউমোনিয়াসহ শীতজনিত নানা রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

গত এক সপ্তাহে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে অর্ধশতাধিক। এর মধ্যে বেশি সংখ্যকই হচ্ছে শিশু। ভোলা সদর হাসপাতালে গত রোববারই ভর্তি হয়েছে ২০ জন। ওই দিন পর্যন্ত ঠান্ডাজনিতসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি ছিল আরো ৬১ জন।

গত কয়েকদিনে ভোলায় শীতের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় শিশু ও বৃদ্ধরা শীতজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। হঠাৎ করে রোগী বেড়ে যাওয়ায় হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে দেখা দিয়েছে শয্যা সংকট। ভোগান্তিতে পড়ছেন রোগীরা। অন্যদিকে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

বর্তমানে শিশু ওয়ার্ডে ২০ শয্যার বিপরীতে রোগী রয়েছে ৬২ জন। এতে একটি বেডে গড়ে ২/৩ জন রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

দৌলতখান উপজেলার চরসুফি গ্রাম থেকে চিকিৎসা নিতে আসা শিশুর মা ইয়াসমিন জানান, ঠান্ডার কারণে তার সন্তান নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। দুই দিন ধরে সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত দুই শিশু ফারিয়া ও ফাহিমার অভিভাবকেরা জানান, শ্বাসকষ্ট ও কাশির কারণে তাদের সন্তানদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাঁচদিন ধরে তারা হাসপাতালে রয়েছেন। আবহাওয়ার পরিবর্তন ও শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় শিশুরা ঠান্ডাজনিত রোগে ভুগছে বলে জানিয়েছেন তারা।

শিশু ওয়ার্ডের দায়িত্বরত সিনিয়র স্টাফ নার্স শাহানাজ খান বলেন, ‘গত সাতদিন ধরে রোগীর চাপ একটু বেশি। এদের মধ্যে নিউমোনিয়াসহ ঠান্ডাজনিত শিশুদের সংখ্যা বেশি। আমরা শিশুদের সাধ্যমত চিকিৎসা দিচ্ছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘গত ১২ দিনে এখানে ১৩৫ জন রোগী চিকিৎসা নিয়েছে। এদের মধ্যে ৪১ জন নিউমোনিয়া ও ২০ জন ঠান্ডাজনিত রোগী। অ্যান্টিবায়োটিক, নেবুলাইজারসহ সব ওষুধ রয়েছে। চিকিৎসা দিতে কোনো সমস্যা হচ্ছেনা।’

এ ব্যাপারে ভোলার সিভিল সার্জন ডাঃ রথীন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, শীতের কারণে শিশুরা ঠান্ডাসহ নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। তবে গত বছরের তুলনায় এবার ভোলা হাসপাতালে শিশু রোগীদের চাপ কম। যারা ভর্তি রয়েছে তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে শিশু ওয়ার্ডে ২০টি থাকলেও সেখানে এখন ৪১টি বেড দেওয়া হয়েছে।




রাইজিংবিডি/ভোলা/১৬ জানুয়ারি ২০১৯/ফয়সল বিন ইসলাম নয়ন/টিপু

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge