ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মন্দিরটি এখন জমিদার বাড়ির স্মৃতির স্মারক

মামুন চৌধুরী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৯-২০ ১১:৫৪:৩৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১০-০৪ ৩:২৪:৩২ পিএম

মো. মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ : জমিদারি প্রথা উঠে গেছে সেই কবে..। জমিদারি হারিয়ে গেলেও রয়ে গেছে জমিদার বাড়ি। তারই একটি হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার দুর্গাপুরের গোলক চন্দ্র দত্ত জমিদার বাড়ি।

পুকুরওয়ালা বিশাল বাড়ি। সামনে ফসলের মাঠ। নিরব ছায়াঘেরা এ বাড়ির সামনে প্রাচীন মন্দির। নাম কৃষ্ণকালি মন্দির। গোলক চন্দ্র দত্ত জমিদার বাড়ির স্মৃতি হয়ে আছে এই মন্দির। সম্প্রতি সংস্কার করায় মন্দিরের উজ্জ্বলতা বেড়েছে। মন্দিরে ভক্তরা এসে পূজার্চনায় মগ্ন হচ্ছেন।

এ জমিদার বাড়ি সম্পর্কে অনেক কিছুই জানা গেল সুনীল দত্ত’র কাছে।সুনীল দত্ত’র ডাক নাম মিতু। বয়স ৭৫। তিনি এ জমিদারেরই বংশধর। এ বাড়িতেই বসবাস করছেন তিনি।

সুনীল দত্ত বললেন, ‘জমিদারি চলে গেলেও আমরা জমিদারের ঐতিহ্যকে পালন করার চেষ্টা করছি।  এ বাড়িতে শত বছর ছাড়িয়ে বসবাস আমাদের।’

তিনি বলেন, ‘তার পূর্ব পুরুষ গোলক চন্দ্র দত্ত’র পর পূর্ণ চন্দ্র দত্ত, মহেন্দ্র চন্দ্র দত্ত, উপেন্দ্র চন্দ্র দত্ত, যতীন্দ্র চন্দ্র দত্ত, গিরিন্দ্র চন্দ্র দত্ত -এরাও প্রজাদের কাছ থেকে খাজনা সংগ্রহ করেছেন। এখানের দুর্গাপুর, মাধবপুর, কাছিশাইল, বালিয়ারী, গোপালপুরসহ বিস্তীর্ণ এলাকা ছড়িয়ে ছিল এ বাড়ির জমিদারি ।’

‘এক সময় জমিদারি বিলুপ্ত হয়ে যায়। এ বাড়িব অনেকই চলে যান কলকাতায়। তারা এখনও সেখানে বসবাস করছেন। ঐতিহ্যের টানে আমরা ছিটে ফোটা রয়ে গেছি।’

তিনি বলেন, ‘এক সময়ে এ জমিদার বাড়ির মন্দিরকে ঘিরে নানা উৎসব হতো। জমিদাররাই এসব উৎসবের আয়োজন করতেন। উৎসবে মুখরিত হতো এ বাড়ি’র প্রাঙ্গণ। হতো পুঁথি পাঠ, কীর্তণসহ নানা আয়োজন। এগুলো এখন নেই। তবে বছরের অগ্রহায়ণ মাসে তিনদিনব্যাপী উৎসব হচ্ছে। এতে শত শত মানুষ অংশগ্রহণ করছেন।’

এ জমিদার বাড়ির মন্দিরটি ঘিরে এখনো অব্যাহত রয়েছে মানুষের আসা-যাওয়া। এ বাড়ি’র প্রতিবেশী সুজিৎ রঞ্জন দাশগুপ্ত বলেন, ‘এ মন্দিরের ইতিহাস রয়েছে। মন্দিরটি হিন্দু ধর্মের লোকদের প্রিয় স্থান।’

মন্দিরে আসা অপু দেব জানান, মন্দিরে তিনি প্রায়ই আসেন। তার মতো আরো অনেকেই এখানে আসছেন। তবে আগতদের সুবিধার জন্য আরো  সংস্কারমূলক উদ্যোগ নেওয়ারও দাবি জানান অপু দেব।

 

 

রাইজিংবিডি/হবিগঞ্জ/২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭/মামুন চৌধুরী/টিপু

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন