ঢাকা, শনিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘মানুষ হলে কেন অবহেলা’

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১১ ৫:৩৭:৫৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-১১ ১০:০৭:৩৫ পিএম
‘মানুষ হলে কেন অবহেলা’

নিজস্ব প্রতিবেদক: আমি চোখে দেখি না, সেটা কি আমার দোষ, বলেন? আল্লাহতো প্রতিবন্ধী করেই আমাকে পৃথিবীতে পাঠিয়েছে, এখানেতো কারো কোন হাত নেই। তাহলে কেন আমি সব জায়গায় বঞ্চিত হবো? কেন আমি সমাজের কাছে অবহেলিত? সারামুখে কষ্ট আর হতাশা নিয়ে এমনসব প্রশ্ন করছিলেন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধি মোঃ আলী হোসাইন।

দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীরা তাদের ৬ দফা দাবি আদায়ে গত ৭ জুলাই থেকে ১০ জুলাই প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান ধর্মঘট পালন করে।  দাবি আদায় না হওয়ায় ১০ জুলাই সকাল ৮টা থেকে জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার দক্ষিণ গেটের সামনে আমরণ অনশনের কর্মসূচি পালন করছে তারা।

দুপুরে সংসদ ভবনের সামনে গিয়ে দেখা যায়, অনশনে থাকা প্রতিবন্ধীরা রাস্তায় শুয়ে-বসে আছেন, কেউ কেউ গল্পগুজব করে সময় কাটাচ্ছেন। আবার মাঝে মধ্যে হালকা স্লোগান দিয়ে সবাইকে উজ্জীবিত করছেন।

অনশনে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া মোঃ আলী হোসাইন রাইজিংবিডিকে বলেন, সেই ছোট বেলা থেকেই নানা প্রতিকূলতার মধ্যে বড় হয়েছি। সমাজের নানান জায়গায় গিয়ে হেনস্তার শিকার হয়েছি। আপনি বলেন ভাই, আমরা কি মানুষ না? আমাদের কি আল্লাহ মানুষ হিসেবে পৃথিবীতে পাঠায়নি? যদি আমরা মানুষ হই তাহলে কেন আমাদের সবাই অবহেলা করবে?

কথা বলতে বলতে আলী হোসাইনের ভেতরের কষ্টে চোখ ঝাপসা হয়ে এলে বলতে থাকেন, আমার বাবা কৃষি কাজ করেন, অনেক কষ্ট করে আমাকে এবং আমার ভাই-বোনদের তিনি মানুষ করেছেন। দৃষ্টিপ্রতিবন্ধি হওয়ায় আমার অনেক আত্মীয়-স্বজন আমাদের সাথে ভালো ব্যবহার করেনি, আমাদের পাশে থাকেনি। তার পরেও অনেক কষ্ট করে আজ আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি।

নিজের আবেগ সামলে নেন আলী হোসাইন, কষ্টের মুখে আবার যেন পুরোনো শক্তি চলে আসে যা দিয়ে তিনি দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠে পড়তে এসেছেন। বলেন, আমরা কেউ আর অবহেলার পাত্র হয়ে থাকতে চাইনা। সরকারের কাছে আমাদের মূল দাবি হচ্ছে উচ্চশিক্ষিত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উপযুক্ত কাজ নিশ্চিত করতে হবে। আমার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাবি তিনি আমাদের জন্য দাবি মেনে নিবেন।

আবার কর্মসূচী নিয়ে কারো যে কোন প্রতিক্রিয়া নেই তা নিয়েও আক্ষেপ আলী হোসাইনের। বলেন, অসহায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের দুঃখ-দুর্দশা কমাতে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে বা সরকারি কোন কর্মকর্তা আমাদের সাথে দেখা বা কথা বলার জন্য আসেন নাই। সার্বিক পরিস্থিতি উপলব্ধি করে ‘চাকুরী প্রত্যাশী দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী গ্রাজুয়েট পরিষদ’ সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক গাজী নুরুল কবিরের অপসারণ দাবি করেন আলী হোসাইন।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধিরা মানুষের দুর্ভোগের কথা বিবেচনায় নিয়ে সড়ক ছেড়ে এখন ফুটপাতে বসে অনশন কর্মসুচি পালন করছেন।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ জুলাই ২০১৯/হাসিবুল/সাজেদ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন