ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘মার্সেল হা-শো’র বিগত সিজনের বিজয়ীদের জমকাল আড্ডা (ভিডিও)

আমিনুল ইসলাম শান্ত : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৮ ১২:৫৬:৪৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২৮ ২:০০:১৪ পিএম

বিনোদন ডেস্ক : দর্শকপ্রিয় কমেডি রিয়েলিটি শো ‘মার্সেল হা-শো’। শেষ হতে যাচ্ছে অনুষ্ঠানটির সিজন-৫ এর রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম। আগামী ১ সেপ্টেম্বর শুরু হবে অডিশন পর্ব। এবার উপস্থাপনায় থাকছেন আবু হেনা রনি।

অডিশন পর্ব শুরু হওয়ার আগে রনি, বিগত সিজনের বিজয়ীদের নিয়ে দর্শকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন। এনটিভির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লাইভ আড্ডার মধ্য দিয়ে তারা দর্শকের সামনে আসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন  মার্সেল হা-শো সিজন-১ এর চ্যাম্পিয়ন সাইফুর রহমান, সিজন-২ এর চ্যাম্পিয়ন তারেক, সিজন-৩ এর চ্যাম্পিয়ন মীরু, সিজন-৪ এর চ্যাম্পিয়ন ইমন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মনোজ, শাওনসহ অনেকে।

হা শো নিয়ে দর্শকদের অভিযোগ ও পরামর্শর জন্যই মূলত এই আড্ডার আয়োজন করা হয়। যাতে দর্শক চাহিদা পূরণ করে এ সিজনের যাত্রা শুরু করা যায়। লাইভে যোগ দেওয়ার পরই সবুজ নামে এক ব্যক্তি প্রশ্ন করেন, আমাদের দেশের প্রেজেন্টেশন নিম্নমানের হয় কেন? স্টেজ ভালো হয় না কেন? উপস্থাপনায় ভালো কাউকে আসা দরকার। এ প্রসঙ্গে শাওন বলেন, ‘এবার আপনাদের প্রিয় মানুষ, আপনাদের মুখে হাসি ফোটানোর মানুষ আবু হেনা রনি অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করবেন।’ শাওনের কথা শেষ না হতেই চিরচেনা ভঙিতে আবু হেনা রনি বলেন, ‘আমি জানি শাওনের এ কথা শোনার পর আপনারা লাইভে এখন ডিজলাইক দিবেন। যাহোক, আপনাদের পরামর্শ মাথায় নিয়েই এবার চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখব না। যেন গর্ব করে বলতে পারি, আমরা ভালো একটি অনুষ্ঠান করছি।’

আনিস নামে এক দর্শক রনির কণ্ঠে গান শোনার অনুরোধ করেন। কোনোরকম প্রস্তুতি ছাড়াই রনি গেয়ে উঠেন— ‘মন কিযে চাইছে বলো, যা দেখি লাগছে ভালো…।’ তবে চুপ করে ছিলেন না উপস্থিত অন্য অতিথিরাও। তারা মন খুলে সুর মেলান রনির সঙ্গে। হঠাৎ রনি গান থামিয়ে বলেন, ‘আরো গান হবে। তবে আমাদের সঙ্গে রয়েছেন সিজন-৩ এর চ্যাম্পিয়ন মীরু।’ ঠিক তখনই রনির মুখ থেকে কথা কেড়ে নিয়ে মীরু বলেন, ‘মুই রংপুরের চেংরা। এবার হা শো সিজন ফাইভ শুরু হচ্ছে। তোমরা রেডি হন হামরা আছি। রংপুর এবার ফাডায় দিবে। তোমরা জানো রংপুরের চেংরারা খুব সৎ, ভালো, এনার্জিটিক।’

মীরুর ঠিক পাশেই বসেছিল সিজন-২ এর চ্যাম্পিয়ন তারেক। তিনি বলেন, ‘নোয়াখালী বাড়ি আমার। কিন্তু নোয়াখালী বিভাগ চাই এই ধরনের কথাবার্তা এখন বলার দরকার নাই। এখন হা শো সিজন ফাইভ শুরু হইয়া যাইতেছে। সুতরাং আ-কতা, কু-কতা কওনের সময় এখন আর নাই। অডিশন দিতে চলি আসো। এক সেপ্টেম্বর চিটাগাং বিভাগে আসবা তোমরা।’ 

তারেক যখন কথাগুলো বলছিলেন ঠিক যেন শ্বাস ফেলার সময় ছিল না তার। যতই সময় গড়াতে থাকে ততই জমতে থাকে আড্ডা। বাংলাদেশকে ৬টি জোনে ভাগ করে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবারের অডিশন পর্ব। অডিশন জোন: ১ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম থিয়েটার ইনস্টিটিউট, ৪ সেপ্টেম্বর খুলনা শিল্পকলা একাডেমি, ৬ সেপ্টেম্বর বরিশাল, ১১ সেপ্টেম্বর রংপুর শিল্পকলা একাডেমি, ১৩ সেপ্টেম্বর রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমি, ১৬ সেপ্টেম্বর ঢাকা পাবলিক লাইব্রেরিতে অডিশন অনুষ্ঠিত হবে। প্রয়োজনে ঢাকা জোনের অডিশনের সময় ‍বৃদ্ধি করা হতে পারে। এখান থেকে বিচারকদের বিচারে উঠে আসবে সেরা প্রতিযোগীরা। তাদের নিয়েই শুরু হবে ‘মার্সেল হা-শো’র মূল অনুষ্ঠান। গত সিজনে ৫টি জোনে অডিশন নেওয়া হয়েছিল। এবার অনুষ্ঠানের পর্ব বাড়িয়ে ৪৬টি করা হয়েছে।

এই সিজনের টাইটেল স্পন্সর বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস, অটোমোবাইলস ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রস্তুতকারী ব্র্যান্ড মার্সেল। সপ্তাহের বৃহস্পতি এবং শুক্রবার রাত ৯টা ১০ মিনিটে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনটিভিতে প্রচার হবে অনুষ্ঠানটি। অনুষ্ঠানটির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে অনলাইন সংবাদমাধ্যম রাইজিংবিডি ডটকম।

দেখুন: ভিডিও




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৮ আগস্ট ২০১৯/শান্ত/তারা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন