ঢাকা, রবিবার, ৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মাশরাফির ভাইয়ের মতো পেসার বের হচ্ছে : শফিউল

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৬ ৯:২৩:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২৬ ৯:২৩:৩৮ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : জাতীয় দল থেকে শফিউল ইসলাম কতবার বাদ পড়েছেন আর কতবার দলে ঢুকেছেন তা নিজেও বলতে পারেন না! দল থেকে বাদ পড়ার পেছনে পারফরম্যান্সের থেকেও বড় কারণ তার ফিটনেস। সবটাকেই শফিউল বলছেন, ‘আল্লাহ যা লিখে রেখেছেন সেটাই হয়েছে।’

শ্রীলঙ্কায় জাতীয় দলের হয়ে খেলেছিলেন তিনটি ওয়ানডে।  নতুন করে স্বপ্ন দেখছেন টেস্ট দলে ফেরার।  সেই স্বপ্ন পূরণে নিবিড় অনুশীলন চালাচ্ছেন মিরপুরে।

আজ অনুশীলন শেষে এসেছিলেন গণমাধ্যমে কথা বলতে।  মিরপুরে তার কথা শুনেছে রাইজিংবিডি

নিজের লক্ষ্য :

ভালো জায়গায় বল করলে যেকোনো জায়গায় সফল হওয়া সম্ভব। বিশ্বের সব বোলাররাই এভাবে সফল হয়েছে। জায়গাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের কোচ এগুলো নিয়ে কাজ করছেন। উইকেট যে রকমই হোক আমি যদি সুযোগ পাই, আমি চাইব যে উইকেটের সাহায্য থাকুক। এটা হলে নিজের কাছেই ভালো লাগবে। উইকেটের আচরণ এবং কন্ডিশন অনুযায়ী বল করার চেষ্টা করব।

ওয়ালশ-ল্যাঙ্গেভেল্টে পার্থক্য :

এখনও ওইভাবে কাজ করা হয়নি, তিন-চারদিন হয়েছে। সে মেইন ফোকাস করছে ধারাবাহিক এক জায়গায় বল করতে। যেন এলোমেলো বল না হয়। ব্যাটসম্যান যেন কষ্ট করে রান করে।

মাশরাফির মতো সাস্টেইন না কেন বাকি পেসাররা :

মাশরাফি ভাই অনেক অভিজ্ঞ। তাঁর মতো পেসার বের হচ্ছে। মাশরাফি ভাইয়ের মতোই সফল হবে। সবাই চেষ্টা করছে, সবাই তো একই রকম হয় না। ইশাল্লাহ এরকম আরও পেস বোলার বের হবে আশাকরি।

মাশরাফির পর আপনিই সেরা বোলার :

কারো সাথে কারো তুলনা করব না। কার পরে কে এটা নিয়ে ভাবি না। আমি মনে করি আমার যেটাই থাকুক, তারপরেও আমার উন্নতি করার জায়গা আছে। আমি এটাই চেষ্টা করি, দিনের পর দিন যত উন্নতি করতে পারি। স্কিল আমার যেটাই হোক, বা আরেকজনের যেটাই হোক, একেকজন এক এক রকম স্কিলফুল বোলার। আমি মনে করি আমার আরও ভালো করার সুযোগ আছে। আরও উন্নতি করার সুযোগ আছে। আমি ওই জিনিসটাই করার চেষ্টা করি।

দেশের বাইরেও ভালো করা কতটা সম্ভব :

আমরা বাংলাদেশ দল অনেক ভালো করে আসছি। আমরা হোমে যে রকম করি বাইরেও ভালো খেলছি। বিশ্বকাপ, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও। আমরা যদি হার্ডওয়ার্ক করি তাহলে দ্রুতই দেশের বাইরেও উন্নতি করা সম্ভব।

দেশের উইকেটে কি প্রয়োজন :

আমরা এখন যেখানে নেট করছি, অনুশীলন করছি খুব ভালো উইকেট। স্পিন সহায়ক উইকেট হবে বা উইকেট কেমন হবে এটা তো আমাদের হাতে না। যেরকম কন্ডিশই হোক আমাদের রেডি থাকতে হবে।

ক্যারিয়ার নিয়ে খুশি কিনা :

নয় বছর আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছি। নিজের দিক থেকে আমি খুশি না। যখন জাতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছি প্রথমবার, তারপর তিন বছর নিয়মিত খেলতাম। মাঝখানে হয়তো খেলতে পারিনি। ইনজুরি বা অন্যান্য কারণে। এখনও ক্যারিয়ার শেষ হয়নি। যদি সুযোগ পাই, যেটুকু সুযোগ পাই একটা লক্ষ্য দাঁড় করাতে পারব।

আপনার কোনো সমস্যা আছে কিনা?

আমার নিজের ম্যানেজমেন্টে সমস্যা না। আসলে দুর্ভাগ্য বলব।  আল্লাহ্‌ যা লিখে রেখেছেন সেটাই হয়েছে। আমি আমার কাজ সবসময় করার চেষ্টা করেছি। যখনই জাতীয় দলে ফিরে যাই, নিজের সেরাটা দেওয়ার জন্য চেষ্টা করি। হয়তোবা ডাক পাওয়ার পর ইনজুরিতে পড়েছি, এটাকে দুর্ভাগ্যই বলব। আসলে এটা নিয়ে বলার কিছু নেই। আল্লাহ্‌ যা লিখে রেখেছে সেটাই হয়েছে।

সুইং নিয়ে আপনিই সেরা বোলার :

হ্যাঁ অবশ্যই, নতুন বলে একটু আধটু হয়।  আমি অ্যাকুরেসি বা এসব নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করছি। যদি এলোমেলো বল হয় তাহলে তো সুইং হয়ে লাভ নেই। অ্যাকুরেসিটা ঠিক করার চেষ্টা করব যেন এক জায়গায় বার বার বল করতে পারি। সুইংয়ের সাথে সাথে যেন এটাও করতে পারি সেই চেষ্টা করছি। তাহলে আমার জন্য ভালো।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ আগস্ট ২০১৯/ইয়াসিন/আমিনুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন