ঢাকা, বুধবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৭ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মুজিববর্ষে হাত ধুয়ে বিশ্ব রেকর্ডের পরিকল্পনা

আসাদ আল মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৭ ৮:৫৩:১৪ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৮ ৭:১০:৪১ পিএম

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বিশেষ সেবা প্রদানসহ বেশ কিছু ইভেন্টের পরিকল্পনা নিয়েছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- দেশের সব স্কুলে একযোগে হাত ধুয়ে বিশ্ব রেকর্ডের পরিকল্পনা, পরিচ্ছন্ন গ্রাম, পরিচ্ছন্ন শহর কর্মসূচি পালন, দেশের বিভিন্ন এলাকায় বিনামূল্যে প্রায় ৮০ লাখ নলকূপের পানির আর্সেনিক পরীক্ষা ও চিহ্নিতকরণ, প্রতি উপজেলায় কমপক্ষে একটি লাইব্রেরীতে বঙ্গবন্ধু কর্ণার স্থাপন।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে এ মন্ত্রণালয়ের ৩০টি দপ্তর গুরুত্বপূর্ণ ১২টি সেবা চিহ্নিত করে প্রতি মাসে একটি করে সুনির্দিষ্ট সেবা প্রদানের বিশেষ কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। আগামী ১৭ মার্চ থেকে এ সেবা শুরু হবে।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অথবা ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে স্থানীয় সরকার বিভাগের সেবা কার্যক্রমের উদ্ধোধন করবেন প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর (ডিপিএইচই) আগামী ১৭ মার্চ ‌র‍্যালি, সমাবেশ ও কর্মসূচি পালন করবেন। বছরব্যাপী দেশের সব স্কুলে (প্রাথমিক ও মাধ্যমিক) শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি পালনের লিফলেট ও হাত ধোয়া সামগ্রী বিতরণ ও প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

১৫ অক্টোবর বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উপলক্ষে দেশের সব স্কুলে একযোগে হাতধোয়া কার্যক্রম পরিচালনা করে বিশ্ব রেকর্ড করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। অক্টোবর মাসে জাতীয় স্যানিটেশন দিবস পালন উপলক্ষে দেশব্যাপী জাতীয় স্যানিটেশন দিবস জাকজমকভাবে পালন করা হবে।

পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশনের সাফল্য অর্জন সংবলিত বাহনে দেশের সব উপজেলায় রোড শো কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। এতে ভিডিও শো প্রদর্শন, ওয়াশ সামগ্রী, পুস্তিকা ও লিফলেট বিতরণ করা হবে।

বিনামূল্যে নলকূপের পানির আর্সেনিক পরীক্ষা ও নিরাপদ/অনিরাপদ নলকূপ সবুজ/লাল রঙের মাধ্যমে চিহ্নিত করা হবে। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে বিনামূল্যে স্যানিটারি ল্যাট্রিন বিতরণ করা হবে। হাট-বাজার, রেল স্টেশন, বাস টার্মিনাল ও লঞ্চঘাটে নিরাপদ পানি সরবরাহ করা হবে।

জেলা ও উপজেলা কার্যালয় থেকে সাধারণ মানুষকে নিরাপদ পানি সরবরাহ করা হবে। অধিদপ্তরের সব কার্যালয়ে ঔষধি ও ফলের গাছ রোপন করা।

এছাড়া বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক ওয়াশ (wash) সম্মেলন আয়োজন করা হবে। এতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রধানদের আমন্ত্রণ জানানো হবে।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) উন্নয়ন বুলেটিন প্রকাশ করবে। এলজিইডির জেলা ও উপজেলা অফিস থেকে উন্নয়ন লিফলেট প্রচার ও বঙ্গবন্ধুর ওপর ডকুমেন্টেশন প্রচার করবে।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ সড়কে বঙ্গবন্ধুর মুর‍্যাল স্থাপন করা হবে। ওই এলাকার একটি সড়ক/পার্কে ১০০ বৃক্ষরোপন করা হবে। এছাড়া প্রতিটি ওয়ার্ডে কর মেলার আয়োজন করা হবে। এ মেলায় ১০ শতাংশ কর মওকুফ করা হবে।

অন্যান্য সিটি করপোরশেন ও পৌর সভায় বিনামূল্যে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হবে। বঙ্গবন্ধু অনুর্ধ্ব-১৯ ফুটবল ও ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে।

প্রতিটি ওয়ার্ডে বিশেষ পরিচ্ছনতা অভিযান পরিচালনা করা হবে। এতিমখানায় একবেলা উন্নতমানের খাবার পরিবেশন ও দোয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

উপজেলা পরিষদের তিনটি সড়কে ফলজ ও ঔষধি গাছ রোপন করা হবে। প্রত্যেক উপজেলায় একটি সরকারি পুকুর সংস্কার করে মাছ চাষ করা হবে। যেসব উপজেলা চত্ত্বরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নেই সেখানে ম্যুরাল সম্বলিত একটি মঞ্চ নির্মাণ করা হবে। প্রতিটি মঞ্চের জন্য ১ দশমিক ৫ শতাংশ জমির ওপর ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ লাখ টাকা।

ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে বছরব্যাপী যুব সমাজ ও ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে পরিচ্ছন্ন কর্মসূচি পালন করা হবে। ওয়ার্ডভিত্তিক গ্রীষ্ম ও শীতকালীন ক্রীড়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করাসহ ইউনিয়নের একটি ওয়ার্ড সড়কে বৃক্ষরোপন করা হবে।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে বলেন, আগামী ১৭ মার্চ থেকে বছরব্যাপী মুজিববর্ষের কর্মসূচি শুরু হবে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে মহান নেতাদের জন্মশতবার্ষিকী যেমন আড়ম্বরভাবে পালন করা হয় বাংলাদেশেও তেমনিভাবে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী পালন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

তিনি আরো বলেন, মুজিববর্ষ পালনের জন্য সরকারের নেয়া পরিচ্ছন্ন গ্রাম, পরিচ্ছন্ন শহর কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের ৩০টি দপ্তর যেসব কর্মসূচি পালন করবে তা নিয়ে একটি বুকলেট তৈরি করা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ ১২টি সেবা চিহ্নিত করে প্রতি মাসে একটি করে সুনির্দিষ্ট সেবা প্রদানের বিশেষ কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। বিভিন্ন দপ্তর বা সংস্থা বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক ও কর্মজীবনের চিত্র ও বক্তব্য প্রদর্শনী এবং রচনা প্রতিযোগিতা, বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করবে।

 

ঢাকা/আসাদ/জেনিস