ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘যারা ফুটবল বোঝে তারা বার্তা পাঠাচ্ছে, অভিনন্দন জানাচ্ছে’

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১৮ ৩:৫৫:০৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৭-১৮ ৬:১০:২৯ পিএম

ক্রীড়া ডেস্ক : পৃথিবীতে খুব কম মানুষই আছেন যারা নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন। এটা অবশ্য ব্যক্তির ওপরও নির্ভর করে। তবে এই মুহূর্তে পৃথিবীর সবথেকে ভাগ্যবান মানুষটি কে হতে পারেন?

খুব সম্ভবত মাথায় আসছে ফ্রান্সের স্ট্রাইকার অলিভার জিরুডের নাম। কেন আসবে না তার নাম? ফ্রান্স দ্বিতীয়বার জিতল বিশ্বকাপের ট্রফি। চ্যাম্পিয়নদের হয়ে প্রতিটি ম্যাচ খেলেছেন জিরুড। কিন্তু কোনো ম্যাচে গোল নেই। নেই অ্যাসিস্টও। ভাবনার বিষয় হচ্ছে তার একটি শটও ছিল না গোলমুখে!

আশ্চর্যের আরেকটি বিষয় হলো, ফ্রান্সের রক্ষণের দুই খেলোয়াড় ভারানে এবং উমতিতিরও বিশ্বকাপে একটি করে গোল রয়েছে। সেখানে সাত ম্যাচ খেলে একটি লক্ষ্যভেদ তো করতেই পারেননি, গোল মুখেও নেই কোনো শট! যদি বলা হয় ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জেতার পিছনে তার কোনো অবদান নেই তাহলেও ভুল হবে না।

ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেন ৬ গোল করে শিরোপা জিততে পারেননি। বিশ্বের সবথেকে দামী খেলোয়াড় নেইমার গোল করেছেন দুটি, অন টার্গেট শটও একাধিক। হ্যাটট্রিকসহ ৪ গোল করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তার কেউই পাননি শিরোপার স্বাদ। সেখানে জিরুডের খাতা শূণ্য। তবুও  ‘ক্রাইস্ট দ্য রিদিমা’য় চুমু খেয়েছেন ওই জিরুড।

৩১ বছর বয়সি এ স্ট্রাইকারকে নিয়ে চলছে সমালোচনা। বিশ্বকাপ চলাকালিন সময়েও সেই সমালোচনা অব্যাহত ছিল। কিন্তু দিদিয়ের দেশম তার ওপর আস্থা রেখেছিলেন প্রতি ম্যাচেই। আস্থার প্রতিদান দিতে না পারলেও দেশম হতাশ হননি তার পারফরম্যান্সে। অন্যদিকে জিরুড ছিলেন বেশ সাবলীল। সমালোচনায় কান পাতেননি। উল্টো জানালেন, সমালোচনা তাকে ভালো খেলতে উদ্ধুদ্ধ করে।

বিশ্বকাপ জয়ের পর ঘরে ফিরে ফ্রান্সের এক গণমাধ্যমকে সাক্ষাৎকারে জিরুড বলেন,‘আমার পুরো ক্যারিয়ারেই আমি এরকম পরিস্থিতির শিকার হয়েছি। আমি কিভাবে বলব…আমার ক্যারিয়ার এরকমই। আমি সব সময় এখান থেকে উঠে আসার চেষ্টা করেছি। সমালোচনা আমাকে অনুপ্রাণিত করে। কিভাবে আরও ভালো করা যায় সেটা নিয়ে চিন্তা করা যায়। জীবনটাও এরকম। এখানে অনুপ্রাণিত, দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকতে হবে।’

‘ফুটবল কঠিন একটা খেলা। এখানে শুধু সবাই ভালো কাজটাকে মূল্যায়ন করে। কিন্তু আমরা এ সাফল্যের জন্য কঠোর পরিশ্রম করি। আমি গর্বের সঙ্গে বলতে চাই আমি একজন বিশ্বকাপ জয়ী খেলোয়াড় ‘- যোগ করেন জিরুড।

জিরুডকে নিয়ে সমালোচনা শুরু হয় বিশ্বকাপের আগের থেকেই। প্রিমিয়ার লিগে চেলসির হয়ে ১৮ ম্যাচে ৫ গোল আর ৩ অ্যাসিস্ট করে ফুটবলবোদ্ধাদের তোপের মুখে পড়েন এ ফরাসি স্ট্রাইকার। তবে এসব নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন ৩১ বছর বয়সি জিরুড। তার ভাষ্য,‘এসব নিয়ে ভাবনার কোনো সময় নেই। বিশেষ করে ফ্রান্সে। আমি বিশ্বকাপে কোনো গোল পাইনি ঠিকই। কিন্তু যারা ফুটবল বোঝে তাদের থেকে ভালো বার্তা পাচ্ছি। তারা অভিনন্দন জানাচ্ছে। কারণ তারা জানে আমি দলের হয়ে সর্বোচ্চটুকু উজার করে দেই।’

আগামী ৫ আগস্ট চেলসির জার্সিতে দেখা যাবে ফ্রান্সের এ তারকাকে। প্রিমিয়ার লিগের উদ্বোধনী ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার সিটি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৮ জুলাই ২০১৮/ইয়াসিন

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন