ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ১৩ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৯ ১৪২৭ ||  ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

যে সড়কে কৃষ্ণচূড়া ছড়িয়েছে লাল আগুন

রুমন চক্রবর্তী || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৬:৩২, ১৮ মে ২০২০  
যে সড়কে কৃষ্ণচূড়া ছড়িয়েছে লাল আগুন

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজের পেছনের সড়কটিতে থরে থরে ফুটে আছে কৃষ্ণচূড়া। সারিবদ্ধ কৃষ্ণচূড়া গাছে ফুটে থাকা ফুলের আগুনে রূপ মন ভরিয়ে দেয় পথচারীদের।

পাতা ছাড়িয়ে ফুলে ফুলে ছেয়ে থাকা এ রূপ দেখে কখনো মনে হয় গাছে বুঝি আগুন লেগেছে। কেবল উপরেই নয়, ফুল ঝরে সে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে রাস্তার দু'পাশেও। যা প্রকৃতিপ্রেমীদের চোখ মন ভরিয়ে দেয়। আবেশ ছড়িয়ে যায় অদ্ভুত এক ভালো লাগার।
 


গ্রীষ্মের অতি পরিচিত ফুল কৃষ্ণচূড়া। যার আরেক নাম গুলমোহর। সারাবছর চোখে না পড়লেও গ্রীষ্মে এর রূপ দেখে থমকে দাঁড়াতে হয়। প্রখর রোদ যখন তাপদাহ ছড়ায় তখন কৃষ্ণচূড়া ফুল তার সৌন্দর্যের বার্তা ছড়িয়ে দেয় প্রকৃতির বুকে।

বাজিতপুরের সরারচর বাজারের বাসিন্দা সারোয়ার কবির সুমন প্রতিবছরই সকল ব‌্যস্ততম সময়ের মাঝেও ছুটে আসেন এখানে কৃষ্ণচূড়া রূপ উপভোগে। এই প্রকৃতিপ্রেমী বলেন, ‘প্রতিবছর এখানে জেলার আশপাশসহ বাইরের প্রচুর মানুষ কৃষ্ণচূড়ার এই রঙিন প্রকৃতি উপভোগ করতে আসেন। কিন্তু এ বছর লাল রঙের পথ মানুষশূন্য। করোনার কারণে মানুষ ঘরবন্দি। আর সড়কে নিরিবিলি সাহসী যৌবনের রং ছড়িয়ে চলেছে কৃষ্ণচূড়া।'
 


আলাপকালে কৃষ্ণচূড়া রূপ উপভোগে আসা কলেজ ছাত্র রক্তিম হাসান বলেন, ‘এ সময়টাতে প্রতিবছরই এখানটাতে  লোকারণ্য থাকে। তবে এ বছর করোনা প্রভাবে সে দৃশ্যটি নেই। তবু আশেপাশের অনেক মানুষ সময় সুযোগ নিয়ে ঠিকই ঘুরতে আসেন এখানে। এই রাস্তাটির উপরে-নিচে যেদিকেই চোখ যায় প্রকৃতির রঙিন ভালবাসায় মন ভরে যায়।'

গুরুদয়াল সরকারি কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ‌্যাপক গাজী মোহাম্মদ আশরাফুল আলম জানান, এখন বিভিন্ন রাস্তার ধারে, কলেজ ক‌্যাম্পাসে এ গাছটি বেশি লক্ষ‌্য করা যায়। বাংলাদেশে কৃষ্ণচূড়া ফুল ফোটে এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত। তবে মে মাসেই এর রঙীন রূপ সবচেয়ে বেশি চোখে পড়ে।
 


কিশোরগঞ্জ হর্টিকালচার সেন্টারের উদ্ভিদ তত্ত্ববিদ জয়নাল আহমেদ বলেন, ‘কৃষ্ণচূড়ার আদিনিবাস পূর্ব আফ্রিকার মাদাগাস্কার। সৌন্দর্যবর্ধক গুণ ছাড়াও, এই গাছ উষ্ণ আবহাওয়ায় ছায়া দিতে বিশেষভাবে উপযুক্ত। কৃষ্ণচূড়া উদ্ভিদ উচ্চতায় সাধারণত ১২/১৫ মিটার হলেও শাখা-পল্লবে এটির ব্যাপ্তি বেশ প্রশস্ত।'

 

রুমন/টিপু

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়