ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ আষাঢ় ১৪২৭, ০২ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

রাইজিংবিডির সংবাদ পড়ে কমলা বানুর পাশে আব্বাস তালুকদার

মামুন চৌধুরী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-১১ ৮:০৫:২৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-১১ ৮:১৪:৫১ পিএম

রাইজিংবিডিতে সংবাদ দেখে হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে কলোনীর পিঠা বিক্রেতা অসহায় কমলা বানুকে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন সমাজসেবক আব্বাস উদ্দিন তালুকদার।

১১ মে বিকেলে এ খাদ্যসামগ্রী দেন শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার বিরামচর গ্রামের বাসিন্দা বিশিষ্ট এই সমাজসেবক।

এ প্রসঙ্গে আব্বাস উদ্দিন তালুকদার বলেন, ‘রাইজিংবিডি কমলা বানুকে নিয়ে একটি মানবিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এ প্রতিবেদন পড়ে আমি নিজস্বভাবে উদ্যোগ নিয়ে এ খাদ্যসামগ্রী দিলাম, অত্যন্ত ভাল লেগেছে। ’

খাদ্যসামগ্রী পেয়ে আব্বাস উদ্দিন তালুকদারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কমলা বানু। সেই সাথে তাকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করায় তিনি রাইজিংবিডিকেও ধন্যবাদ জানান।

কমলা বানু জানান, ইতোমধ্যে উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ গাজীউর রহমান ইমরানের মাধ্যমে দুই স্থান থেকে তিনিসহ আরও দুই নারী খাদ্যসামগ্রী পেয়েছেন। এজন্য তারা কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন। 

এর আগে ৮ মে রাইজিংবিডিতে ‘পিঠা বিক্রি বন্ধ, তাই খাবারও নেই সেই কমলা বানুর ঘরে’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়।  এ সংবাদে উল্লেখ্য ছিল, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ জংশনে চিতই পিঠা ও সিদ্ধ ডিম বিক্রি করতেন সত্তরোর্ধ্ব কমলা বানু। করোনা আসার পর এসব বিক্রি বন্ধ রয়েছে। ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় জংশনে লোকজনও নেই। মেয়ের চাকরির জমানো টাকায় তিনি চলেছেন। এখন এ টাকাও শেষ। এ পর্যন্ত তাকে কেউ ত্রাণ দেয়নি বলে তার অভিযোগ। এ পবিত্র রমজানে তিনি খেয়ে না খেয়ে রোজা পালন করছেন। ৮ মে পর্যন্ত তার কাছে সরকারি কোন ত্রাণ পৌঁছায়নি।

এদিকে রেলওয়ে কলোনিতে থাকার ঘরটিও বসবাসের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। নেই খাবার, আবার থাকার জায়গাতেওও সমস্যা। এভাবে তিনি দুর্বিসহ জীবন কাটাচ্ছেন।


হবিগঞ্জ/মামুন/সাজেদ

       
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : হবিগঞ্জ, সিলেট বিভাগ