ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ মাঘ ১৪২৬, ২৩ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ইনিংস ও ১৩০ রানে হারল বাংলাদেশ

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১১-১৬ ৯:৫২:৩৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১১-১৬ ৭:৩৫:৫৬ পিএম
ছবি: মিলটন আহমেদ

ভারতের বিপক্ষে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচে তৃতীয় দিনেই ইনিংস ও ১৩০ রানে হার মেনেছে বাংলাদেশ।

ইন্দোরে ভারতের বিপক্ষে টস জিতে বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৫০ রানে অলআউট হয়। জবাবে ভারত তাদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৯৩ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে। এরপর বাংলাদেশ তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় দিনের তৃতীয় সেশনেই ২১৩ রানে অলআউট হয়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

বাংলাদেশ :

প্রথম ইনিংস : ১৫০/১০ (মুশফিক ৪৩, মুমিনুল ৩৭; শামি ৩/২৭)

দ্বিতীয় ইনিংস : ২১৩/১০ (মুশফিক ৬৪, মিরাজ ৩৮; শামি ৪/৩১ ও অশ্বিন ৩/৪২)

ভারত :

প্রথম ইনিংস : ৪৯৩/৬ ডিক্লে. (আগারওয়াল ২৪৩, রাহানে ৮৬; রাহী ৪/১০৮)।

ফল : ভারত ইনিংস ও ১৩০ রানে জয়ী।

সিরিজ : ভারত ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে।

 

২১৩ রানে অলআউট বাংলাদেশ :

দ্বিতীয় ইনিংসে ২১৩ রানে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হয়েছেন এবাদত হোসেন। রবীচন্দ্রন অশ্বিনকে মারতে গিয়ে লং অনে উমেশ যাদবের হাতে ধরা পড়েন। তাতে বাংলাদেশের ইনিংসের যবনিকাপাত ঘটে। এবাদত ১ রানে আউট হন। আবু জায়েদ রাহী ৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

 

লড়াই করে ফিরলেন মুশফিক :

দলের বিপর্যয়ের মুখে দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন মুশফিক। লড়াই করেছেন বুক চিতিয়ে। কিন্তু সেই লড়াইটা থামে দলীয় ২০৮ রানের মাথায়। এ সময় রবীচন্দ্রন অশ্বিনের বলে মিড অফে চেতেশ্বর পূজারার হাতে ধরা পড়েন তিনি। ১৫০ বল খেলে ৭টি চারে সর্বোচ্চ ৬৪ রান করে যান তিনি।

ফিরলেন তাইজুল :

২০৮ রানের মাথায় অষ্টম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মোহাম্মদ শামির বলে ঋদ্ধিমান সাহার হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তাইজুল (৬)। এটা ছিল শামির চতুর্থ শিকার।

বিরতির পর ফিরলেন মিরাজ

চা বিরতি থেকে ফিরে প্রথম ওভারেই আউট হয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ভেঙেছে ৫৯ রানের জুটি। উমেশ যাদবের বলটা বাড়তি বাউন্স পেয়েছিল। ডিফেন্ড করতে চেয়ে শেষ মুহূর্তে ছেড়ে দিয়েছিলেন মিরাজ। কিন্তু বল ভেতরে ঢুকে তার কনুইয়ে লেগে ভেঙে দেয় স্টাম্প।

মিরাজ ৩৮ করে ফেরার সময় বাংলাদেশের রান ৭ উইকেটে ১৯৪। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।

 

 

মুশফিক-মিরাজের লড়াই

দেড়শর মধ্যে ৬ উইকেট হারানোর পর মুশফিকুর রহিম ও মেহেদী হাসান মিরাজের ব্যাটে লড়াই করছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় সেশনে আউট হয়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও লিটন দাস।

চা বিরতির সময় ৫৪ ওভারে বাংলাদেশের রান ৬ উইকেটে ১৯১। মুশফিক ৫৩ ও মিরাজ ৩৮ রানে অপরাজিত আছেন। সপ্তম উইকেটে তাদের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে এসেছে ৫৬ রান। ইনিংস হার এড়াতে এখনো ১৫২ রান করতে হবে বাংলাদেশকে।

মুশফিকের ফিফটি

উমেশ যাদবের বলে ডাবল নিয়ে ফিফটি পূর্ণ করেছেন মুশফিকুর রহিম। দুই ইনিংস মিলে এই প্রথম বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যান পঞ্চাশ ছুঁলেন। ১০১ বলে ফিফটি করতে ৬টি চার মারেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

উইকেট উপহার দিলেন লিটন

মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে লিটন দাসের পঞ্চাশোর্ধ জুটিটা বেশ জমে উঠেছিল। কিন্তু লিটন উইকেট উপহার দেওয়ায় ভেঙে গেল ৬৩ রানের জুটি।

রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে ডাউন দ্য উইকেটে এসে খেলেছিলেন লিটন। কিন্তু সরাসরি ক্যাচ যায় অশ্বিনের হাতে।

লিটন ৩৫ রানে ফেরার সময় বাংলাদেশের রান ৬ উইকেটে ১৩৫। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গী মেহেদী হাসান মিরাজ।

 

 

আবার বাজে শটে আউট মাহমুদউল্লাহ

লাঞ্চের পর উইকেট পতনের মিছিলে যোগ দিলেন মাহমুদউল্লাহও। মোহাম্মদ শামির বলটা ছিল অফ স্টাম্পের বাইরে। খোঁচা মেরে দ্বিতীয় স্লিপে রোহিত শর্মাকে ক্যাচ অনুশীলন করালেন ব্যাটসম্যান। প্রথম ইনিংসেও বাজে শটে আউট হয়েছিলেন তিনি।

মাহমুদউল্লাহ ১৫ রানে ফেরার সময় বাংলাদেশের রান ৫ উইকেটে ৭২। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গী লিটন দাস।

আবার ভারতীয় পেসে ধুঁকছে বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ভারতীয় পেসারদের দাপটে ধুঁকছে বাংলাদেশ। প্রথম চার ব্যাটসম্যান ফিরে গেছেন দলের রান পঞ্চাশ ছোঁয়ার আগেই। সবগুলো উইকেটই নিয়েছেন পেসাররা। বাংলাদেশের ইনিংস হার এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র!

লাঞ্চ বিরতিতে বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ৬০। ইনিংস হার এড়াতেই এখনো প্রয়োজন ২৮৩ রান, হাতে ৬ উইকেট। মুশফিকুর রহিম ৯ ও মাহমুদউল্লাহ ৬ রানে অপরাজিত আছেন।

বাজে শটে আউট মিথুন

আগের ওভারে উমেশ যাদবের বলে বেঁচে গিয়েছিলেন ভারতের নেওয়া রিভিউ ব্যর্থ হওয়ায়। পরের ওভারে আর রক্ষা হলো না মোহাম্মদ মিথুনের।

মোহাম্মদ শামির শর্ট বল পুল করেছিলেন মিথুন। মিড উইকেটে এর চেয়ে সহজ ক্যাচ আর নিতে পারতেন না মায়াঙ্ক আগারওয়াল।  

বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে তখন তিনটি ৪! মানে ৪ উইকেটে ৪৪ রান। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

 

 

এবার বাঁচলেন না মুমিনুল

মুমিনুল হকের বিরুদ্ধে একবার রিভিউ নিয়ে ব্যর্থ হয়েছিল ভারত। তবে দ্বিতীয়বার রিভিউ নিয়ে সফল হয়েছে তারা। বাংলাদেশ হারিয়েছে অধিনায়ককে।

রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে মোহাম্মদ শামির বলটা লেগ সাইডে খেলতে চেয়েছিলেন মুমিনুল। কিন্তু ব্যাট ফাঁকি দিয়ে বল আঘাত হানে তার প্যাডে। এলবিডব্লিউয়ের আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। ভারত চায় রিভিউ। তাতে পাল্টে সিদ্ধান্ত।

মুমিনুল ৭ করে ফেরার সময় বাংলাদেশের রান ৩ উইকেটে ৩৭। মোহাম্মদ মিথুনের সঙ্গী হয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

কাকতালীয় ব্যাপার-স্যাপার

বাংলাদেশের দুই ওপেনার দুই ইনিংসেই করেছেন ৬ রান করে। ইমরুল কায়েস দুই ইনিংসেই আউট হয়েছেন উমেশ যাদবের বলে। সাদমান ইসলাম দুই ইনিংসেই ইশান্ত শর্মার শিকার। সাদমান দুই ইনিংসেই খেলেছেন ২৪ বল। ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মাও প্রথম ইনিংসে ৬ রান করেছেন। কাকতালীয় ব্যাপার-স্যাপার!

 

 

ইশান্তের শিকার সাদমান

ইমরুল কায়েসের বিদায়ের পর টিকলেন না সাদমান ইসলামও। ইশান্ত শর্মার দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড হয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার।

রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে ইশান্তের অফ স্টাম্পে পড়ে ভেতরে ঢোকা বল ডিফেন্স করতে চেয়েছিলেন সাদমান। কিন্তু ব্যাট ও প্যাডের ফাঁক দিয়ে বল ভেঙে দেয় মিডল অ্যান্ড লেগ স্টাম্প।

দুই অঙ্কে যেতে পারেননি সাদমানও। তার বিদায়ের সময় সাত ওভারে বাংলাদেশের রান ২ উইকেটে ১৬। মুমিনুল হকের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মোহাম্মদ মিথুন।

আবার ব্যর্থ ইমরুল

দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যর্থ হলেন ইমরুল কায়েস। প্রথম ইনিংসের মতো এবারও দুই অঙ্কে যেতে পারলেন না অভিজ্ঞ এই ওপেনার।

ওভার দ্য উইকেটে উমেশ যাদবের ফুল লেংথ বলটা সুইং করে ভেতরে ঢুকেছিল। ড্রাইভ করেছিলেন ইমরুল। ইনসাইড এজ হয়ে বল ভেঙে দেয় স্টাম্প।

দুই ইনিংসের ব্যর্থতায় কলকাতা টেস্টে ইমরুলের জায়গা ভীষণ অনিশ্চয়তায় পড়ে গেল! ষষ্ঠ ওভারে তার বিদায়ের সময় বাংলাদেশের রান ১ উইকেটে ১০। সাদমান ইসলামের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মুমিনুল হক।

 

 

ভারতের ইনিংস ঘোষণা

তৃতীয় দিনে আর ব্যাটিংয়ে নামেনি ভারত। আগের দিনের ৬ উইকেটে ৪৯৩ রানে ইনিংস ঘোষণা করেছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ৩৪৩ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেছে বাংলাদেশ। ইনিংস হার এড়াতে পারবে বাংলাদেশ?

ভারতীয় ব্যাটিংয়ে পিষ্ট বাংলাদেশের বোলিং

টেস্টের প্রথম দিন ভারতের পেস বিষে নীল হয়েছিল বাংলাদেশের ব্যাটিং। দ্বিতীয় দিন ভারতীয়দের ব্যাটিংয়ে পিষ্ট হয়েছে সফরকারীদের বোলিং। স্বাগতিকরা গড়ছে রানের পাহাড়।

প্রথম দিন বাংলাদেশকে ১৫০ রানে গুটিয়ে দেওয়া ভারত দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে ৬ উইকেটে ৪৯৩ রান নিয়ে। লিড নিয়েছে ৩৪৩ রানের। রবীন্দ্র জাদেজা ৬০ ও উমেশ যাদব ৩০ রান নিয়ে হোলকার স্টেডিয়ামে আজ তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নামবেন।

দ্বিতীয় দিন শেষে

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ১৫০

ভারত ১ম ইনিংস: ১১৪ ওভারে ৪৯৩/৬ (মায়াঙ্ক ২৪৩, রোহিত ৬, পুজারা ৫৪, কোহলি ০, রাহানে ৮৬, জাদেজা ৬০*, ঋদ্ধিমান ১২, উমেশ ২৫*; রাহী ৪/১০৮, ইবাদত ১/১১৫, মিরাজ ১/১২৫, তাইজুল ০/১২০)।



ঢাকা/পরাগ