ঢাকা, শনিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সমস্যা ওপারে নয়, এপারে

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-১৭ ৩:৩৮:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-১৭ ৯:৩৮:৩২ পিএম
সমস্যা ওপারে নয়, এপারে

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঈদুল আজহার ছুটি কাটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে রাজধানীতে ফিরছেন নগরবাসী। রাজধানী ছেড়ে যাওয়ার সময় যেমন ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে, তেমনই ভোগান্তি ঢাকায় ফেরার সময়েও। দেশের দক্ষিণাঞ্চল থেকে যারা আসছেন তারা ফেরি ঘাটের কাঠালবাড়ি প্রান্তে ভোগান্তি না পোহালেও ঘাটের এপারে মাওয়ায় ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।

ঈদের ছুটি কাটিয়ে খুলনা, বরিশাল, পিরোজপুর, বাগেরহাট, গোপালগঞ্জসহ দেশের দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলো থেকে লোকজন ঢাকায় ফিরছেন বাসে করে। নিয়ম অনুযায়ী, ওপার থেকে যে বাসে যাত্রীরা আসছেন একই কোম্পানির বাস মাওয়া থেকে সেসব যাত্রী পরিবহন করবে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, এ পারে আসার পর যাত্রীদের দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে বাসের জন্য। লঞ্চে নদী পার হয়ে মাওয়ায় বৃষ্টি বা ধুলার মধ্যে অপেক্ষা করতে হচ্ছে হাজার হাজার যাত্রীদের। কেউ প্রতিবাদ করছেন আবার কেউ কোনো প্রতিবাদ না করে অপেক্ষা করছেন।

কথা হয় পিরোজপুর থেকে টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসে আসা যাত্রী মাহাদী হাসানের সঙ্গে। তিনি বলেন, সকালে পিরোজপুর থেকে রওনা হয়েছি। বাসটি সময়মতো ঘাটের ওপারে আমাদের নামিয়ে দিলে বাসের সুপারভাইজারের সঙ্গে আমরা তাদের ঠিক করা লঞ্চে এপারে আসি। কিন্তু এসে দেখি তাদের গাড়ি এখানে নেই। সুপারভাইজারকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলছেন, আসতে দেরি হবে, অপেক্ষা করেন।

তিনি বলেন, এভাবে বাসের সার্ভিস দিলে তো হবে না। আমি এখানে আসার পরে দেখলাম, প্রায় প্রতিটি কোম্পানির বাসেই একই সমস্যা। আমার কথা হচ্ছে, ঈদের সময় তারা বেশি সংখ্যক বাস সার্ভিসে রাখতে পারত, তাহলে আর এই ভোগান্তি হতো না।

টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের সুপারভাইজার সামিম হোসেন বলেন, পদ্মা সেতুর জন্য ঢাকা থেকে মাওয়া পর্যন্ত রাস্তার কাজ চলছে। তাই বাস সঠিক সময়ে আসতে পারছে না। তাছাড়া, ঈদের সময় রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা অনেক গুণ বেড়ে যায়। তাই কিছু কিছু স্থানে জ্যামও রয়েছে।

তিনি বলেন, এসব সমস্যার কথা মাথায় রেখে আমরা যাত্রীদের সেবা দিতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করি। কিন্তু কিছু কিছু যাত্রী সেটা মানতে চান না। এখন আমাদেরও তো আসলে কিছু করার থাকে না এই পরিস্থিতিতে।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ আগস্ট ২০১৯/হাসিবুল/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন