ঢাকা, রবিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘স্বাধীন দেশ পেয়েছি বলে স্বাধীনভাবে কর্ম করে খাই’

আসাদ আল মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-১৬ ৫:৪০:২৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-১৬ ৮:৪৭:২২ পিএম

‘পরাধীন নই। স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি বলে স্বাধীনভাবে কর্ম করে খাই।'

সোমবার বিজয় দিবসে রাজধানীর পুরান ঢাকার বঙ্গবাজার এলাকায় রাইজিংবিডিকে এসব কথা বলেন ডাব বিক্রেতা আব্দুল জাব্বার।

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার জিনজিরা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল জাব্বার। বিজয় দিবসে সকাল থেকে বঙ্গবাজার এলাকায় ডাব বিক্রি করছিলেন তিনি।

১৬ ডিসেম্বরে সব বন্ধ থাকে, আজ কাজ করতে এসেছেন কেন? জবাবে ৮০ বছর বয়সী আব্দুল জাব্বার বলেন, ভাই, কাজ করে খাই। ছেলে-মেয়ে নাই। তাই বৃদ্ধ বয়সে কর্ম করতে এসেছি।

তিনি বলেন, এই দিনে (১৬ ডিসেম্বর) দেশ বিজয় লাখ করেছে। ১৫-১৬ বছর আগেও বিজয় দিবস সাদামাটাভাবে উৎযাপন করা হতো। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে খুব সুন্দরভাবে বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের কথা স্মরণ আছে কি না, জানতে চাইলে আব্দুল জাব্বার বলেন, রায়টের সময় (১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ) লাখ লাখ মানুষকে পাকিস্তানিরা হত্যা করেছে।  মা-বোনের ইজ্জত নিয়েছে (সম্ভ্রমহানি)। আমার বাবা মুক্তিযোদ্ধাদের আশ্রয় দিয়েছে। স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি, এজন্য আল্লার কাছে লাখো শুকরিয়া। আজ পাকিস্তান থাকলে স্বাধীনভাবে চলতে পারতাম না। কষ্ট করে আমি আয় করতাম, টাকা ওরা (পাকিস্তানিরা) নিয়ে যেত।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা গ্রামের হাজেরা খাতুন ছিন্নমূল মানুষ। রাজধানীর সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের সামনের ফুটপাতে থাকেন। সোমবার ভোর থেকে ফুটপাতে ফুলের মালা বিক্রি করছিলেন তিনি।

বিজয় দিবসে সবকিছু বন্ধ থাকে, আজ কেন এসেছেন?  এ প্রশ্নের জবাবে হাজেরা খাতুন রাইজিংবিডিকে বলেন, বিজয় দিবস কি আমাগো খাইবার দিবো? কাজ না করলে খামু কী? কাজ করে খাই। সব দিনই আমার কাছে সমান। কোন দিন কোন দিবস, আমি জানি না।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হলের সামনের ফুটপাতে বাস করেন ছিন্নমূল হালিম হোসেন। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ভাই, কখনো ফুলের মালা বিক্রি করি, কখনো ভিক্ষা করি। আমার কাছে সব দিনই সমান।

তিনি বলেন, শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা ঘরিষাড় ইউনিয়নের বাসিন্দা ছিলাম। নদীভাঙনে বাড়ি হারিয়ে ঢাকায় এসে ফুটপাতে থাকি।

ওই ফুটপাতের হকার আওলাদ হোসেন। তিনি বলেন, ফুটপাতে দোকান করে খাই। আমার কাছে কোনো দিবস নাই। প্রতিনিই কাজ করি। তাই আমার কাছে সব দিনই সমান।


ঢাকা/আসাদ/রফিক