ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

হবিগঞ্জের ক্রেতাদের পছন্দ পাহাড়ের গরু

মামুন চৌধুরী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-২৯ ১:২৩:০৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-২৯ ২:৩৫:৩৩ পিএম

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : এবারের  ঈদে হবিগঞ্জের ক্রেতাদের প্রথম পছন্দ পাহাড়ে পালিত হওয়া গরু। কারণ, পাহাড়ে প্রচুর ঘাস । আর এই ঘাস খেয়েই  মোটাতাজা হচ্ছে গরু। তাই এমন গরুকে নিরাপদ মনে করছেন হবিগঞ্জের বাসিন্দারা।

গরু মোটাতাজাকরণে নিষিদ্ধ স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ খাওয়ানো হচ্ছে এমন সন্দেহ থেকেই পাহাড়ে পালিত পশুর প্রতি হবিগঞ্জবাসীর এই আগ্রহ।

হবিগঞ্জ প্রাণিসম্পদ বিভাগ সূত্র জানায়, জেলার পাহাড়ি এলাকায় সবুজ ঘাসের সমারোহ । আর এ ঘাসের ওপর নির্ভর করেই পাহাড়ি এলাকার বাসিন্দারা বাড়ি বাড়ি গরু পালন করছেন। কোরবানির জন্য এসব গরু স্থানীয় পশুর হাটে বিক্রি হচ্ছে।

সরেজমিন পরিদর্শনকালে দেখা যায়, এ জেলার বাহুবল উপজেলার রশিদপুর চা-বাগানের কাছে পাহাড় ঘেরা টিলার ফয়জাবাদ হিলস আশ্রয়নে ৪০টি পরিবারের বসবাস। এখানের বাসিন্দারা সৎপথে রোজগারের পথ হিসেবে বেছে নিয়েছেন গরু পালন। পাহাড়ি সবুজ তাজা ঘাসে গরু মোটাতাজা হচ্ছে। এ আশ্রয়নে পালিত দুই শতাধিক গরু এবারের বিভিন্ন পশুহাটে বিক্রি করার কথা রয়েছে। মোটাতাজা এমন গরুও রয়েছে, যা লাখ টাকায় বিক্রির আশা করছেন তারা ।

খাওয়া-দাওয়া ঘুম রেখে গরু পালনেই এখন ব্যস্ত সময় কাটছে তাদের । গরু বিক্রির আয়ে এসব বাসিন্দারা পরিবারের স্বচ্ছলতা খুঁজছেন ।

আশ্রয়নের বাসিন্দা বাচ্চু মিয়া জানান, তার ৩টি গরু রয়েছে। এগুলোকে তিনি পাহাড়ের সবুজ ঘাস খেতে দিচ্ছেন। এসব খেয়েই গরু মোটাতাজা হচ্ছে। কোনো ওষুধ প্রয়োগ করতে হচ্ছে না।

আরেক বাসিন্দা জুয়েল মিয়া জানান, তার ৬টি গরু রয়েছে। এগুলোকে তিনি পাহাড়ি ঘাস খেতে দিয়ে মোটাতাজা করছেন। একইভাবে এখানের প্রতিটি পরিবার গরু পালন করছে । অন্তত ৫০০ গরু রয়েছে এই আশ্রয়নে।

কেবল এই আশ্রয়নেই নয়, হবিগঞ্জের পাহাড়ি এলাকার প্রায় প্রতি বাড়িতেই  গরু দেখতে পাওয়া যায়। পশু হাটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই চলছে এসব গরুর লালন-পালন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জসীম উদ্দিন বলেন, ‘এখানের বাসিন্দাদের জীবনযাত্রার মান এগিয়ে নিতে নানাভাবে সহায়তা করা হচ্ছে। এরা প্রত্যেকেই গরু পালন করে লাভবান হচ্ছেন।’

জেলা  প্রাণিসম্পদ অফিসার ডা. মো. ইসহাক মিয়া বলেন, ‘পাহাড়ে প্রাকৃতিকভাবেই প্রচুর ঘাস জন্ম নেয়। এসব ঘাস গরু মোটাতাজাকরণে খুবই উপযোগী ।  মোটাতাজাকরণে স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ গরুর জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। এসব বড়ি খাওয়ানোর কারণে পশুর যকৃৎ ও কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।’



রাইজিংবিডি/হবিগঞ্জ/২৯ আগস্ট ২০১৭/মামুন চৌধুরী/টিপু

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন