ঢাকা, সোমবার, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ

হাসান মাহামুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৮ ২:৪৭:২২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-০৮ ২:৪৭:২২ পিএম

সচিবালয় প্রতিবেদক : আগামী ৯ অক্টোবর থেকে ২২ দিন ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ মাছ ধরা ও বিক্রি নিষিদ্ধ থাকবে।

ইলিশ রক্ষায় প্রধান প্রজনন মৌসুম হিসেবে এ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু এ তথ্য জানিয়েছেন।

রোববার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় দুটি বিদেশি জাহাজের অনুপ্রবেশের বিষয়ে নীতিনির্ধারণী সভা শেষে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

মৎস্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আশ্বিনী পূর্ণিমার সময় আগামী ৯ অক্টোবর থেকে ২২ দিন ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ থাকবে। যেসব জেলার নদ-নদীতে ইলিশ মাছ পাওয়া যায় সেখানকার জেলেদের আমরা খাদ্য সহায়তা দেব।’

তিনি বলেন, ‘নিষিদ্ধ সময়ে ইলিশ পরিবহন, গুদামজাতকরণ কিংবা বিক্রিও সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে।’

প্রতিমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, ৯ থেকে ৩১ অক্টোবর ইলিশ ধরা ও বিক্রির পাশাপাশি সরবরাহ, মজুদও নিষিদ্ধ থাকবে। এ আদেশ অমান্য করলে কমপক্ষে এক বছর থেকে সর্বোচ্চ দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা বা উভয় দণ্ড হতে পারে।

নিষিদ্ধ সময়ে সারা দেশের মাছের ঘাট, মৎস্য আড়ত, হাট-বাজারে অভিযান চালানো হয়ে থাকে। এই সময়ে জেলেদের ভিজিএফের আওতায় চাল দিয়ে থাকে সরকার। প্রত্যেক জেলে পরিবার ৩০ কেজি করে চাল পায়।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৫ সালের মাছ রক্ষা ও সংরক্ষণ বিধি (প্রটেকশন অ্যান্ড কনজারভেশন ফিস রুলস, ১৯৮৫) অনুযায়ী প্রতি বছর আশ্বিনী পূর্ণিমার সময় ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ থাকে। ইলিশ ধরা নিষিদ্ধের সময় ২০১৬ সালে বাড়িয়ে ২২ দিন করা হয়। এর আগে এ সময় ছিল ১৫ দিন। ২০১৫ সালের আগে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধের সময় ছিল ১১ দিন। গত বছর ৭ থেকে ২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ ছিল।

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯/হাসান/ইভা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন