ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৩ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

২১ দিন নজরদারির পর লেক্সাস জিপ জব্দ

: রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৬-০৬-২৬ ৫:৫৫:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৬-০৬-২৬ ৬:১৮:৪২ পিএম
Voice Control HD Smart LED

নিজস্ব প্রতিবেদক : টানা ২১ দিন নজরদারি ও  যাচাই-বাছাই শেষে সুনামগঞ্জ থেকে প্রায় দুই কোটি টাকা মূল্যের কালো রঙের বিলাসবহুল লেক্সাস জিপ (আরএক্স ৩০০) জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দারা।

 

কারনেট সুবিধার অপব্যবহার করে শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে সুনামগঞ্জ সদরের হাজিপারার একটি বাসা থেকে গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান বিষয়টি রাইজিংবিডিকে নিশ্চিত করেছেন।

 

রাইজিংবিডিকে তিনি বলেন, গাড়িটি শুল্ক গোয়েন্দার নজরদারিতে ছিল গত তিন সপ্তাহ। যাচাই শেষে আজ (রোববার) গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে। গাড়ির বর্তমান ব্যবহারকারী একজন ব্যবসায়ী। তিনি ৭৫ লাখ টাকার বিনিময়ে দুই বছর আগে সিলেটের এনকে করপোরেশন নামে এক গাড়ি বিক্রেতার নিকট থেকে ক্রয় করেন। গাড়িটি বর্তমানে সিলেট শুল্ক গোয়েন্দার দপ্তরে রাখা হয়েছে।

 

এ বিষয়ে শুল্ক ও গোয়েন্দা সূত্র জানায়, লন্ডনের রুপা মিয়া নামের প্রবাসী কারনেট সুবিধা নিয়ে ডিডিওয়াই নম্বর-৬৪১৬১৯, ০৭/১০/২০১০ এর মাধ্যমে বিনাশুল্কে গাড়িটি ছাড়পত্র নেন। গাড়ির চেসিস নং JTJHF31U900023634, CC: 2995, Model: Lexus RX300 (২০০৪)। শুল্কসহ গাড়ির মূল্য প্রায় ২ কোটি টাকা। পরবর্তীতে সিলেটের বিআরটিএ হতে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন নেওয়া হয়েছে (সিলেট ঘ ১১-০৩০১)।

 

সিলেট বিআরটিএ নথিপত্র যাচাই করে দেখা গেছে, বিল অব এন্ট্রি সি ১১৪২৮৬, ২৯/০৫:২০১৪ এর মাধ্যমে জাপান থেকে আমদানির তথ্যের ভিত্তিতে এই রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হয়। কিন্তু চট্রগ্রাম কাস্টম হাউসের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায় এটি একটি পোশাক রপ্তানিকারকের শিপমেন্ট। এই নম্বরে কোনো গাড়ি আমদানির রেকর্ড নেই। এতে শুল্ক কর্তৃপক্ষ স্পষ্ট ধারণা পেয়েছে যে, আমদানির কাগজপত্র জাল করে বিআরটিএ থেকে রেজিস্ট্রেশন নেওয়া হয়।

 

কারনেটের গাড়ির তালিকা যাচাই করে দেখা যায়, একই চেসিস ও মডেলের গাড়ি ২০১০ সালে দেশে প্রবেশ করে। বর্তমানে আরো অনুসন্ধান করার কাজ চলছে।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ জুন ২০১৬/এম এ রহমান/সাইফ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge