ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ কার্তিক ১৪২৬, ১২ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

রাজকোটবাসীদের স্যালুট

পশ্চিম ভারতের সমৃদ্ধ রাজ্য গুজরাট। এর প্রধান শহর রাজকোট। আগের রাতে দেরি করে ঘুমিয়েছিলাম। তাই কখন সকাল হয়েছে টের পাইনি। মোবাইলে নয়টা বেজে আটচল্লিশ।

ম্যাটারহর্ন গ্লোসিয়ার প্যারাডাইস

যতদূর চোখ যায়, চোখের আয়নায় ভেসে ওঠে ধবধবে কলঙ্কহীন সাদা আর সাদা। এরই মাঝে সূর্যের তীব্র আলো চোখে মুখে লুটোপুটি খাচ্ছে। কিন্তু দিনমণির প্রবাহে কোনো উত্তাপ নেই।

রাতের রাজকোটে তিন যুবক

রাজকোট বিমানবন্দরে নেমেই হুমায়ূন আহমেদের কথা মনে পড়ে গেলো। মনে পড়লো তার লেখা একটি বইয়ের নাম।

যেন এক পাথরের বাগান!

জীবনের ক্লান্তি দূর করতে হেমন্তের এই দিনে কোথায় যাবেন? আসুন প্রকৃতির অপরূপ লীলাভূমি সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার রুস্তমপুর ইউনিয়নে।

দেখে এলাম রাঙামাটির ছাদ

বেড়াতে ভালো লাগে ছোটবেলা থেকেই। বাবার সঙ্গে এখানে-ওখানে যেতাম।

পাবে সামান্যে কি তার দেখা (শেষ কিস্তি)

দ্বিতীয়বার ঘুম ভেঙে গেলে দেখলাম সবাই উঠেছে। নিচে নেমে এলাম। ফরহাদ মজহারকে ঘিরে আড্ডা জমেছে খুব!

দীপাবলি উৎসবে

কার্তিক মাসের অমাবস্যা তিথিতে সাধারণত শ্যামাপূজা বা কালীপূজা অনুষ্ঠিত হয়। হিন্দু পুরাণমতে, কালী দেবী দুর্গারই একটি শক্তি।

‘শালুক ফুলের লাজ নাই, রাইতে শালুক ফোটে’

ভোরে আজানের অপেক্ষায় ছিলাম। আগে থেকেই ঠিক করা ছিল আমাদের ভ্রমণ-স্থান।

পাবে সামান্যে কি তার দেখা

কয়েক বছর আগে একবার লালন সাঁইজির তিরোধান দিবসে কুষ্টিয়া যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলাম, কিন্তু যাওয়া হয়নি অসুস্থতার কারণে।

বৃহৎ জলাশয়ে বৈচিত্রের সন্ধানে

লেক বা হ্রদ হলো চারপাশে ভূমি দ্বারা আবদ্ধ বড় জলাশয়। পৃথিবীতে অগণিত হ্রদ আছে, তবে এগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি হ্রদ আয়তন এবং পর্যটনের জন্য প্রসিদ্ধ।

মেঘ ছুঁতে কেওক্রাডং

দুর্গম পথে ঘাম ঝরানো ট্যুর হিসেবে বান্দরবানের কেওক্রাডং জনপ্রিয় গন্তব্য। দেশের তৃতীয়তম উচুঁ পাহাড় এটি।

রবীন্দ্র স্মৃতিবিজড়িত কুঠিবাড়ি

কুষ্টিয়া শহর থেকে ১৫ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে কুমারখালি উপজেলার অন্তর্গত গ্রাম শিলাইদহ। এই গ্রামেই অবস্থিত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত কুঠিবাড়ি।

যে নাগরদোলা কখনও থামে না

আমরা মেলায় নাগরদোলা দেখেছি। অনেকে উঠেছি। আনন্দ করেছি। কিন্তু সেগুলোর উচ্চতা কত? পনেরো ফুট, বিশ ফুট।

ইস্তাম্বুল: নীল জলে পা ডুবিয়ে যে নগর থাকে অপেক্ষায়

তোপকাপি প্যালেসের হাম্মাম এতটা মনোরম নয়, যতটা ডলমাবাহচে প্যালেসের। এমন নয় যে, এ প্রাসাদের কোথাও ছবি তোলা নিষেধ। হাম্মাম আর কিছু প্যাসেজে ছবি তোলার অনুমতি আছে দেখলাম। সেখানে দর্শনার্থীদের ছবি তোলার ভিড়ও বেশ।

বাঞ্জি জাম্প: ভীতিকর অনন্য অভিজ্ঞতা

আপনার যদি উচ্চতা-ভীতি থাকে তাহলে প্রথমেই ভ্রমণ পরিকল্পনা থেকে বাঞ্জি জাম্প বাদ দিতে হবে।