ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ছোটগল্প: ধরনে ও ধারণায়

প্রায় সাড়ে তিন হাজার বছর আগে মিশরে গল্পের নমুনা পাওয়া যায়।

সাহিত্য পুরস্কার ঘোষণা করল বাংলা একাডেমি

২০১৯ সালের বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।

এখনো জ্যোৎস্না ফোটে রূপনগরে, আপনি ঘুমিয়ে আছেন মহানন্দার পাড়ে

জ্যোৎস্নাপাগল দু’জন লেখককে আমার খুব পছন্দ-  একজন মমতাজউদদীন আহমদ, অন্যজন হুমায়ূন আহমেদ।

আমার নীল চাদর || ধ্রুব এষ

আমার নাম সারি।

শারি না, সারি।

শালিক পাখি না, আমি নদী।

ছোটগল্প || বিষণ্ন পৃথিবী ছেড়ে

কাওরাইদ বাজারে, বৈশাখী মেলার সময় নাগরদোলায় চড়লে যেভাবে মাথা ঘুরে যেত, সেভাবে মাথা ঘুরছে।

আমি মুখরতার ভিতর নিঃসঙ্গ

আমার ভিতরে শান্ত, অস্থির আর নিঃসঙ্গ একটা মানুষ বাস করে। যে কোনো কারণেই সে একা।

ছোটগল্প || হালকা প্রেমের ট্রেন

মেয়েটাকে আমি প্রথম দেখেছিলাম ট্রেনে।

অদৃশ্যযাত্রা || সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম

মাঝরাতে বৃষ্টি শুরু হলো। এখন আকাশজুড়ে আশ্বিনের জ্যোৎস্না থাকার কথা, কাল রাতেও মোটামুটি আস্ত একটা চাঁদ অনেক মাতাল আলো ছড়িয়েছে।

ঠিক পথে গালিব এসে যেত যদি...

আজ থেকে ঠিক ২০২ বছর আগে আগ্রায় জন্মেছিলেন তিনি। ফার্সি ভাষায় কবিতা লিখতেন।

ছোটগল্প || জুলাইয়ের প্রেমহীন দিনগুলো

প্রকাশ্য চুমু নিয়ে যেহেতু মামলা, তাই শুনানিতে এ বিষয়ে বিশদ বিবরণ জানতে চাইলেন আদালত।

ছোটগল্প || অমীমাংসিত তালগাছ

বেশ কিছুক্ষণ সবার আলাপ আলোচনা কানে শুনে, চোখে দেখে সালিশের প্রধান কর্তা মেম্বার সাহেব বললেন, আসলে পোলাটার ভুল হইয়া গেছে। বয়স অল্প।

মুক্তিযুদ্ধের গল্প || জানালা

লঞ্চঘাটে কয়েকটা চায়ের দোকান আর কলিম মিয়ার ভাতের হোটেল।

আমাকে বলা হতো, বাবা ফিরে আসবেন: শাওন মাহমুদ

বাংলা গানের কিংবদন্তি সুরকার শহীদ আলতাফ মাহমুদ। ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানটির সুর তাঁরই করা। মুক্তিযুদ্ধে আলতাফ মাহমুদের রয়েছে অমূল্য অবদান।

মাহমুদুল হক : মোহন শব্দমালার নির্মাতা

মাহমুদুল হক বাংলা কথাসাহিত্য জগতের এক অনন্য পুরুষ, এক স্বতন্ত্র মানুষ— একথা আমাদের মনে হয়েছিল ১৯৭৩ সালে প্রকাশিত তাঁর প্রথম উপন্যাস ‘যেখানে খঞ্জনা পাখি’ পড়ে।

মশিউল আলমের ‘মিল্ক’ পেল হিমাল পুরস্কার

‘হিমাল শর্ট স্টোরি কমপিটিশন-২০১৯’ জিতেছেন দেশের পাঠকপ্রিয় কথাসাহিত্যিক মশিউল আলম। হিমালের ওয়েবসাইট থেকে এই তথ্য জানা যায়। ‘মিল্ক’ শিরোনামে গল্পের জন্য লেখক এবং অনুবাদককে এই পুরস্কার দেয়া হয়। গল্পটি বাংলা থেকে অনুবাদ করেছেন শবনম নাদিয়া।