ঢাকা, রবিবার, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৫ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু

হাসান মাহামুদ : ১৯৯৯ সালে সরকারি জোর প্রচেষ্টার ফসল হিসেবে একুশে ফেব্রুয়ারি দিনটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

মহাকাব্যের বিশ্ব জয়

এসকে রেজা পারভেজ : বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভিন্ন প্রেক্ষাপটে সময়ের আবেদন মেনে অনেক ভাষণ এসেছে। সেগুলো বদলে দিয়েছে অনেক কিছু।

বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা মুক্তির আলোকবর্তিকা

এসকে রেজা পারভেজ : বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের রোডম্যাপ মুলত রচিত হয়েছিলো বঙ্গবন্ধুর ছয় দফা থেকেই। এটি ছিলো রাজনীতিতে বঙ্গবন্ধুর দুরদর্শী একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত।

বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য ছিল শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা

হাসান মাহামুদ : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতির জনক। একই সঙ্গে তিনি সমাজতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মধ্যে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থারও জনক।

ইসলামের খেদমতে বঙ্গবন্ধু

মোহাম্মদ নঈমুদ্দীন : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, একটি নতুন মানচিত্রের অমর রূপকার।

‘লেবাসসর্বস্ব নয়, আমরা বিশ্বাসী ইনসাফের ইসলামে’

মোহাম্মদ নঈমুদ্দীন : ‘আমরা লেবাসসর্বস্ব ইসলামে বিশ্বাসী নই। আমরা বিশ্বাসী ইনসাফের ইসলামে।’ ১৯৭০ সালে সাধারণ নির্বাচনের প্রাক্কালে পাকিস্তান বেতার ও টেলিভিশনে প্রদত্ত ভাষণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাবে দৃঢ়তার সঙ্গে একথা বলেছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিময় বাঘিয়ার খাল-হিজল গাছ

বাদল সাহা, গোপালগঞ্জ : হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

সেদিন বিশ্ব গণমাধ্যমে শুধু বঙ্গবন্ধু

এস‌কে রেজা পার‌ভেজ: স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি তিনি। নিজের পুরো জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন বাংলার মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে।

এখনো অনুসরণ করা হয় বঙ্গবন্ধুর কূটনীতি

হাসান মাহামুদ : ব্যক্তিগত সাফল্য জাতীয় অর্জন ছাড়িয়ে যাওয়ার মতো উদাহরণ বিশ্বে খুব বেশি নেই। কূটনৈতিক ক্ষেত্রে সেই সফলতা অর্জন করতে পেরেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

সোনালী আঁশ ও বঙ্গবন্ধু

আসাদ আল মাহমুদ : স্বাধীনতার পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তান থেকে মুক্ত হয়ে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফেরেন। 

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা ছিল বঙ্গবন্ধুর

এম এ রহমান মাসুম : ১৯৭৫ সালের ২৬ মার্চ। স্বাধীনতা দিবসের পঞ্চম বার্ষিকী ছিল। সেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে লাখো জনতার সামনে সবুজ চত্বরে দাঁড়িয়ে দুর্নীতিবাজদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু।

বঙ্গবন্ধুর বেকার হোস্টেল

আবু বকর ইয়ামিন : স্বাধীন বাংলাদেশের সঙ্গে যে নামটি ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে সেটি হচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বাঙালি জাতির জনক তিনি।

বঙ্গবন্ধুর স্ব-নির্ভর অর্থনীতি

এম রহমান মাসুম : ১৯৭৩ সাল। রাজধানী ঢাকায় অনুষ্ঠিত দাতাদের প্রথম বৈঠক।

বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখেছিলেন সমৃদ্ধ বাংলাদেশের

নাসির উদ্দিন চৌধুরী : গোপালগঞ্জ জেলার ছোট্ট একটি গ্রাম, যার নাম টুঙ্গিপাড়া। এই গ্রামে জন্ম হয় ইতিহাসের এক মহানায়কের, এক কিংবদন্তির।

মহানায়কের নেপথ্যচারিণী মহীয়সী

এসকে রেজা পারভেজ : ‘আমার সহধর্মিণী একদিন জেলগেটে বসে বলল, বসেই তো আছো, লেখো তোমার জীবনের কাহিনি। বললাম, ‘লিখতে যে পারি না; আর এমন কী করেছি যা লেখা যায়! আমার জীবনের ঘটনাগুলো জেনে জনসাধারণের কি কোনো কাজে লাগবে?