ঢাকা, বুধবার, ৬ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

টোকিওতে শিশুদের কলকাকলিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী

আব্দুল্লাহ আল মামুন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১৭ ৯:৩৮:৩২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-১৭ ৯:৩৯:১৬ পিএম
টোকিওতে শিশুদের কলকাকলিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী
Walton E-plaza

আব্দুল্লাহ আল মামুন, টোকিও, জাপান : বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৯ উদযাপন করেছে জাপানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস।

রোববার বর্ণিল বিকেলে রাজধানী টোকিওর বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে জন্মবার্ষিকী ও শিশু দিবস উদযাপন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে আগত সকল শিশু-কিশোর ও ছোট সোনামুনিরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের আত্মার শান্তি ও মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। পরে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত গান। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে  রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্তবানী পাঠ করা হয়।

জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা তাঁর শুভেচ্ছা বক্তব্যে সবাইকে স্বাগত জানান। তিনি বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবন সম্পর্কে আলোচনা করেন। রাষ্ট্রদূত শিশু-কিশোরদের উদ্দেশ্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের সৃষ্টি হত না। তিনি ছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা ও মুক্তির দূত।



রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শিশুদের ভালবাসতেন। শিশুরাও বঙ্গবন্ধুকে আপন করে নিত। আর তাই এই মহান নেতার জন্মদিনকে জাতীয় শিশু দিবস হিসাবে পালন করা হয়। রাষ্ট্রদূত শিশু-কিশোরদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শে জীবন গড়ার ও বঙ্গবন্ধুর মত মানবীয় গুণাবলী সম্পন্ন হয়ে দেশের উন্নয়নে আত্ম-নিয়োগ করার আহ্বান জানান।

পরে  বঙ্গবন্ধুর  কর্মজীবন, ত্যাগ ও সংগ্রামের ওপর উন্মুক্ত  আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। জাপান প্রবাসী বাংলাদেশি নেতারা এই আলোচনায় অংশ নেন। এ সময় তাঁরা জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার দৃপ্ত প্রত্যয়ে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তশালী করার আহবান জানান।

পরে জাপানে বসবাসরত বাংলাদেশি শিশু-কিশোরদের কাছে বিতরণকৃত জাপানি ভাষায় অনূদিত গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’  বইয়ের  ওপর কুইজ এবং ‘বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধ’  বিষয়ের ওপর যেমন খুশিতে মন সাজো প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। অত্যন্ত আনন্দঘন পরিবেশে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। এরপরই শুরু হয় শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

টোকিও ও আশেপাশের অঞ্চল থেকে আগত প্রবাসী ও তাঁদের সন্তানদের উৎসাহ ও উদ্দীপনায় মুখোর ও প্রাণোচ্ছল হয়ে উঠেছিল  দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তন। জাপানে বসবাসরত শিশু-কিশোরদের জন্য আয়োজনটি-‘প্রাণের মেলা’ হয়ে উঠেছিল।



অনুষ্ঠানের শেষাংশে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ ও র‌্যাফেল ড্র আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আগত সকল শিশুকে উপহার প্রদান করা হয়। পরে রাষ্ট্রদূত বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনকে আরো আনন্দময় করতে আগত শিশুদের নিয়ে কেক কাটেন। এ সময় বিপুলসংখ্যক প্রবাসী ও দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।



রাইজিংবিডি/টোকিও/জাপান/১৭ মার্চ ২০১৯/আব্দুল্লাহ আল মামুন/সাইফ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge