ঢাকা, মঙ্গলবার, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৩ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

লন্ডনে বৈশাখী মেলা : পেছনে নানান প্রশ্ন

অহিদুজ্জামান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-০১ ১:৫৮:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-০১ ৬:৪৮:৪১ পিএম
লন্ডনে বৈশাখী মেলা : পেছনে নানান প্রশ্ন
Voice Control HD Smart LED

অহিদুজ্জামান, লন্ডন : দেরিতে হলেও লন্ডনে অনুষ্ঠিত হলো বৈশাখী মেলা। টাওয়ার হ্যামলেটস্ কাউন্সিলের বাঙালি অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনের ব্রিকলেনে উইভার্স ফিল্ডস পার্কে রোববার হয়ে গেলো ওই মেলা।

তবে কয়েক বছর আগে মেলাকে কেন্দ্র করে উঠা দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত না হওয়ায় বাংলাদেশিদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৫ সালে কাউন্সিলের নির্বাহী মেয়রের পদ থেকে লুৎফুর রহমান বরখাস্ত  হন। বর্তমান মেয়র জন বিগস একই দুর্নীতি লালন করছেন বলে অভিযোগ। এ নিয়ে বাংলাদেশিদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কাউন্সিলের সাবেক নির্বাহী ডেপুটি মেয়র ওহিদ আহমেদ বলেন, বর্তমান মেলা পরিচালকদের বাঙালি সংস্কৃতি সম্পর্কে কোনো অভিজ্ঞতা না থাকায় বৈশাখী মেলা নামমাত্র হয়েছে। এটাকে বৈশাখী মেলা বলা যায় না উল্লেখ করে তিনি বলেন, এতে গণমাধ্যমের কোনো অংশগ্রহণ নেই। সংবাদপত্রের নজর কাড়তে ব্যর্থ হয়েছে। আগে উদ্যোক্তারা যেভাবে   প্রচার চালাতেন তা হচ্ছে না। ফলে মানুষ জানতেই পারছেন মেলা সম্পর্কে।

যুক্তরাজ্যের প্রতিকূল আবহাওয়া ও রমজান মাসের কারণে এপ্রিল মাসে মেলা আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। প্রায় দেড়যুগ ধরে মে-জুন মাসে এই মেলা হয়ে আসছে।

এর আগে বৈশাখী ট্রাস্ট নামে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান মেলা পরিচালনার দায়িত্বে ছিলো। ২০১৫ সালে তাদের বিরুদ্ধে মানব পাচারসহ কয়েক মিলিয়ন পাউন্ড তসরূপের অভিযোগ উঠে। এর পরিপ্রেক্ষিতে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ ২০১৬ সাল থেকে মেলা আয়োজনের দায়িত্ব পায়।

ব্রিটিশ মূলধারার জনগোষ্ঠীর কাছেও বৈশাখী মেলা ছিল উপভোগ্য। অথচ নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে লোকজন মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে মেলা থেকে।

লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সাংবাদিক ও সাপ্তাহিক জনমত পত্রিকার এসিস্ট্যান্ট এডিটর মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, কাউন্সিলের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত বৈশাখী মেলায় বাঙালি কমিনউনিটির কোনো সম্পৃক্ততা নাই। বৈশাখী মেলার শোভাযাত্রা মোটামুটি ঠিক থাকলেও মূল অনুষ্ঠানের ব্যাপারে তিনি হতাশ।

লন্ডন মহানগর বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ব্রিকলেনের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সামসুদ্দিন শামস অবশ্য বলেন, আমাদের অনেকের কাছেই বৈশাখী মেলা এখনো প্রাণের উচ্ছ্বাস।

এবারের মেলায় উপস্থাপক ছিলেন রোনি মির্জা এবং বিবিসি এশিয়া নেটওয়ার্কের নাদিয়া আলী। সংগীত পরিবেশন করেন ইমরান, লাভলি দেব ও বেলি আফরোজ।

মেলায় আগত অনেকেই বলছেন, এর আগে হিন্দি গানের শিল্পীদের এনে গাওয়ানো হতো। এর পরিবর্তে কয়েকজন বাংলাদেশি শিল্পী এসেছেন বটে। কিন্তু বাংলাদেশে বিশ্বমানের অনেক শিল্পী রয়েছেন। এমনকি লন্ডনে বাঙালি কমিউনিটিতে বাংলা গানের অনেক ভালো শিল্পী রয়েছেন। তারা কেনো এই মেলায় আমন্ত্রণ পেলেন না?


রাইজিংবিডি/ঢাকা/১ জুলাই ২০১৯/অহিদুজ্জামান/লাকী

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge